বিএনপির বিরুদ্ধে ‘বিশ্বাসঘাতকতা’র অভিযোগ বাম জোটের!

প্রাইম ডেস্ক :

গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বাম গণতান্ত্রিক জোটের ডাকা অর্ধদিবস হরতালে বিএনপি নৈতিক সমর্থন জানিয়ে কর্মসূচিতে সরাসরি উপস্থিত না থাকলেও কর্মী দিয়ে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছিলো। কিন্তু সে আশ্বাস না রাখার অভিযোগ তুলেছেন বাম গণতান্ত্রিক জোটের নেতারা।

তারা বলছেন, শুক্রবার (৫ জুলাই) বিএনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠক শেষে বাম জোটের ডাকা হরতালে গণমাধ্যমকে নিজেদের সমর্থনের কথা জানান বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। পরে বিএনপির তরফ থেকে জোটের নির্দিষ্ট কয়েকজন সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। তখন বিএনপির পক্ষ থেকে হরতালে সমর্থন দিয়ে কিছু কর্মী দেয়ার আশ্বাস দেয়া হয় বামজোটকে। কিন্তু সেই কথা রাখেনি দলটি।

এ প্রসঙ্গে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাম জোটের একজন নেতা বলেন, বিএনপিসহ বেশকিছু রাজনৈতিক দল বাম জোটের হরতালের আহ্বানে তাদের সমর্থন জানায়। তাদের মধ্যে আগ বাড়িয়ে বিএনপি কর্মী দিয়ে সহযোগিতা করতে চাইলে আমরা প্রাথমিকভাবে তা প্রত্যাখ্যান করেছিলাম। পরে হরতালকে আরও কঠোর করার প্রস্তাব দিয়ে কর্মী নিতে অনুরোধ করলে আমরা রাজি হই। মূলত বামের কর্মী সংখ্যার স্বল্পতার কারণেই এ প্রস্তাবে রাজি হই আমরা। কিন্তু বিশ্বাসঘাতকতা করেছে বিএনপি। হরতালের সমর্থনে কোনো কর্মীকে মাঠে পাঠায়নি দলটি।

তিনি আরও বলেন, যদিও এতে আমাদের বিশেষ কোনো ক্ষতি হয়নি। কেননা, আমরা তো গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধিতে প্রতিবাদ করতে হরতাল ডেকেছি, রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে নয়। বরং বিএনপির সম্বন্ধে আমাদের ধারণা আরও পাকাপোক্ত হলো।

প্রসঙ্গত, রোববার (৭ জুলাই) সকালে রাজধানীতে দলটির নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয় এলাকা, পুরানো পল্টন, মালিবাগ, কাকরাইল, গুলিস্তান, মতিঝিল এলাকায় বাম জোটের হরতালে সড়কে বিএনপির কোনো কর্মতৎপরতা দেখা যায়নি। দেখা মেলেনি দলটির কোনো নেতা-কর্মীদের।

অন্যদিকে ড. কামাল হোসেনের দল গণফোরাম, আ স ম আব্দুর রবের দল জেএসডি, মাহমুদুর রহমান মান্নার নাগরিক ঐক্য ও অলি আহমদ এর এলডিপিসহ দেশের বেশকিছু দল হরতালকে সমর্থন জানালেও এসব দলেরও হরতালের পক্ষে কোন মিছিল বা তাদের নেতাদের সড়কে দেখা যায়নি।