রবিবার, জানুয়ারি ১৭
Shadow

নানার কাঁচির আঘাতে প্রাণ গেল নাতির

নিজস্ব প্রতিবেদক :

রাজৈরে নানার কাঁচির আঘাতে প্রাণ গেল ৯ মাসের নাতি মরিয়মের। বুধবার সকাল ৮টার দিকে উপজেলার সাতবাড়িয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মরিয়ম সদর উপজেলার কুচিয়ামড়া গ্রামের জাহাঙ্গীর শেখের মেয়ে। তবে নিহতের বাবা জাহাঙ্গীর প্রায় দশ বছর ধরে শ্বশুর বাড়ি সাতবাড়িয়া গ্রামে বসবাস করে আসছিল। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মাদারীপুর মর্গে পাঠিয়েছে।

পুলিশ জানায়, বুধবার সকাল ৮টার দিকে পারিবারিক কলহের জের ধরে রাজৈর উপজেলার সাতবাড়িয়া গ্রামের করম ফরাজী (৬৫), স্ত্রী ফয়জুন বেগম (৬০) ও তার মেয়ে ৫ সন্তানের জননী জাপানী বেগম (৩০) তার কোলে থাকা ৯ মাসের শিশু কন্যা মরিয়মকে নিয়ে ত্রিমুখী ঝগড়ায় লিপ্ত হয়। এসময় নানার হাতে থাকা কাঁচিতে নাতি মরিয়মের মাথায় আঘাত লাগে। গুরুতর আহত অবস্থায় মরিয়মকে উদ্ধার করে রাজৈর হাসপাতালে নিয়ে গেলে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পর সে মারা যায়।

নিহতের মা জাপানী বেগমকে বিবাহ দেয়ার পর থেকেই প্রায় ১০ বছর ধরে বাবার বাড়ি থাকেন। নিহত শিশু কন্যা মরিয়মের বাবা জাহাঙ্গীর জানান, আমার স্ত্রী জাপানী বেগম ও শাশুড়ি ফয়জুন বেগম ঝগড়া করছিল। এসময় আমার শ্বশুর করম ফরাজী কৃষি মাঠ থেকে এসে এ ঝগড়ায় লিপ্ত হয় এবং ক্ষিপ্ত হয়ে হাতে থাকা কাঁচি দিয়ে আমার স্ত্রী জাপানীকে কোপ দেয়। কিন্তু সেই কোপ জাপানীর গায়ে না লেগে আমার শিশু কন্যা মরিয়মের মাথায় লাগে।

রাজৈর হাসপাতালের ডাঃ সুবাস সরকার জানান, আমরা ওই শিশুকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর প্রেরণ করার সময় সে মারা যায়। তার মাথায় বড় ধরনের আঘাত রয়েছে।

রাজৈর থানার ওসি মো. শাহজাহান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, এক শিশু কন্যার লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করেছি। বিষয়টি আইনী প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।