শুক্রবার, জানুয়ারি ২২
Shadow

৫মাসের অন্ত:স্বত্ত্বা স্ত্রী রেখে স্বামীর পলায়ন

সোলায়মান মোহাম্মদ:

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার মাওনা ইউনিয়নে ৫ মাসের অন্ত:স্বত্ত্বা স্ত্রীকে রেখে কৌশলে পালিয়ে যায় মো. ওমর ফারুক (৩৫)। স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন (২৯) থাকা খাওয়ার অভাবে অনাগত সন্তান ও নিজের স্বাস্থ্য ঝুকিতে দিন পার করছে।
সরেজমিন জানা যায়, ওমর ফারুক ৬ মাস আগে মাওনা ১ নং ওয়ার্ড পিয়ার আলী বিশ^বিদ্যালয় কলেজের পিছনে মো. দুলাল মিয়ার বাড়িতে বাসা ভাড়া করে স্ত্রীকে নিয়ে থাকতো। সে মাওনা চৌরাস্তা আল আমিন মুড়ির মিলে দিন মুজুরির কাজ করতো। কিন্তু হঠাৎ এক মাস আগে সে তার ৫ মাসের অন্ত:স্বত্ত্বা স্ত্রীকে মিথ্যা বলে কৌশলে পালিয়ে যায়। তার স্ত্রী সাবিনাকে দেওয়া সবগুলো মোবাইল নম্বর এখন বন্ধ। সাবিনা সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজ করে তার স্বামীকে না পেয়ে চরম দুশ্চিন্তা ও স্বাস্থ্য ঝুকিতে রয়েছেন। অন্ত:স্বত্ত্বা হওয়ায় সে কোথাও কোন কাজ পাচ্ছে না। একবেলা খেয়ে না খেয়ে কেঁদে কেঁদে স্বামীর অপেক্ষায় দিন গুনছে সাবিনা।

সাবিনা ইয়াসমিন বলেন,ওমর ফারুকের সাথে আমার প্রায় ৫ বছরের প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। সে সময় আমরা উভয়ে টঙ্গী বোর্ড বাজার এলাকায় থাকতাম। আমার কেউ না থাকায় নিজের ইচ্ছাতেই ওমর ফারুকের সাথে ২০১৬ সালের ১৭ মার্চ বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হই। ফারুককে ভালোবেসে বিশ্বাস করে বিয়ে করেছি। তার পরিবারের কোনো খোঁজ খবর নিতে পারেনি। শুধু জানি তার দেশের বাড়ি ফেনির ছাগলনাইয়া। বিয়ের পর সুখেই কাটছিলো আমাদের দাম্পত্ব জীবন। ৬ মাস আগে ফারুক আমাকে নিয়ে মাওনায় চলে আসে। কিন্তু হঠাৎ করে মাসখানেক আগে বাড়ি যাওয়ার মিথ্যা কথা বলে চলে যায়, আর আসেনি। তার দেওয়া সব মোবইল নম্বর বন্ধ পাচ্ছি। আমি এখন কি করবো বুঝে উঠতে পারছিনা। থাকা খাওয়ার কোনো ব্যবস্থা আমার নেই। শরীরের এই অবস্থা নিয়ে কোথাও কাজ করারও কোনো সুযোগ পাচ্ছি না। এই অবস্থা চলতে থাকলে না খেয়ে অনাগত সন্তান নিয়ে আমাকে মরতে হবে। তবে স্টুডেন্ট লিংক নামের আর্তমানবতা সেবায় নিয়োজিত একটি সংগঠন আমাকে কিছু আর্থিক সহায়তা করেছে।

পিয়ার আলী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আহাম্মাদুল কবির বলেন, ৫ মাসের অন্ত:স্বত্ত্বা সাবিনাকে স্বামীর প্রতারণার শিকার হয়ে না খেয়ে থাকতে হচ্ছে বিষয়টি সত্যি খুব বেদনাদায়ক। স্টুডেন্ট লিংককে ধন্যবাদ জানাচ্ছি সাবিনার পাশে দাঁড়ানোর জন্য। প্রশাসনের প্রতি জোর দাবী থাকবে এই প্রতারক ওমর ফারুককে খোঁজে বের করে উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করার।

এই বিষয়ে শ্রীপুর উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মৃণালিনী জানান, বিষয়টি জেনেছি তবে কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি। আগামী রোববার লিখিত অভিযোগ দিতে বলুন,ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published.