শিক্ষার্থীদের পড়াশুনায় মনোযোগী হওয়ার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

নিজস্ব প্রতিবেদক :

রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বলেছেন, ছাত্র জীবনে ভালো রেজাল্ট করতে পারেনি। তবে ছয় দফাসহ দেশের প্রতিটি ছাত্র আন্দোলনের সময় তাদের দাবি দাওয়া আদায়ের ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছি। এ সময় তিনি শিক্ষার্থীদেরকে যে কোনো প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে মনোযোগ দিয়ে পড়াশুনা করার তাগিদ দেন। পাশাপাশি দেশপ্রেমে উজ্জীবিত হয়ে ভবিষ্যতে দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করার পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি শনিবার বিকেলে নিজ জন্মভূমি হাওড় উপজেলা মিঠামইনে আবদুল হামিদ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মিঠামইন-ইটনা ও অষ্টগ্রাম উপজেলার কৃতী শিক্ষার্থীদের সম্মাননা ও বৃত্তিপ্রদান অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

রাষ্ট্রপতি হাওড়ে ঝরেপড়া ও পিছিয়ে থাকা শিক্ষার্থীদের মানন্নোয়নে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে বলেন, যে কোনো নিয়োগ পরীক্ষায় অধিকাংশ ক্ষেত্রে প্রিলিতেই শিক্ষার্থীরা অকৃতকার্য হয়ে পড়ে। এ ক্ষেত্রে শহরের ছেলেমেয়েদের তুলনায় হাওড়াঞ্চলের শিক্ষার্থীরাই বেশি। এ জন্য তিনি শিক্ষার্থীদের পড়াশুনার ক্ষেত্রে শিক্ষক-অভিভাবকদেরকে আরও বেশি মনোযোগী দৃষ্টি রাখতে বলেছেন।

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ফাউন্ডেশনের সদস্য সচিব অধ্যক্ষ আবদুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন কিশোরগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য রাষ্ট্রপতির বড় ছেলে রেজওয়ান আহমেদ তৌফিক, রাষ্ট্রপতি কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়–য়া, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জিল্লুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পিপি শাহ আজিজুল হক প্রমুখ। এ সময় রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মোঃ জয়নাল আবেদীন, জেলা প্রশাসক মোঃ সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী, পুলিশ সুপার মোঃ মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম, জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বাচ্চুসহ বিভিন্ন সামরিক, বেসামরিক উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

ওইদিন বেলা ১২টায় রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ কামালপুরের নিজবাড়ি থেকে ব্যাটারীচালিত একটি অটোরিকশা করে নির্মাণাধীন সারা বছর চলাচল উপযোগী ইটনা-মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম সড়কের দুটি সেতুসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি প্রায় ১০ কিলোমিটার সড়ক অটোরিকশা দিয়ে ঘুরে দেখেন। পরে রাষ্ট্রপতি তাঁর নিজবাড়ির পেছন দিকের শান্তিরহাট ইসলামপুর-মিঠামইন বাজার সড়কের উন্নয়ন কাজও পরিদর্শন করেন। এরপর তিনি জেলা পরিষদ ডাকবাংলোয় বিশ্রামসহ গার্ড অব অনার গ্রহণ করেন। বিকেলে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ অডিটরিয়ামে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মিঠামইন-ইটনা ও অষ্টগ্রাম উপজেলার প্রায় ৮৫ জন শিক্ষার্থীকে সম্মাননা ও বৃত্তিপ্রদান এবং মিঠামইনের ১৫ জন ব্যক্তিকে সেলাই মেশিন প্রদান অনুষ্ঠানে যোগ দেন। সন্ধ্যায় তিনি মিঠামইনস্থ আবদুল হক ডিগ্রি কলেজে পিঠা উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পরিবেশনা দেখেন। ওইদিন রাষ্ট্রপতি কামালপুরে নিজবাড়িতে রাতযাপন করেন।