শুক্রবার, এপ্রিল ২৩
Shadow

ময়মনসিংহের সড়ক সংস্কারে ১৬ কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক  :

দেশের অষ্টম বিভাগীয় শহরের রাস্তা-ঘাটের তেমন উন্নয়ন হয়নি। অতিবৃষ্টি এবং দীর্ঘদিন যাবত সংস্কার না করায় নগরীর সড়ক ও জনপথ বিভাগের সড়কগুলোয় খানাখন্দ সৃষ্টি হয়েছে। অধিকাংশ সড়ক জনগনের চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সড়ক মন্ত্রণালয় ইতিমধ্যেই সাড়ে ১২ কিলোমিটার সড়ক শক্তিশালী করে পুন:নির্মাণে প্রায় ১৬ কোটি টাকার প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে বলে জানিয়েছেন ময়মনসিংহ সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ মাসুদ খান। এরমধ্যে শহরের ৬টি সড়ক এবং ৩টি আংশিক সড়ক।
ময়মনসিংহ পৌর সভার মেয়র ইকরামুল হক টিটু বলেন, চলতি বছর অতি বৃষ্টিপাতের ফলে রাস্তায় জলাবদ্ধতায় বিটুমিনস উঠে গিয়ে রাস্তাগুলো বেশী ক্ষতি হয়েছে। ইউজিআইআইপি-৩ প্রজক্টের অধীনে ৩২ কোটি ৫৭ লাখ টাকা ব্যয়ে শহরের ১৮টি সড়কের প্রায় ২০ কিলোমিটার সড়ক পুন:নির্মাণকাজ চলমান। এ ছাড়াও শহরের আরো ৫০টি সড়ক উন্নয়ন করা হবে। পৌর সভার অধীন ক্ষতিগ্রস্থ রাস্তা গুলো আগামী তিন মাসের মধ্যে সংস্কার করে জনগনের চলাচল উপযোগী করা হবে। বিশাল এই পৌরসভার ২২৬ কিঃ মিটার রাস্তার মধ্যে এখনো ৩২ কিলো মিটার কাচা রাস্তা, বিটুমিনস, আরসিসি ও এইচবিবি রাস্তা রয়েছে ১৯৫ কিলোমিটার।

অপর দিকে সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ মাসুদ খান বলেন, পৌর সভার ড্রেনেজ ব্যবস্থা ভাল না থাকায় অতিবৃষ্টিতে এবং জলাবদ্ধতায় সড়কের বিটুমিনস উঠে গিয়ে ক্ষতি হয়েছে।
দেশের বৃহৎ ও প্রাচীনতম ময়মনসিংহ পৌরসভাটি দেশের অষ্টম বিভাগীয় শহর, ইতিমধ্যে এই পৌরসভাটি সদ্য নিকারে সভায় সিটি করপোরেশন হিসেবে উন্নীত করার প্রস্তাব  চাওয়া হয়েছে। ২১ দশমিক ৭৩ বর্গ কিলোমিটারের দেড় লাখেরও বেশী ভোটার অধ্যুষিত পৌরসভার আওতাধীন ২২৬ কিলো মিটার সড়ক রয়েছে। তন্মধ্যে সড়ক ও জনপথ বিভাগের ২৮ কিলো মিটারের মধ্যে অধিকাংশ সড়ক ভাঙ্গাচোরা ও খানাখন্দের ফলে নগরবাসীর চলাচল ও বসবাস দুর্বিসহ হয়ে উঠেছে। পৌর শহরের গাঙ্গিনারপাড়, কেবি ইসমাইল রোড, চরপাড়া-ভাটিকাশর পাটগুদাম ব্রীজমোড় সড়ক, কেওয়াটখালী, জেসি গুহ রোড, স্টেশন রোড, নতুন বাজার রোডসহ প্রায় সবগুলো রাস্তায়,ছোট বড় গর্ত আর খানাখন্দ হয়ে পড়েছে। এ সকল রাস্তায় যানবাহন, রিক্সা, ব্যাটারী চালিত ইজিবাইক, মোটর সাইকেল তো দুরের কথা পায়ে হেটেও চলা কঠিন হয়ে পড়েছে। অনেক সময় ইজিবাইক ও রিক্সায় চলাচল করতে গিয়ে উল্টে পড়ে গিয়ে যাত্রী, স্কুলগামী শিশু ও নারীরা মারাত্বকভাবে আহত হচ্ছে। স্কুলগামী শিশু কিশোর নিয়ে চলাচলে মায়েরা আতংকগ্রস্থ অবস্থায় ঝুকির মধ্যেই চলাচল করতে বাধ্য হচ্ছে।
ময়মনসিংহ জেলা নাগরিক আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার নূরুল আমীন কালাম বলেন, বিভাগের চার জেলা ছাড়াও কিশোরগঞ্জ, সুনামগঞ্জ ও টাঙ্গাইলের লোকজন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডেলিভাড়ী রোগীসহ অন্যান্য জটিল রোগী নিয়ে আসার পথে সড়ক ভাঙ্গাচোরার কারনে দুর্ভোগে পোহাতে হয়। সিটি করপোরেশনে উন্নীত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হলেও অবকাঠামো উন্নয়নে তেমন কোন লক্ষণ দেখা যায়নি। জেলা ছাড়াও কিশোরগঞ্জ, সুনামগঞ্জ ও টাঙ্গাইলের লোকজন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডেলিভারী রোগীসহ অন্যান্য জটিল রোগী নিয়ে আসার পথে সড়ক ভাঙ্গাচোরার কারনে দুর্ভোগে পোহাতে হয়। সিটি করপোরেশনে উন্নীত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হলেও অবকাঠামো উন্নয়নে তেমন কোন লক্ষণ দেখা যায়নি ।