বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২১
Shadow

অচিরেই বিএনপির খুশিতে ভাটা পড়বে: কাদের

আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে বিএনপির সংলাপের পরের খুশি অচিরেই ভাটা পড়ে যাবে বলে মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের সাধরণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, সংলাপের পর বিএনপির নেতাদের মধ্যে খুশি খুশি ভাব, এই খুশি খুশি ভাব কয় দিন থাকবে? শেষ পর্যন্ত থাকবে তো? এই খুশির স্রোত বারে বারে আসে, বারে বারে ভাটা পড়ে। এই খুশির স্রোত অচিরেই ভাটা পড়ে যাবে।

মঙ্গলবার বিকেলে বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ আয়োজিতে এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। সদস্য নবায়ন কর্মসূচি উদ্বোধন উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বিএনপিকে নিয়ে বিচলিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপিকে নিয়ে বিচলিত হওয়ার কোন কারণ নেই। বিএনপি এখন একটা এলামেলো পার্টি। এখনো কোমড় সোজা করে দাঁড়াতে পারেনি।

সামনের সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন আওয়ামী লীগের জন্য সেমিফাইনাল খেলা আখ্যা দিয়ে সাধারণ সম্পাদক বলেন, আপনাদের মেসেজ দিয়ে দিচ্ছি, সামনের সিটি নির্বাচনের আমরা সেমি ফাইনাল খেলব, আর ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে ফাইনাল খেলা খেলে আবার বিএনপিকে পরাজিত করব। এই সকল নির্বাচনকে সামনে রেখে দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে কোন বিভেদ না রেখে ঐক্যবদ্ধভাবে দলের জন্য কাজ করে যাওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

তিনি বলেন, গত সিটি নির্বাচনে একমাত্র কুমিল্লা ছাড়া বাকি সবকটিতে আমরা জয়ী হয়েছি। এর মানে গ্রামের মানুষ আরেকবার শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় দেখতে চায়। আর এর জন্য আমাদের মধ্যে কোন বিভেদ থাকতে পারবে না। আপনাদের কাছে আর কিছু চাই না, আওয়ামী লীগের সকল নেতাকর্মীকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে শেখ হাসিনার পাশে দাঁড়াতে হবে।

সকল ষড়যন্ত্র আওয়ামী লীগের জোয়ারে ভেসে যাবে বলে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, সারা বাংলাদেশে আওয়ামী লীগের জোয়ার উঠেছে। এই জোয়ারে সকল ষড়যন্ত্র ভেসে যাবে।

মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের নতুন সদস্য সংগ্রহ ও সদস্য হালনাগাদ অনুষ্ঠানে দলের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমাদের এইবারের নতুন সদস্য সংগ্রগের ক্ষেত্রে প্রথম অগ্রাধিকার পাবে মহিলা ভোটাররা, তারপর অগ্রাদিকার পাবে তরুণ ভোটাররা, যারা এবারই প্রথস ভোটার হয়েছে।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, তবে আওয়ামী লীগের সদস্য সংগ্রহ করতে গিয়ে কোন সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ এবং সাম্প্রদায়িক শক্তি যেন সদস্য না হতে পারে। কোন সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ এবং সাম্প্রদায়িক শক্তি আওয়ামী লীগের সদস্য হতে পারবে না।

মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাতের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ, দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.