গফরগাঁওয়ে প্রবাসীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি :

ময়মনসিংহের গফরগাঁও পাকাটি গ্রামের পাকাটি বাজারে আলাল উদ্দিন (৩৮) নামের এক প্রবাসীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে একই গ্রামের হিরু মেম্বারের বিরুদ্ধে। গত ১৫ দিন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় রোববার রাতে তার মৃত্যু হয়েছে। পরে পুলিশ গতকাল সোমবার সকালে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।
এলাকাবাসী ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত ৫ মে সন্ধ্যায় ৬টার দিকে মৃত হযরত আলীর ছেলে পাকাটি গ্রামের আলাল উদ্দিন (৩৮) পাকাটি বাজারে নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বসা ছিল। এসময় কোন রকম কথা বার্তা না বলে হঠাৎ করেই দোকানে প্রবেশ করে বারবাড়িয়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড সদস্য মিজানুর রহমান হিরু মেম্বার। তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি এক পর্যায়ে হিরু মেম্বারের ছেলেরা ও ছোট ভাই হাসেম আলাল উদ্দিনকে মারধর করে। এক পর্যায়ে আলাল উদ্দিন জ্ঞান হারালে প্রথমে তাকে গফরগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লে´ে নিয়ে যায়। পরে তার অবস্থার অবনতি হলে আলাল উদ্দিনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে।
নিহতের বড় ভাই আব্দুল হামিদ বলেন, হিরু মেম্বার বিনা কারনে, বিনা দোষে আমার ভাইকে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে। আমি ভাই হত্যার বিচার চাই।
নিহতের স্ত্রী রাবেয়া (২৩) বলেন, যারা আমাকে বিধবা ও সন্তানকে এতিম করেছে, স্থানীয় প্রশাসন এবং গফরগাঁওয়ে এমপি’র কাছে হিরু মেম্বার ও তার বাহিনীসহ আমার স্বামী হত্যাকারী সকলের বিচার চাই।
এ ব্যাপারে অভিযোক্ত মিজানুর রহমান হিরু মেম্বারের মোটো ফোন বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য নেওয়া যায়নি। তবে একটি সূত্রের দাবী, সে পলাতক রয়েছে।
এ ব্যাপারে গফরগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আবদুল আহাদ খান বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।