কর্মস্থলে ফেরার পথে এক দিনেই সড়কে ঝরল ২১ প্রাণ

প্রাইম ডেস্ক :

ঈদের ছুটি কাটিয়ে কর্মস্থলে ফিরতে শুরু করেছেন ঘর ফেরা মানুষগুলো। ফেরার পথে সড়কে মৃত্যুফাঁদের শিকার হয়ে না ফেরার দেশে চলে যাচ্ছে অনেক প্রাণ। এক দিনে সারাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন ২১ জন, আহত হয়েছেন অন্তত শতাধিক মানুষ। বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত ফেনী, সিরাজগঞ্জ, কিশোরগঞ্জসহ দেশের সাত জেলায় এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

ফরিদপুর :
ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলায় দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ২ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছে কমপক্ষে ২৫ জন। বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) সকাল ৯টার দিকে ফরিদপুর-ভাঙ্গা মহাসড়কের ভাঙ্গার নোয়াপাড়া ২নম্বর ব্রিজের কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- নগরকান্দার রওশন ফকির (৩৫) ও রাজবাড়ি সদরের মিরা কুন্ড (৬০)।

সুনামগঞ্জ :
সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার একটি অটোবাইক উল্টে গিয়ে এক তরুণ নিহত হয়েছে। নিহত তরুণের নাম টিটন কুমার দাস (১৭)। বুধবার (১৪ আগস্ট) রাত ১১টায় ধারারগাঁও এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত টিটন সুনামগঞ্জ পৌর শহরের ধোপাখালী এলাকার নিখিল কুমার দাসের ছেলে।

যশোর :
ট্রেনে কাটা পড়ে রিজিয়া বেগম (৬০) নামের এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) যশোর স্টেশনে ভোর ৪টা ২০ মিনিটে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তিনি টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতী উপজেলার ছাতিহাটি গ্রামের হাজী তোফাজ্জলের স্ত্রী।

ফেনী :
ফেনীর লেমুয়ায় পিকনিকের একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে আটজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ১৫ জন। বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) সকাল ৭টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। বাসটি পিকনিকের জন্য ঢাকা থেকে কক্সবাজারের উদ্দেশে যাচ্ছিল। সূত্রে জানা যায়, কক্সবাজারগামী বাসটি ফেনীর লেমুয়ায় পৌঁছুলে বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মহাসড়কে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই ৬ জন নিহত হয়েছেন।

ময়মনসিংহ :
ময়মনসিংহের ফুলপুর ও গফরগাঁওয়ের পাগলায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় শিশুসহ দুজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ৮ জন। পরে গুরুতর আহতদের ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

বুধবার (১৪ আগষ্ট) সকালে ফুলপুর উপজেলার ইমাদপুর বড় মসজিদ সংলগ্ন স্থানে এবং ওইদিন বিকেল পৌনে ৫টার দিকে পাগলার বামনখালী গ্রামে গফরগাঁও-টোক সড়কের অপর দুর্ঘটনাটি ঘটে। দুর্ঘটনায় নিহতেরা হলেন- আবুল হোসেন (৫২) ও রিমি আক্তার (৪)।

সিরাজগঞ্জ :
সিরাজগঞ্জের কামারখন্দের কোনাবাড়িতে চার বাসের সংঘর্ষে ৩ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১৫ জন। বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) দুপুর আড়াটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ শহীদ আলম দূর্ঘটনা বিষয়ে নিশ্চিত করেছেন।

কিশোরগঞ্জ :
জেলার কটিয়াদীতে মালবাহী একটি ট্রাকের সঙ্গে সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে চালকসহ সিএনজিচালিত অটোরিকশার তিন যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরো চারজন যাত্রী গুরুতর আহত হয়েছেন। তাদেরকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৫ আগষ্ট) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে কিশোরগঞ্জ-ভৈরব মহাসড়কে কটিয়াদী উপজেলার আচমিতা ইউনিয়ন পরিষদের সামনে এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনাটি ঘটে।

নিহতরা হলেন- সিএনজি চালক জামাল উদ্দিন (৩২), যাত্রী তোফাজ্জল হোসেন (২৭) ও উমর ফারুক (৪২)। এদের মধ্যে জামাল উদ্দিনের বাড়ি করিমগঞ্জ উপজেলার নিয়ামতপুর গ্রামে। বাকি দুজনের বাড়ি জেলার ইটনা উপজেলার বয়রা গ্রামে।