সোমবার, জানুয়ারি ১৮
Shadow

গোধরা অগ্নিকাণ্ড: ১১ জনের দণ্ড কমে যাবজ্জীবন

প্রাইম আন্তর্জাতিক :

ভারতের গুজরাট রাজ্যের গোধরায় ২০০২ সালে সবরমতি এক্সপ্রেস ট্রেনে অগ্নিকাণ্ডের জেরে দাঙ্গা বাঁধিয়ে এক হাজার মুসলমানকে হত্যা করার দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ১১ মুসলমানের সাজা কমিয়েছে গুজরাট হাইকোর্ট। এদের সবাইকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। খবর এএফপির।

২০০২ সালে ২৭ ফেব্রুয়ারির  সবরমতি এক্সপ্রেসের এস-৬ কোচে অগ্নিকাণ্ডে ৫৯ জন হিন্দু যাত্রী নিহত হলে স্বাধীন ভারতের অন্যতম ভয়াবহ দাঙ্গার শিকার হয় সংখ্যালঘু মুসলিমরা।

গোধরার ঘটনার ৯ বছর পর ২০১১ সালের ১ মার্চ ৩১ জনকে দোষী সাব্যস্ত করেন বিশেষ আদালত। এ রায়ের বিরুদ্ধে পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য গুজরাটের হাইকোর্টে আপিল করেন দণ্ডিতরা।

আপিল শুনানি শেষে সরকারি আইনজীবী একনাথ আহুজা এএফপিকে বলেন, ১১ জনের মৃত্যুদণ্ড কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

তিনি বলেন, অন্য ২০ জনের বিরুদ্ধে বিশেষ আদাল ঘোষিত যাবজ্জীবন কারাদণ্ড বহাল রেখেছেন আদালত।

২০০২ সালে সবরমতি এক্সপ্রেস ট্রেনের অগ্নিকাণ্ডের পর উন্মত্ত হিন্দু জনতা প্রতিশোধপরায়ণ হয়ে গুজরাট রাজ্যজুড়ে শহর ও গ্রামগুলোতে মুসলমানদের বাড়িঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়।

গুজরাটের হিন্দুত্ববাদী সরকার ওই প্রতিশোধমূলক হামলাকে সমর্থন করেছিল বলে অভিযোগ রয়েছে। বিশেষ করে দাঙ্গায় আক্রান্তদের মধ্যে যারা বেঁচে ছিলেন তারা বলেছেন, যদি সময়মতো পুলিশ আসত তাহলে এ হামলা এড়ানো যেত।

দাঙ্গার সময় গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সহিংসতার বিষয়ে তিনি নীরব ভূমিকা পালন করেছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

তবে সুপ্রিমকোর্টের নির্দেশে অনুষ্ঠিত তদন্তে ২০১২ সালে নরেন্দ্র মোদিকে দাঙ্গায় জড়িত থাকার অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.