সোমবার, জানুয়ারি ১৮
Shadow

কম্বোডিয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে লালগালিচা সংবর্ধনা

প্রাইম ডেস্ক :

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী হুন সেনের আমন্ত্রণে তিন দিনের সরকারী সফরে কম্বোডিয়ায় পৌঁছেছেন। প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ভিভিআইপি ফ্লাইটটি রবিবার স্থানীয় সময় দুপুর সাড়ে বারোটায় নমপেন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়। বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে লালগালিচা সংবর্ধনা জানানো হয়। প্রধানমন্ত্রী বিমান থেকে নামলে কম্বোডিয়ান এক শিশু তাকে ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানায়। এ সময় নমপেনে বসবাসকারী বাংলাদেশীরা তাকে বাংলাদেশী পতাকা নেড়ে অভিবাদন জানায়।

এ সময় কম্বোডিয়ার নারীবিষয়কমন্ত্রী ইং কান্থা পাভি, পররাষ্ট্র ও আন্তর্জাতিক সহায়তাবিষয়ক আন্ডারসেক্রেটারি অব স্টেট ইতা সোফিয়া, বাংলাদেশে নিযুক্ত কম্বোডিয়ার অনাবাসিক রাষ্ট্রদূত পিচকুন পানহা এবং থাইল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও কম্বোডিয়ায় এ্যাক্রেডিটেড রাষ্ট্রদূত সাইদা মুনা তাসনিম বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভ্যর্থনা জানান। বিমানবন্দরে আনুষ্ঠানিকতা শেষে একটি মোটর শোভাযাত্রাসহকারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হোটেল সফিটেলে নিয়ে যাওয়া হয়। কম্বোডিয়া সফরকালে প্রধানমন্ত্রী এই হোটেলেই অবস্থান করবেন। প্রধানমন্ত্রীর সফর উপলক্ষে বিমানবন্দর থেকে নগরীর সড়কগুলো বাংলাদেশ ও কম্বোডিয়ার পতাকা ও দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর ছবি দিয়ে আকর্ষণীয় করে সাজানো হয়েছে।

বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নমপেনে কম্বোডিয়ার স্বাধীনতা স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। তিনি এ সময় কম্বোডিয়ার সাবেক রাজা নরোদম সিহানুকের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ সোমবার কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী হুন সেনের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক বৈঠক করবেন। এর আগে দুই নেতা একান্ত বৈঠক করবেন। সরকারী সূত্র জানায়, প্রধানমন্ত্রীর কম্বোডিয়া সফরে দুই দেশের মধ্যে এগারোটিরও বেশি ইনস্ট্রুমেন্ট, দুটি চুক্তি এবং নয়টি সমঝোতাস্মারক স্বাক্ষরিত হওয়ার কথা রয়েছে। এ সময় ঢাকা ও নমপেনের দুটি গুরুত্বপূর্ণ সড়ক দু’দেশের জাতির পিতার নামে নামকরণ ঘোষণা করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফরসঙ্গীর মধ্যে রয়েছেন বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানা, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি প্রকল্পের প্রধান সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ, পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক এবং প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম।

এর আগে রবিবার সকাল আটটা ৩৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমানের ফ্লাইটটি কম্বোডিয়ার উদ্দেশে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে। প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় জানাতে বিমানবন্দরে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, চীফ হুইপ আ স ম ফিরোজ এবং প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচটি ইমাম উপস্থিত ছিলেন। ৫ ডিসেম্বর মঙ্গলবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

কম্বোডিয়ার শহীদদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন ॥ বাসস জানায়, এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রবিবার এখানে স্বাধীনতা স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে কম্বোডিয়ার শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন।

প্রধানমন্ত্রী পুষ্পস্তবক অর্পণের পর শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধার নিদর্শন হিসেবে কিছু সময় নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন। প্রধানমন্ত্রীকে তিন বাহিনীর একটি সুসজ্জিত দল গার্ড অব অনার প্রদান করে এবং এ সময় বিউগলে করুণ সুর বেজে ওঠে।

১৯৫৩ সালে ফ্রান্সের কাছ থেকে স্বাধীনতা লাভের স্মারক হিসেবে ১৯৫৮ সালে কম্বোডিয়ার রাজধানী নমপেনে এই স্বাধীনতা স্মৃতিসৌধ নির্মিত হয়। এর নক্সা প্রণয়ন করেন কম্বোডিয়ার স্থপতি ভ্যান মলিভান।

পরে প্রধানমন্ত্রী কম্বোডিয়ার রাজা নরোদম সিহানুকের স্মরণে নির্মিত স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে প্রয়াত রাজার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। কম্বোডিয়ার সশস্ত্র বাহিনীর একটি দল প্রধানমন্ত্রীকে গার্ড অব অনার প্রদর্শন করে। এ সময় বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহেনা এবং প্রধানমন্ত্রীর অন্যান্য সফর সঙ্গী উপস্থিত ছিলেন।

শেখ হাসিনা এরপর তুল সেলং জেনোসাইড মিউজিয়াম পরিদর্শন করেন। নমপেনের কেন্দ্রস্থলে মিউজিয়ামটি অবস্থিত। শেখ রেহানার সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী মিউজিয়ামের বিভিন্ন সেকশন ঘুরে দেখেন। সেখানে তারা খেমার রুজ শাসনের নৃশংসতার সাক্ষ্য প্রত্যক্ষ করেন। মিউজিয়ামের পরিচালক চিহে ভিসথ তাদের বিভিন্ন বিষয়ে ব্রিফ করেন।

বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক মোঃ আবুল কালাম আজাদ, পররাষ্ট্র সচিব এম শহিদুল হক ও প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.