বুধবার, মার্চ ৩
Shadow

এক ছাদে অনেক সেবা : ভোগান্তি ও হয়রানি কমছে বিনিয়োগে

প্রাইম ডেস্ক :
সরকারী দফতরে দফতরে না ঘুরে একই ছাদের নিচে সব সেবা একসঙ্গে পেতে দীর্ঘদিন ধরেই দাবি জানিয়ে আসছিলেন ব্যবসায়ীরা। ভোগান্তি ও হয়রানি থেকে মুক্ত হতে ব্যবসায়ীদের দাবির মুখে অনলাইনে ওয়ান স্টপ সার্ভিসে সেবা দিতে শুরু করেছে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা)। বিডার অনলাইনে নতুন করে যোগ হলো আরও ১৭টি সেবা। এসব সেবা দিতে বৃহস্পতিবার সরকারী চারটি সংস্থার সঙ্গে চুক্তি করেছে বিডা। বর্তমানে ১১টি সংস্থার মাধ্যমে মোট ৪১টি সেবা দিয়ে আসছে বিডা। নতুন করে ১৭টি সেবা যুক্ত হওয়ায় এখন থেকে মোট ৫৮টি সেবা দেবে ১৫টি সংস্থা। শুধু সেবা গ্রহণ নয়, টাকা পরিশোধের সুযোগও দিচ্ছে বিডা। অনলাইনে মনিটরিংয়ের কারণে এখন ফাইল দফতর বা টেবিলে আটকে থাকার সুযোগ নেই। সহজে বিনিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করতে পারবেন বিনিয়োগকারীরা। জানা গেছে, বিশ্বব্যাংকের সহজে ব্যবসা সূচকে বাংলাদেশকে ১৬৮তম অবস্থান থেকে দুই অঙ্কের নিচে নামাতে কাজ চলছে। চলতি বছরের এপ্রিলের মধ্যে ট্রেড লাইসেন্সের মাধ্যমে ব্যবসা শুরু, ভবন ও অবকাঠামো নির্মাণে অনুমোদন, জমির নিবন্ধনের মতো বিষয়ে নানামুখী সংস্কার কার্যক্রম শেষ হবে। আগামী অক্টোবরে প্রকাশ হতে যাওয়া বিশ্বব্যাংকের সহজে ব্যবসা সূচকে সার্বিকভাবে এবার ১৯০ দেশের মধ্যে অন্তত দুই অঙ্কে (৯৯তম) পৌঁছাবে বলে সরকার আশা করছে। মূলত ব্যবসা শুরুর অনুমোদন, ভবন নির্মাণের অনুমতি, বিদ্যুত সংযোগ, সম্পত্তি নিবন্ধন, ঋণপ্রাপ্তি, ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের সুরক্ষা, কর প্রদান, বৈদেশিক বাণিজ্য চুক্তির বাস্তবায়ন এবং দেউলিয়া হওয়া ব্যবসার উন্নয়ন সহজীকরণ এই ১০টি মানদণ্ডের ওপর ভিত্তি করে ব্যবসা সহজীকরণ সূচক তৈরি করে বিশ্বব্যাংক। ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স কর্পোরেশনের (আইএফসি) তথ্য অনুযায়ী, বিদ্যুত সংযোগ পাওয়ার দিক থেকে ১৮৯টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১৮৮, সম্পত্তি নিবন্ধনের ক্ষেত্রে ১৮৮তম, বৈদেশিক বাণিজ্যের ক্ষেত্রে ১৪০তম, নির্মাণকাজের অনুমতির ক্ষেত্রে ১৪৪তম, ঋণ পাওয়ার ক্ষেত্রে ১৩১তম।
জানা গেছে, বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করতেই বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ, বাংলাদেশ রফতানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল (বেপজা), বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা), বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) পৃথকভাবে সেবা দিচ্ছে। এর মধ্যে ওয়ান স্টপ সার্ভিসের অংশ হিসেবে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক সেবা দিচ্ছে বিডা। ওয়ান স্টপ সার্ভিসের মাধ্যমে একজন বিনিয়োগকারী পৃথিবীর যে কোন প্রান্ত থেকে অনলাইনে আবেদন করতে পারছেন। দিন-রাত যে কোন সময় অনলাইনে আবেদন করছেন বিনিয়োগকারীরা। ব্যবসার ধরন অনুযায়ী, উদ্যোক্তার কী কী সেবা দরকার তা চলে যাচ্ছে সংশ্লিষ্ট সেবাদানকারী সংস্থায়। নির্দিষ্ট দিনের মধ্যেই সংস্থাকে ওই সেবা দিতে হবে এমন বাধ্যবাধকতা রয়েছে বিডার। দেশী-বিদেশী বিনিয়োগকারীদের সব ধরনের সেবা অনলাইনে দেয়ার লক্ষ্যে ২০১৮ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর বিজনেস অটোমেশন লিমিটেডের সঙ্গে যুক্তি করে বিডা। এরই ধারাবাহিকতায় গত বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি অনলাইনভিত্তিক ওয়ানস্টপ সার্ভিস পোর্টালের কার্যক্রম চালু করা হয়। বিডার প্রত্যাশা, এ ওয়ানস্টপ সার্ভিস পোর্টালের মাধ্যমে ব্যবসা শুরুর জন্য দরকারি ১৫৪টি সেবা খুব সহজেই পাওয়া সম্ভব হবে, যা ব্যবসা সহজীকরণে বড় ভূমিকা রাখবে।
এ লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন বোর্ড (বিডা) কার্যালয়ে ৪টি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সমঝোতা চুক্তি সই হয়েছে। এর আওতায় আসা প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতর, নিবন্ধন অধিদফতর, ঢাকা পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন কর্তৃপক্ষ ও বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন্স কোম্পানি লিমিটেড- বিটিসিএল। এ সময় জানানো হয় এ সংস্থাগুলো ১৭টি সেবা নিশ্চিত করবে।
এ সময় বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান বলেন, যেহেতু দেশের জিডিপির ৮০ ভাগের বেশি আসে বেসরকারী খাত থেকে; তাই তাদের বিনিয়োগকে সহজ করতে সরকারী সব সেবা নিশ্চিত করতে সরকারের সব পর্যায়ের কর্মকর্তাদের আরও আন্তরিক হওয়া দরকার। সেবা সঠিক সময়ে দেয়া হচ্ছে কিনা তা নিশ্চিত করতে নজরদারি বাড়াতে হবে। তিনি জানান, বিডার অনলাইন ওয়ানস্টপ সার্ভিস পোর্টালের মাধ্যমে দেয়া সেবার মধ্যে সময় মতো দেয়া হয়েছে ৪৯ ভাগ, আর ৫১ ভাগ ক্ষেত্রে সময় মতো সহযোগিতা করতে পারেনি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। বর্তমানে ১১টি সংস্থার মাধ্যমে মোট ৪১টি সেবা দিয়ে আসছে বিডা। নতুন করে ১৭টি সেবা যুক্ত হওয়ায় এখন থেকে মোট ৫৮টি সেবা দেবে ১৬টি সংস্থা।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, উন্নত বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে ৩৫ সংস্থার অংশীদারিত্বের মাধ্যমে ১৫৪টি সেবা প্রদানের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে বিডা। নতুন করে সমঝোতা স্মারক সইয়ের মাধ্যমে যেসব সেবা প্রদান করা হবে সেগুলো হলো- অগ্নিনিরাপত্তা লাইসেন্স অনুমোদনও নবায়ন, বহুতল ভবনের অনাপত্তি সনদপত্র প্রদান, ভূমি ক্রয় দলিল, ইজারা চুক্তিনামা রেজিস্ট্রেশন, বায়না দলিল, ভূমি সংক্রান্ত আমমোক্তারনামা নিবন্ধন, নিবন্ধিত দলিলের নকল সরবরাহ, শিল্প প্রতিষ্ঠানে পানিসংযোগ, বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানে পানিসংযোগ, শিল্প প্রতিষ্ঠানে পয়ঃসংযোগ, বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানে পয়ঃসংযোগ, প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে গভীর নলকূপ স্থাপনের অনুমতি প্রদান, ল্যান্ড/ইন্টারনেট প্রটোকল (আইপি) টেলিফোনসংযোগ/সুবিধা প্রদান, উচ্চ গতির ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট, ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক (ভিপিএন) সংযোগপ্রদান, ডটবিডি এবং বাংলা ডোমেইন নেম রেজিস্ট্রেশন।
কমিটি পেল ওয়ান স্টপ সার্ভিস ॥ বিনিয়োগকারীদের সব ধরনের সেবার সমন্বয় করতে ওয়ান স্টপ সার্ভিস কমিটি করেছে সরকার। এর প্রধান করা হয়েছে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালকে। সম্প্রতি ২১ সদস্যবিশিষ্ট এ কমিটি গঠনের আদেশ জারি করেছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়। আদেশে বলা হয়, ওয়ান স্টপ সার্ভিস আইন-২০১৮ অনুযায়ী এই কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির সদস্য সচিব করা হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক-১ কে। কমিটির সদস্য হয়েছেন শিল্পমন্ত্রী, বাণিজ্যমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারী শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গবর্নর, এনবিআর চেয়ারম্যান, বাণিজ্য সচিব। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব, পরিবেশ বন ও জলবায়ু সচিব, বিদ্যুত সচিব, বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান, বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান, বাহাটেপাকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, বেপজার নির্বাহী চেয়ারম্যান, বিসিক চেয়ারম্যান, এফবিসিসিআই প্রেসিডেন্ট, ডিসিসিআই প্রেসিডেন্ট ও এমসিসিআই প্রেসিডেন্টকে কমিটিতে সদস্য হিসেবে রাখা হয়েছে। এ ছাড়া কমিটি চাইলে সংশ্লিষ্ট যে কোন ব্যক্তিকে সদস্যের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত (কো-অপ্ট) করতে পারবে বলে জানানো হয়েছে। এ কমিটি কেন্দ্রীয় ওয়ান স্টপ সার্ভিস কর্তৃপক্ষকে প্রয়োজনীয় সহায়তা, নির্দেশনা ও পরামর্শ দেয়াসহ বিভিন্ন কর্মকাণ্ড চালাবে।