ভারতকেও হারানো সম্ভব :সাকিব

প্রাইম খেলাধুলা  :

এই বিশ্বকাপ তাঁর। বিশ্বকাপ তাঁকে দুহাত ভরে দিচ্ছে। কি বোলিং কি ব্যাটিং যেখানেই সাকিব আল হাসানের হাত পড়ছে সোনা ফলছে। এই মুহূর্তে সবচেয়ে বেশি ৪৭৬ রান এবং বিশ্বকাপের সেরা বোলিং ফিগার তাঁর। যৌথভাবে সবচেয়ে বেশিবার ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছেন সাকিব।

এমন সাফল্যের গোপন রহস্যটা কী? সবকিছুর মূলে ফিটনেস। আইপিএলে ম্যাচ খেলার সুযোগ না পেয়ে ফিটনেসের ওপর জোর দিয়েছিলেন সাকিব। ওজন কমিয়ে ঝরঝরে হয়ে ফিট তো হয়েছেনই, সঙ্গে পেয়েছেন অফুরান আত্মবিশ্বাস। সোমবার আফগানদের উড়িয়ে দেওয়ার পর সাকিব বলে গেলেন, ‘শারীরিক ফিটনেস আমাকে মানসিকভাবেও শক্ত হতে অনেক সাহায্য করেছে। কঠিন পরিস্থিতি সামলাতে শারীরিক ফিটনেসটা দরকার। আমার মনে হয়, সে জন্যই আমি কঠিন পরিস্থিতিতে ভালো খেলতে পারছি।’

বাংলাদেশ আফগানদের বিপক্ষে আগে ব্যাট করে তুলেছিল ২৬২ রান। সাকিব মনে করেন রোজ বলের উইকেটে ২৪০-রানই জেতার মতো স্কোর,‘ এটা কিন্তু ৩০০-৩৫০ রান করার উইকেট নয়। আমাদের লক্ষ্য ছিল ৫০ ওভার ব্যাট করে অন্তত ২৪০ রান করা। আমরা তা থেকেও ২০-২২ রান বেশি করেছি।’

বাংলাদেশের সেমিফাইনালে যাওয়ার প্রথম শর্ত এখন ভারত ও পাকিস্তানের বিপক্ষে পরের দুটি ম্যাচেই জেতা। সাকিবের কাছে অসম্ভব মনে হচ্ছে না সেটিও, ‘ভারতের বিপক্ষে পরের ম্যাচটা আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। ওরা চ্যাম্পিয়ন হতেই এসেছে। ওদের হারাতে আমাদের অনেক ভালো খেলতে হবে। আমার বিশ্বাস, আমাদের সেই সামর্থ্য আছে।’

আফগানিস্তানকে হারানোর পর ৭ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের পাঁচ নম্বরে রয়েছে বাংলাদেশ। এক ম্যাচ কম খেলা ইংল্যান্ড ৮ পয়েন্ট নিয়ে চারে। তবে সাকিবের চোখে ইংল্যান্ডের চেয়ে সেমিফাইনালে যাওয়াটা বাংলাদেশের জন্যই সহজ, ‘ওদের তিন ম্যাচের তিনটিই জিততে হবে। আমাদের জিততে হবে দুই ম্যাচে দুটি। কাজটা কঠিন, তবে ভালো খেললে অসম্ভব নয়।’

বার্মিংহামে ভারতের বিপক্ষে নামার আগে সপ্তাহখানেকের মতো বিরতি পাচ্ছে বাংলাদেশ। ২ জুলাই বার্মিংহামে ভারতের মুখোমুখি হবে মাশরাফিরা। তার আগের এই লম্বা বিরতির প্রথম চার দিন ক্রিকেটারদের ছুটি। দলের কেউ কেউ লন্ডন বা ইংল্যান্ডেরই অন্য শহরে ঘুরতে যাবেন। কেউ যাবেন সংক্ষিপ্ত ইউরোপ ভ্রমণে। সাকিবের সপরিবার যাওয়ার কথা প্যারিসে।