মঙ্গলবার, নভেম্বর ২৪
Shadow

ইংল্যান্ডকে বিদায় করে নেশন্স লিগের ফাইনালের দ্বারপ্রান্তে বেলজিয়াম

প্রাইম খেলাধুলা  :

ইংল্যান্ডের আশা শেষ করে দিয়ে আগামী বছরের নেশন্স লিগের ফাইনালে দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গেছে বেলজিয়াম। বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বরে থাকা দলটি কাল ঘরের মাঠ কিং পাওয়ার স্টেডিয়ামে ২-০ গোলে হারিয়েছে ইংলিশদের। এদিকে পোল্যান্ডকে ২-০ গোলে পরাজিত করে ফাইনালের আশা টিকিয়ে রেখেছে ইতালি।

নেশন্স লিগের আরেক ম্যাচে কোপেনহেগেনে গ্রুপ প্রতিদ্বন্দ্বী ডেনমার্ক ২-১ গোলে পরাজিত করেছে আইসল্যান্ডকে। ক্রিস্টিয়ান এরিকসেনের স্টপেজ টাইমের পেনাল্টিতে ড্যানিশদের জয় নিশ্চিত হয়। ১২ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষ দল হিসেবে বেলজিয়াম আগামী বছর অক্টোবরের ফাইনালের পথে অনেকটাই এগিয়ে গেছে। বিশ^ চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সও কাল বর্তমান চ্যাম্পিয়ন পর্তুগালকে ১-০ গোলে হারিয়ে ফাইনাল টিকিট পেয়েছে। বেলজিয়ামের থেকে দুই পয়েন্ট পিছিয়ে টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ডেনমার্ক।
ইউরি টিয়েলেমানস ও ড্রিয়েন মার্টিনসের গোলে গ্যারেথ সাউথগেটের ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বেলজিয়ামের জয় নিশ্চিত হয়। লিস্টার মিডফিল্ডার টিয়েলেমানসের ডিফ্লেকটেড শটে ১০ মিনিটে এগিয়ে গিয়েছির স্বাগতিক বেলজিয়াম। ২৩ মিনিটে ডেক্লান রাইস ডি বক্সের ঠিক বাইরে কেভিন ডি ব্রুইনাকে ফাউল করে বসেন। সেখান থেকে আদায় করা ফ্রি-কিকে ইংলিশ দেয়ালের ওপর দিয়ে নিখুঁত কার্লিং শটে জর্ডান পিকফোর্ডকে কোন সুযোগই দেননি মার্টিনস।
ম্যাচ শেষে বেলজিয়ান কোচ রবার্তো মার্টিনেজ বলেছেন, ‘দুই গোলে এগিয়ে থেকে আমরা সবসময়ই ম্যাচ নিয়ন্ত্রনে রেখেছিলাম। কখনও কখনও এগিয়ে থাকার পরেও একটু ভুলের কারনে ম্যাচ হাত থেকে ছিটকে যায়। কিন্তু কাল গোলপোস্টে দারুন খেলেছে থিবাট কুর্তোয়া।’
টানা দ্বিতীয় পরাজয়ে ইংল্যান্ড গ্রুপ টেবিলের তৃতীয় স্থানে নেমে গেছে। বেলজিয়ামের থেকে তাদের পয়েন্টের ব্যবধান বেড়ে দাঁড়িয়েছে পাঁচ। হাতে রয়েছে মাত্র এক ম্যাচ। ইংলিশ বস সাউথগেট বলেছেন, ‘আমরা পরাজয় একদমই পছন্দ করিনা। কিন্তু আজকের ম্যাচের সব কৃতিত্ব অবশ্যই বেলজিয়ামকে দিতে হয়। পুরো ম্যাচেই তারা দারুন কিছু সুযোগ তৈরী করেছে এবং একইসাথে নিজেদের রক্ষাও করেছে।’
গ্রুপের দ্বিতীয় ম্যাচে ডেনমার্কের জয়ের অর্থ হচ্ছে বুধবার ডেনসদের আতিথ্য দেবার ম্যাচটিতে অন্তত এক পয়েন্ট অর্জন করতে হবে বেলজিয়ামকে। তাহলেই ফাইনাল ফোর-এর পথ নিশ্চিত হবে।
কোপেনহেগেনে আইসল্যান্ড ৮৫ মিনিটে সমতা ফেরালেও শেষ রক্ষা করতে পারেনি। সপ্তাহের মাঝামাঝিতে প্লে-অফে হাঙ্গেরির কাছে ২-১ গোলে পরাচিত হয়ে ইউরো ২০২০ থেকে ছিটকে গেছে আইসল্যান্ড। সেই ম্যাচটি থেকে মূলত বেরিয়ে আসতে পারেনি পুরো দল। ১২ মিনিটে পেনাল্টি থেকে ডেনমার্ককে এগিয়ে দেন এরিকসেন। ৮৫ মিনিটে ভিডার ওরান কারটানসন আইসল্যান্ডের হয়ে সমতা ফেরান। কিন্তু ইনজুরি টাইমের তৃতীয় মিনিটে এরিকসেনের আরেকটি স্পট কিকে ডেনমার্কের জয় নিশ্চিত হয়। ডি বক্সেওর ভিতর ২১ বছর বয়সী ডিফেন্ডার হার্ডার মাগনুসানের হ্যান্ডবলে ড্যানিশরা পেনাল্টি আদায় করে নেয়।
করোনাভাইরাসের থাবায় বিপর্যস্ত ইতালি অবশ্য মাঠের লড়াইয়ে নিজেদের দারুনভাবেই এগিয়ে রেখেছিল। কোচ রবার্তো মানচিনিসহ বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় কালকের ম্যাচে মাঠে ছিলেন না। কিন্তু পোল্যান্ডক ২-০ গোলে পরাজিত করতে আজ্জুরিদের বাকি দলটির খুব একটা সমস্যা হয়নি। এই জয়ে নেদারল্যান্ডের কাছ থেকে এ-লিগের এক নম্বর গ্রুপের শীর্ষস্থানটি ছিনিয়ে নিয়েছে ইতালি। পাঁচ ম্যাচে তাদের সংগ্রহ এখন ৯। এক পয়েন্ট পিছিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে ডাচরা। গতকাল দিনের শুরুতে তারা বসনিয়া এন্ড হার্জেগোভেনিয়াকে ৩-১ গোলে পরাজিত করেছে। বুধবার বসনিয়াকে হারাতে পারলেই আগামী বছরের ফাইনাল ফোর নিশ্চিত হবে ইতালির।
চেলসি মিডফিল্ডার জর্জিনহো ২৭ মিনিটে স্পট কিক থেকে সফরকারী ইতালিকে এগিয়ে দেন। আন্দ্রে বেলোত্তিকে ফাউলের অপরাধে পোলিশ মিডফিল্ডার গ্রিজর্জ ক্রিচোওয়াইকের বিপক্ষে পেনাল্টি আদায় করে নেয় ইতালি। ৭৭ মিনিটে দ্বিতীয় হলুদ কার্ডের কারনে বদলী মিডফিল্ডার জাচেক গোরালিস্কি মাঠত্যাগে বাধ্য হলে ১০ জনের দলে পরিণত হয় পোল্যান্ড। সেই সুযোগে ৮৩ মিনিটে ডোমেনিকো বেরার্ডি ইতালির হয়ে জয়সূচক গোলটি করেন।
ম্যাচ শেষে সহকারী কোচ আলবেরিকো ইভানি বলেছেন, ‘এটাই আমাদের সংষ্কৃতি। কঠিন মুহূর্তে ইতালিয়ানরা তাদের সেরাটা দিতে সবসময়ই প্রস্তুত থাকে। একইসাথে আরো বেশী সংঘবদ্ধ হয়ে উঠে।’
জর্জিনিও উইজনালডামের দুই গোলে বসনিয়াকে হারিয়ে কোচ ফ্র্যাংক ডি বোয়ারকে প্রথম জয় উপহার দিয়েছে নেদারল্যান্ড। এ্যামাস্টারডামের ইয়োহান ক্রুইফ এরিনাতে ম্যাচের ৬ মিনিটেই লিভারপুল মিডফিল্ডার উইজনালডাম নেদারল্যান্ডকে এগিয়ে দেন। ১৩ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুন করেন উইজনালডাম। ৫৫ মিনিটে মেমফিস ডিপে তাদের নতুন কোচ ডি বোয়ারকে প্রথম জয় উপহার দেন। এর মাধ্যমে তিন ড্র ও এক পরাজয়ের পর পঞ্চম ম্যাচে এসে জয়ের মুখ দেখলেন ডি বোয়ার।
গ্রুপের শেষ ম্যাচ খেলতে বুধবার পোল্যান্ড সফরে যাবে নেদারল্যান্ড। বসনিয়ার সাথে ইতালি যদি জিতে যায় তবে পোলিশদের হারালেও ফাইনালে যেতে ব্যর্থ হবে ডাচরা।