মিথ্যাচার ও গুজব ছড়ানো বিএনপির নতুন রাজনৈতিক কৌশল, বলছেন বিশেষজ্ঞরা!

প্রাইম ডেস্ক :

রাজপথের রাজনীতি বাদ দিয়ে সরকারের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করতে প্রতিনিয়ত মিথ্যাচার করছে বিএনপি। আন্দোলন-সংগ্রামকে বাদ দিয়ে মিথ্যাচার, গুজব ছড়ানো ও সরকারবিরোধী উসকানি দেয়া এখন বিএনপির মূল রাজনীতিতে পরিণত হয়েছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

জনগণের কথা বলা বাদ দিয়ে বিএনপি শুধু নিজেদের অপ্রাপ্তির কথা প্রচার করছে বলেও মনে করছেন তারা। বিএনপির ক্রমাগত মিথ্যাচারে বিরক্তি প্রকাশ করে রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন অধ্যাপক বলেন, সরকারের ঘাড়ে দোষ চাপানো বিএনপির পুরনো অভ্যাস। রাজপথের আন্দোলন গড়তে ব্যর্থ দলটির নেতারা এখন সরকারের বিরুদ্ধে সঙ্গবদ্ধভাবে সাজানো মিথ্যাচার ছড়ানোর মিশনে নেমেছেন। সরকারের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের টার্গেট করে লন্ডনের প্রেসক্রিপশনে উদ্ভট, বানোয়াট ও কুরুচিপূর্ণ গুজব ছড়াচ্ছে দলটি।

তিনি আরো বলেন, বিএনপির আন্দোলন এখন মিথ্যা ছড়ানোতে সীমাবদ্ধ হয়ে পড়েছে। দলটির মেয়াদোত্তীর্ণ ও বয়স্ক নেতারা দলবেঁধে ‘স্বপ্নে দেখা বিষয়’ নিয়ে মিথ্যাচার করে জনমনে বিভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করছেন। দেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্র বানাতে এরা দিনরাত তৎপর রয়েছেন। সরকারের বিরুদ্ধে সাজানো এই মিথ্যাচারের জন্য তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত।

বিষয়টিকে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে রাজনৈতিক বিশ্লেষক সুভাস সিংহ রায় বলেন, দেশের উন্নয়ন দেখেন না মির্জা ফখরুলরা। তাদের ব্রেনওয়াশ করা হয়েছে পরিকল্পিত মিথ্যাচার প্রচার করার জন্য। চুরি, দুর্নীতি, মিথ্যাচারের কারণে আজকে তারা জনবিচ্ছিন্ন। এত অধঃপতনের পরও দলটির কিন্তু চরিত্র পাল্টায়নি।

তিনি আরো বলেন, বিএনপিকে সৎ পরামর্শ দিতে চাই। মিথ্যাচার, গুজব ছড়ানো বন্ধ করুন। মানুষকে বোকা বানানোর খেলা বন্ধ না করলে আগামীতে আপনাদের পাশে কেউ দাঁড়াবে না। উপরে থুথু ছিটালে সেই থুথু নিজের গায়েই পড়ে, এটা হয়তো বিএনপি নেতারা ভুলে গেছেন।