বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২৫
Shadow

মতলব উত্তরে একযোগে ৫০ কি.মি. বিদ্যুৎ উদ্বোধন করেন ত্রাণমন্ত্রী

 

সিপাহী আল-আমিন, মতলব (চাঁদপুর )

মতল বউত্তরে একসাথে ৫০ কিলোমিটার বিদ্যুৎ উদ্বোধনের মাধ্যমে ৪ হাজার পরিবারকে বিদ্যুৎ সংযোগের আওতায় আনা হয়েছে। এতে ব্যয় হয়েছে ৭ কোটি ৩৫ লক্ষ টাকা। এর মাধ্যমে এ পর্যন্ত মতলব উত্তরের ৯০ শতাংশ মানুষের দোরগোড়ায় বিদ্যুৎ সুবিধা পৌছানো হল।

দুর্যোগব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরীমায়া,বীরবিক্রম, এমপি বৃহস্পতিবার তাঁর নিজ সংসদীয় এলাকার মতলব উত্তরে উপস্থিত থেকে বিদ্যুতের নব নির্মিত এ দীর্ঘ লাইন উদ্বোধন করেন।

মোহনপুরে এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে চাঁদপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর জেনারেল ম্যানেজার আবু তাহের, উপজেলা চেয়ারম্যান মনজুর আহমেদ মঞ্জু, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এমএ কুদ্দুস, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আক্তার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এ সংযোগ লাইন চালুর মাধ্যমে মতলব উত্তরে লাইন পর্যায়ে সকল লাইনের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হল। বর্তমানে বিভিন্ন স্থানে বিচ্ছিন্ন ভাবে থাকা অবশিষ্ট গ্রাহকদের তালিকা করা হচ্ছে। অতি দ্রæত তাদের বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়ে উপজেলাকে শত ভাগ বিদ্যুতায়নের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় বিদ্যুৎ বিতরণ কর্র্তৃপক্ষ।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বলেন, ২০১৮ সালের মধ্যে সকলের ঘরে বিদ্যুৎ পৌছানোর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অঙ্গীকার বাস্তবায়ন করা হবে। তিনি বলেন বিদ্যুতায়নের ফলে মতলব উত্তরের চারপাশের নদীকে কেন্দ্র করে কল-কারখানা গড়ে উঠবে। এর ফলে গ্রামীণ কর্মসংস্থান বাড়বে, অর্থনীতি গতিশীল হবে। বিদ্যুতের সুবিধা কাজে লাগিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে মতলবের প্রতিষ্ঠিত শিল্প মালিকদের নিজ এলাকায় শিল্প কারখানা স্থাপনের অনুরোধ করেন মন্ত্রী। এর জন্য প্রয়োজনীয় ভ‚মি বন্দোবস্তের আশ্বাস দেন তিনি। ত্রাণ মন্ত্রী বলেন বিদ্যুতায়নের ফলে সবচেয়ে উপকৃত হবে শিক্ষার্থীরা। তাদের শিখন-ঘন্টা বেড়েযাবে।

বিদ্যুৎকে উৎপাদনশীলতায় কাজে লাগিয়ে নিজেদের আর্থিক অগ্রগতি সাধনের মাধ্যমে দেশের অর্থনীতি প্রসারের উপর মায়া চৌধুরী গুরুত্বারোপ করেন। বিদ্যুৎকে সকল উন্নয়নের চাবিকাঠি হিসেবে উল্লেখ করে এর অপচয় রোধ তথা ব্যবহারে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন মন্ত্রী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.