গফরগাঁওয়ে মাদ্রাসাছাত্রীকে এসিড নিক্ষেপ

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি :
ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে মিনহা (১৮) নামের একাদশ শ্রেণির এক ছাত্রীর মুখে এসিড নিক্ষেপের ঘটনা ঘটেছে। মাদ্রাসা যাওয়ার পথে রাস্তায় অজ্ঞাতনামা দুই মোটরসাইকেল আরোহী দুর্বৃত্ত তার মুখে এসিড নিক্ষেপ করে। এতে তার মুখের একাংশ, মুখের নীচের অংশ ও ডান হাতের একাংশ ঝলসে গেছে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল শনিবার সকালের দিকে উপজেলার পাগলা থানার তারাটিয়া গ্রামের গফরগাঁও-হোসেনপুর সড়কে এ ঘটনা ঘটে।
এসিডদগ্ধ মিনহার পরিবার ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার আনসারনগর গ্রামের সালাউদ্দিন খানের মেয়ে ও পাঁচবাগ সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার ফাজিল প্রথম বর্ষের ছাত্রী মিনহা অন্যান্য দিনের মতোই বাড়ি থেকে পায়ে হেঁটে মাদ্রাসায় যাচ্ছিল। সে গফরগাঁও-হোসেনপুর সড়কের তারাটিয়া গ্রামের বাঘের বাড়ির কাছে এলে একটি মোটরসাইকেলে করে দুই অজ্ঞাতনামা দুর্বৃত্ত তার সামনে এসে তার মুখে এসিড নিক্ষেপ করে পালিয়ে যায়। সে চিৎকার করেতে করতে সড়কের পাশে ছফির উদ্দিনের বাড়িতে গিয়ে আশ্রয় নেয়। এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে প্রথমে হোসেনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

মিনহার পিতা সালাউদ্দিন খাঁন জানান, জানা মতে তার পরিবারের লোকজনের সঙ্গে এবং তার মেয়ের সঙ্গে কারো কোন শত্রুতা নেই। পাঁচবাগ সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার পক্ষ থেকে বিষয়টি পাগলা থানার ওসিকে অবহিত করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে পাগলা থানার ওসি মো. শাহিনুজ্জাসান খান বলেন, ঘটনা শুনেছি। তবে এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কেউ অভিযোগ করেনি।