শুক্রবার, জানুয়ারি ১৫
Shadow

বাজিতে হেরে অক্ষয়কে বিয়ে করেছিলেন টুইঙ্কেল

প্রাইম ডেস্ক :

বলিউডের খিলাড়ি অক্ষয় কুমারকে সাত পাকে বাঁধতে পেরেছেন শুধুমাত্র টুইঙ্কেল খান্নাই। অথচ অক্ষয়কে জড়িয়ে অনেকেরই প্রেমের কথা শোনা যায়। তাদের মধ্যে ছিলেন রাভিনা ট্যান্ডন, শিল্পা শেঠী, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া প্রমুখ। এমনকি চিরসবুজ রেখার সঙ্গেও অক্ষয়ের প্রেম ছিল বলে গুঞ্জন রটেছিল। তাদের কারও প্রেমের সফল পরিণতি হয়নি। টুইঙ্কেলকে দেখেই নাকি প্রেমে পড়ে গিয়েছিলেন অক্ষয়। সময়ের স্রোতে টুইঙ্কেলও পড়ে যান এই খিলাড়ির প্রেমে।

প্রেম স্বাভাবিক হলেও অক্ষয়-টুইঙ্কেলের বিয়েটা ছিল ফিল্মি। ২০০০ সালে মুক্তি পায় টুইঙ্কেলের ছবি ‘মেলা’। আমিরের বিপরীতে করা ছবিটি নিয়ে ভীষণ আত্মবিশ্বাসী ছিলেন এ অভিনেত্রী। ছবিটি সফল হবে না বলে মত দেন অক্ষয়। বাজি ধরেন টুইঙ্কেল, যদি ছবিটি সুপার হিট না হয় তাহলে বিয়ে করবেন অক্ষয়কে। ক্যারিয়ারের শীর্ষ সময়ে বিয়ে করতে রাজি ছিলেন না টুইঙ্কেল, তিনি এক প্রকার নিশ্চিত ছিলেন বাজিতে জিতবেন। বাজিতে হেরে বসলেন রাজেশ খান্না তনয়া। বক্স অফিসকে হতাশ করল ‘মেলা’। পরের বছর অক্ষয়কে জীবনসাথী করে নিলেন টুইঙ্কেল। তাদের বিয়েটা হয় দুই ঘণ্টার প্রস্তুতিতে। মাত্র ৫০ জনের মতো অতিথি উপস্থিত ছিলেন সেখানে। অতিথিদের মধ্যে ছিলেন আমির খান, রাজনৈতিক ব্যক্তি অমর সিং, পরিচালক ধর্মেশ দর্শন প্রমুখ।

ফিল্মফেয়ার ম্যাগাজিনের ফটোশুটে টুইঙ্কেলকে দেখে প্রেমে পড়েন অক্ষয়। সে ছবিটি আজও তিনি যত্ন করে রেখেছেন। ‘ইন্টারন্যাশনাল খিলাড়ি’ ছবি করার সময় ঘনিষ্ঠ হন তারা। অক্ষয়ের অতীত রেকর্ডে সবাই ভেবেছিলেন এ প্রেম বেশিদিন টিকবে না। কিন্তু সবাইকে অবাক করে দিয়ে প্রেম গড়াল বিয়েতে, বিয়ের ১৮ বছর গড়িয়েছে। সংসারে আছে দুই সন্তান আরভ ও সিতারা। শুরুর দিকে অক্ষয়কে নিয়ে ভয় করতেন টুইঙ্কেল। কিন্তু যতই সময় গড়িয়েছে ততই মজবুত হয়েছে তাদের ভালোবাসা। বিয়ের পর অভিনয় ছেড়ে দেন টুইঙ্কেল, শুরু করেন ইন্টেরিয়র ডিজাইনিং। তার প্রতিটি পদক্ষেপে পাশে রয়েছেন অক্ষয় কুমার।