শুক্রবার, এপ্রিল ২৩
Shadow

গফরগাঁওয়ে ভাইকে বোনের কিডনি উপহার!

আ: আজিজ  :
সংসারের হাল ধরতে হতদরিদ্র পরিবারের আশার আলো রাজন। তিন ছেলে ও দুই মেয়ে নিয়ে টানাপোড়নের সংসারে একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি বাবা আব্দুল রশিদ। বাবার কষ্ট দেখে ছেলে রাজন ঠিক করে কিছু একটি করতে হবে। শেষ সম্ভল ভিটেমাটি বন্ধক রেখে পারি জমান সৌদিতে। ঘটনাটি ২০১৫ সালের। এ ঘটনার দুই বছর পর মরণ ব্যাধি রোগ নিয়ে বাড়ি ফিরে এলেন রাজন। গত দুই বছরে যা কামিয়েছিলেন সবই গিলে খেয়েছে বিকল হয়ে যাওয়া দুই কিডনি। এমন কষ্টের সংবাদে রাজন ও তার পরিবারের মাঝে নেমে আসে হতাশার আরেক অধ্যায়। হতাশ হয়ে পড়েন গফরগাঁও ইউনিয়নের পাঁচপাইর গ্রামের রাজনের বাবা রাইস মিলের কর্মচারী আবদুর রশিদ। সন্তানকে বাঁচাতে নিজের সহায় সম্ভল বিক্রি করেও মুক্তি মিলেনি। চিকিৎসকদের পরামর্শ রাজনকে বাঁচাতে হলে কিডনি প্রতিস্থাপন করতে হবে, না হলে রাজনকে বাঁচানো যাবে না। এমন সংবাদে রাজনের আত্বীয়-স্বজনরা হতাশায় ভেঙ্গে পড়লেও ভাইকে বাঁচাতে নিজের কিডনি উপহার দেন বোন লতিফা বেগম।
নিজের সুখ আর সংসারের কথা চিন্তা না করে একটি কিডনি ভাইকে দিয়ে ভাইয়ের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে এসেছে বোন লতিফা।

বোন বলেন,ভাই আমার সংসারের কথা চিন্তা করে বিদেশে গিয়েছিল আমার তার প্রতি সম্মান দেখিয়ে আমার একটা কিডনি ভাইকে উপহার দিবো। এদিকে কিডনি প্রতিস্থাপনে সরকারি নিয়ম অনুযায়ী জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয় ও গফরগাঁও থানা পুলিশ তদন্তপূর্বক সকল কার্যক্রম সম্পন্ন করলেও হতাশা কাটেনি রাজনের বাবা রশিদের।
বাবা আবদুর রশিদ জানান, আমার ছেলের জীবন বাঁচাতে আমার মেয়ে কিডনি দিতে সম্মত হলেও চিকিৎসা খরচ যোগাতে হিমশিম খাচ্ছে সে। প্রতি সপ্তাহে রাজনের ডায়ালাইসিস করতে খরচ হচ্ছে দশ হাজার টাকার মত, যা প্রায় সাত মাস যাবৎ করছেন। তিনি আরও বলেন, কিডনি প্রতিস্থাপন করতে অনেক টাকার প্রয়োজন, আমার বসতবাড়ি ছাড়া আর কোন জমিজমা নাই, যা বিক্রি করে সন্তানের চিকিৎসা করাবো, আমার সন্তানের জীবন বাঁচানোর জন্য সমাজের বিত্তবানদের কাছে আর্থিক সাহায্য চাই…. চার সন্তানের জনক রাজনের জীবন বাঁচাতে বিত্তবানরা রাজনের ব্যক্তিগত বিকাশ নাম্বার ০১৭১৯-৫০৪৭৪৯ সাহায্য পাঠাতে পারেন, তাছাড়া রাজনের ভাই মো. সুমন মিয়ার ব্যাংক এ্যাকাউন্টেও সাহায্য পাঠাতে পারেন। মো. সুমন মিয়া, সঞ্চয়ী হিসাব নং- ৩০৭৪, রূপালী ব্যাংক লি:, গফরগাঁও শাখা, ময়মনসিংহ। এছাড়াও রাজনের বাবা আবদুর রশিদের সাথে কথা বলতে ০১৯৮০-১০৬৩৭৪ এই নাম্বারে যোগাযোগ করতে পারবেন যে কেউ। রাজন বর্তমানে ঢাকায় শ্যামলীতে সিকেডি এ- ইউরোলজী হাসপাতালে অধ্যাপক ডা. মো. কামরুল ইসলামের তত্বাবধানে চিকিৎসাধীন আছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.