বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২১
Shadow

চক্রান্ত করে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব বাদ দেয়া হয়েছে: আইজিপি

নিজস্ব প্রতিবেদক :

পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) একেএম শহীদুল হক বলেছেন, রোহিঙ্গরা মিয়ানমারের নাগরিক। অনেকটা চক্রান্ত করে এ রোহিঙ্গা মুসলিমদের ১৯৮২ সাল থেকে নাগরিকত্ব থেকে বাদ দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, বিপন্ন রোহিঙ্গাদের মানবিক কারণে সব সহযোগিতা দেয়া হবে। তবে রোহিঙ্গারা যেন দেশের ভেতর ছড়িয়ে না পড়ে সেজন্য দেশের বিভিন্ন স্থানে নজরদারি রাখা হয়েছে। সারা দেশে গোয়েন্দা নজরদারিও বাড়ানো হয়েছে।
শনিবার বিকালে গাজীপুরের কাপাসিয়ায় টোক নয়নবাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র উদ্বোধন করতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।
আইজিপি বলেন, এসব রোহিঙ্গা মুসলিম বিভিন্ন সময় নানাভাবে নির্যাতনের শিকার হয়ে আসছেন। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৫ আগস্ট থেকে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর যে নির্যাতন চালানো হচ্ছে, তা অত্যন্ত অমানবিক।
আইজিপি দেশের সাধারণ নাগরিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, ব্যক্তিগতভাবে আশ্রয় না দিয়ে রোহিঙ্গাদের নির্ধারিত ক্যাম্পে পাঠিয়ে দিন। রোহিঙ্গারা যেন শরণার্থী শিবির থেকে বের হয়ে না যান- সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।
উখিয়ায় ২ হাজার একর জমির ওপর তাদের জন্য আশ্রয় শিবির বানানো হচ্ছে এবং তাদের আইডি কার্ড দেয়া হবে বলে তিনি জানান।
তিনি আরও বলেন, আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গারা আমাদের দেশের নাগরিকদের সঙ্গে যেন মিশে না যায় এবং কোনো আইনশৃংখলা ভঙ্গ হওয়ার মতো কাজে জড়িয়ে না পড়ে সেদিকেও আমরা নজর রাখছি।
পরে শরীফ মোমতাজ উদ্দিন আহমেদ ডিগ্রি কলেজ মাঠে সুধী সমাবেশে গাজীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদের সভাপত্বিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সিমিন হোসেন রিমি। প্রধান বক্তা হিসেবে ছিলেন পুলিশ মহাপরিদর্শক একেএম শহীদুল হক। বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা রেঞ্জের পুলিশের ডিআইজি মোহা. শফিকুল ইসলাম, কাপাসিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট রেজাউর রহমান লস্কর মিঠু, অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান চৌধুরী প্রমুখ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.