মাহবুবুর রহমানকে বিতর্কিত করতে নতুন কৌশলে বিএনপি, মিষ্টি বিতরণ!

নিজস্ব প্রতিবেদক :

রাজনীতি থেকে অবসর নিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য লে. জে. (অব.) মাহবুবুর রহমান। তিনি দলের সব ধরণের পদ থেকে অব্যাহতি দিয়ে হাইকমান্ডের কাছে পদত্যাগ পত্র পৌঁছে দিয়েছেন।শুধু মাহবুবুর রহমান নয়, সম্প্রতি বিএনপির একাধিক সিনিয়র নেতা পদত্যাগ করেছেন। সে তালিকা আরও দীর্ঘ হতে পারে বলেও জানা যাচ্ছে। পদত্যাগ পরবর্তী সময়ে মাহবুবুর রহমান তার এক প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, শুধু আমি নয়, বিএনপির অন্তত ১০০ জন পদত্যাগের সারিতে আছে।এমন তথ্য ও বিএনপি ও তারেক রহমানকে নিয়ে গণমাধ্যমে দলীয় নেতাকর্মীদের ক্ষোভ তুলে ধরায় মাহবুবুর রহমানকে বিতর্কিত করার কৌশলে নেমেছে বিএনপি। এর অংশ হিসেবে দিনাজপুর-২ (বিরল-বোচাগঞ্জ) এর সাবেক সাংসদ ও বিএনপি’র জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও লে. জে. (অবঃ) মাহবুবুর রহমানের পদত্যাগের সংবাদে খুশিতে তার নিজ এলাকা দিনাজপুরের বিরলে মিষ্টি বিতরণ করা হয়েছে।নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই আসনের একজন পদত্যাগমুখী নেতা বলেন, কেবল বিতর্কিত করতে কেন্দ্র থেকে আসা নির্দেশনার প্রেক্ষিতে মিষ্টি বিতরণ করা হয়েছে। এ নির্দেশনা যখন আসে তখন আমি সেখানে উপস্থিত ছিলাম। এ দিয়ে তারা এটি প্রমাণ করতে চায় যে, মাহবুবুর রহমানের পদত্যাগে তারা খুশি।সূত্র বলছে, শনিবার (০৯ নভেম্বর) সন্ধ্যায় বিএনপি নেতা-কর্মীদের এ মিষ্টি বিতরণের সংবাদে এলাকায় দারুণ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। বিএনপি’র নেতারা বলেন, লে. জে. (অবঃ) মাহবুবুর রহমানের পদত্যাগের কারণে শুধু দিনাজপুর-২ আসনে নয় পুরো জেলায় দলীয় কর্মকাণ্ড বেগবান হবে এবং দলের কমিটিগুলো স্বচ্ছ ও গঠনতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় গঠন সম্পন্ন করা সম্ভব হবে।পৌরশহরের অবস্থিত উপজেলা বিএনপি’র দলীয় কার্যালয় সংলগ্ন সড়কে মিষ্টি বিতরণের সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা বিএনপি’র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বাবুল হোসেন, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফিরোজা বেগম সোনা, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান মধু, উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিলনসহ আরও অনেক নেতা-কর্মীরা।