শনিবার, জানুয়ারি ২৩
Shadow

নারী বলেই হেরে গেছি

প্রাইম আন্তর্জাতিক :

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক ফার্স্ট লেডি ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন দাবি করেছেন, গত বছর নভেম্বরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে পরাজয়ের কারণ লিঙ্গ বৈষম্য। তিনি বলেন, সমাজে নারীদের অবমূল্যায়ন করা হয়। নারী বলেই ওই নির্বাচনে হেরে গেছেন তিনি। রয়টার্স গতকাল এ খবর দেয়। ‘হোয়াট হ্যাপেন্ড’ নামে স্মৃতিচারণমূলক তার নতুন বইয়ের প্রচারের উদ্দেশ্যে রবিবার ব্রিটেনের চেলটেনহাম সাহিত্য উৎসবে যোগ দেন হিলারি। ধরা হয়, ইংল্যান্ডের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে ১৯৪৯ সাল থেকে শুরু হওয়া এই সাহিত্য উৎসব বিশ্বের সবচেয়ে প্রাচীন। বিখ্যাত কবিদের কাব্যগ্রন্থ, রান্নাবিষয়ক বই ও জনপ্রিয় ব্যক্তিদের আত্মজীবনী স্থান পায় এই উৎসবে।হিলারি মনে করেন, পুরুষ সঙ্গীর তুলনায় নারীরা সমাজে দুই ধরনের চরিত্রে বিবেচিত হয়। এ অবস্থা থেকে বেরিয়ে এসে সমাজে পরিবর্তন আনতে তার সমর্থকদের সংগঠিত হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

বইয়ের ওপর আলোচনায় হিলারি বলেন, রাজনীতি থেকে লিঙ্গ বৈষম্যকে দূর করার একমাত্র উপায় হলো আরও বেশি করে নারীদের রাজনীতিতে আসা।নির্বাচনে পরাজয়ের পর মানসিকভাবে ভেঙে পড়ার কথা অকপটে স্বীকার করে হিলারি বলেন, ট্রাম্পের কাছে এই পরাজয় তাকে হতভম্ব করেছে। এ অবস্থায় বিছানা ছেড়ে ওঠা তার জন্য কঠিন ছিল। তবে পরিস্থিতি পরিবর্তনে চেষ্টা করেছেন তিনি। দীর্ঘ সময় ধরে হাঁটা, রহস্য উপন্যাস পড়া, প্রিয় কুকুরগুলোর সঙ্গে খেলা ও যোগ ব্যায়াম তাকে ওই যন্ত্রণাময় অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে সাহায্য করেছে।এ ছাড়া ট্রাম্পের অভিষেক অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়া না-দেওয়া নিয়ে দ্বিধায় ছিলেন; কিন্তু তার স্বামী বিল ক্লিনটন তাকে সেখানে যেতে সমর্থন করেছিলেন। তিনি বলেন, সবাই ভেঙে পড়ে। আপনি যদি ঘুরে দাঁড়ান ও চলতে থাকেন, তাহলে তাতে কিছুই যায় আসে না।উত্তর কোরিয়া নিয়ে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অবস্থান ও প্যারিস জলবায়ু চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বেরিয়ে যাওয়া নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন হিলারি। তিনি বলেন, ব্যক্তি হিসেবে আমি ঠিক আছি; কিন্তু আমেরিকান হিসেবে আমি উদ্বিগ্ন।প্রসঙ্গত, গত ৮ নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পের চেয়ে অনেক বেশি ভোট পাওয়া সত্ত্বেও ইলেকটোরাল কলেজের অংকে ট্রাম্পের কাছে অপ্রত্যাশিতভাবে হেরে যান ডেমোক্র্যাট-দলীয় প্রার্থী হিলারি। রিপাবলিকান ডোনাল্ড ট্রাম্প এ বছর ২০ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.