শেখ হাসিনার হাত ধরে দূর্বার বাংলাদেশ

প্রাইম ডেস্ক :

৩০ ডিসেম্বর বাংলাদেশের ইতিহাসে অবিস্মরণীয় দিন হিসেবে ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণাক্ষরে লিখা হয়ে থাকবে। এই দিনটিতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার জয় বাংলাদেশকে নিয়ে গিয়েছে এক অনন্য উচ্চতায়। টানা ৩য় বারের মতো প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়ে বাংলাদেশের গণতন্ত্রের ভীতকে সগৌরবে দাঁড় করিছেন বিশ্ব নেতৃত্বের কাছে। বাংলাদেশ এখন সারা বিশ্বের কাছে গণতন্ত্রের রোল মডেল হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে বিপুল ভোটে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হবার পর থেকেই সারা বিশ্ব থেকে ধেয়ে আসছে প্রশংসার বাণী। ভারত, নেপাল, ভুটান, আরব আমিরাত, সৌদি আরব, চীনসহ সারা বিশ্বের নেতৃবৃন্দ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বকে স্বাগত জানাচ্ছেন মাথানত সরূপ।
জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী এবং বাংলাদেশের সুবর্ণ জয়ন্তী এই বিজয়কে দিয়েছে নতুন মাত্রা। গত ১০ বছরের অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রায় ২০২০ সালের মুজিববর্ষ পালনের মাধ্যমে বাংলাদেশকে এক অন্য রূপে দেখবে সারা বিশ্ব। ১৯৯৬ সালে প্রথমবারের মতো প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়ে যে অমিমাংসীত কাজগুলো করতে পারেননি তার সবটাই পূরণ করেছেন গত ১০ বছরে । লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও বেশি সাফল্য অর্জনের জবাব দিয়েছে জনগণ তাদের ভোটের মাধ্যমে। ২০১৯ সালের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রধান লক্ষ্য দুর্নীতির বিরুদ্ধে সংগ্রাম। বাংলাদেশের যে অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রা, বাংলাদেশের যে অর্জন তার সবটাই ম্লান করে দিতে পারে দুর্নীতি। তাই তৃতীয় মেয়াদে শেখ হাসিনা দুর্নীতির বিরুদ্ধে যে যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন এটি সফল হলে বাংলাদশ হবে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ। এই বাংলাদেশ হবে এশিয়ার সবচেয়ে সমৃদ্ধশালী রাষ্ট্র। যে বাংলাদেশে অমর হয়ে থাকবেন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনা যেখানে তার বাবা অমর হয়ে আছেন।