পাসপোর্ট সংকটে সারাদেশ

প্রাইম ডেস্ক :

স্বাভাবিকভাবে আবেদনের ২১ দিনের মধ্যে পাসপোর্ট সরবরাহের নিয়ম। কিন্তু এই পাসপোর্ট তিন মাসেও পাওয়া যাচ্ছে না বলে অভিযোগ রয়েছে আবেদনকারীদের। প্রতিদিন ঢাকা ও আঞ্চলিক অফিসগুলোতে হাজার হাজার আবেদনকারী ধরনা দিয়ে ফেরত যাচ্ছেন। সময় মতো পাসপোর্ট না পাওয়ায় সমস্যায় পড়েছেন বিদেশ গমনেচ্ছু, শিক্ষার্থী এবং রোগীরা।

ঢাকা অফিস থেকে যদিও কিছু কিছু পাসপোর্ট সরবরাহ করা হচ্ছে কিন্তু আঞ্চলিক অফিসগুলোতে এই সংকট চরমে। সেখানকার গ্রাহকরা আঞ্চলিক অফিস ও ঢাকা অফিসে যোগাযোগ করেও পাসপোর্ট না পাওয়ায় দুশ্চিন্তার মধ্যে রয়েছেন।

জানা যায়, ই-পাসপোর্টকে কেন্দ্র করে মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট (এমআরপি) বইয়ের সংকট সৃষ্টি হয়েছে। জুলাই মাসে ই-পাসপোর্ট চালু হওয়ার কথা ছিল। তাই এটাকে কেন্দ্র করে এমআরপি বই একটা সময় ধরে মজুত করা হয়েছিল। কিন্তু ই-পাসপোর্ট জুলাইয়ের পরিবর্তে সেপ্টেম্বরে উদ্বোধন করার সিদ্ধান্ত হয়েছিল। কিন্তু তা আর হয়নি। এখন শোনা যাচ্ছে আগামী ডিসেম্বর মাসে ই-পাসপোর্টের উদ্বোধন হতে পারে। এ কারণে আগস্ট মাস থেকে সারাদেশে পাসপোর্ট বইয়ের চরম সংকট দেখা দেয়।

পাসপোর্ট অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, পাসপোর্টের সংকট মোকাবেলার জন্য জরুরি ভিত্তিতে ২০ লাখ এমআরপি বই আমদানি করা হয়েছে। ইতিমধ্যে এসব বই ও আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র অধিদপ্তরের কাছে হস্তান্তরও হয়েছে।

অধিদপ্তর থেকে প্রতি মাসে গড়ে ৪ লাখ পাসপোর্ট ইস্যু হয়। সে হিসাব অনুযায়ী এই ২০ লাখ পাসপোর্ট বই দিয়ে আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি-মার্চ মাস পর্যন্ত চলার কথা। এর মধ্যে ই-পাসপোর্ট চালু না হলে আবার পাসপোর্টের সংকট দেখা দিতে পারে।

পাসপোর্ট অধিপ্তরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ডিসেম্বর মাসের মধ্যে ই-পাসপোর্ট চালু হলে তখন এমআরপি পাসপোর্ট বইয়ের উপর চাপ কমে আসবে। যার ফলে গ্রাহকদের পাসপোর্ট পেতে আর ভোগান্তিতে পড়তে হবে না।