রবিবার, ফেব্রুয়ারি ২৮
Shadow

প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে পুরস্কার নিলেন মেয়েরা

নিজস্ব প্রতিবেদক  :

বাংলাদেশে ক্রিকেটের উত্থানে বিশ্বের সব থেকে বেশি জনপ্রিয় খেলা ফুটবল এখন কিছুটা কোনঠাসা। তবে গ্রাম-গঞ্জে এখনও ফুটবল ম্যাচ আয়োজন হলে হাজার হাজার মানুষ মাঠের পাশে দাঁড়িয়ে যায় খেলা দেখে। এতেই প্রমাণ হয় ফুটবল আছে তার নিজস্ব জায়গাতেই। মামুনুল-এমিলিরা না পারলেও গত বছরে দেশকে শিরোপা জিতিয়েছে মেয়েরা।

গত ২৪ ডিসেম্বর কমলাপুরস্থ বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ‘সাফ অনুর্ধ্ব- ১৫ নারী চ্যাম্পিয়নশিপে’ অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশের মেয়েরা। সেই কিশোরী ফুটবলারদের বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) গণভবনে সংবর্ধনা দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর সংবর্ধনা পেয়ে উচ্ছ্বাসিত লাল সবুজের ফুটবলা কন্যারা। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘আজ আমি খুবই আনন্দিত। কারণ আমাদের মেয়েরা সাফে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। তারা ভারতকে দুই দুইবার হারিয়েছে, এটা মোটেও সহজ কথা নয়। এটা নিঃসন্দেহে দারুণ একটি অর্জন।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু এবং আমার দাদা, দাদার ভাইও ফুটবল খেলতেন। আমার ভাই শেখ কামাল দেশের অন্যতম সেরা ক্লাব আবাহনী প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।’

খেলাধুলার পাশাপাশি মেয়েদের শিক্ষার প্রতি নজর দেয়ার পরামর্শ দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘তোমরা খেলাধুলাও করবে, সঙ্গে পড়ালেখাতেও মনযোগ দিবে।’

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘যতদিন বাচ্চারা খেলাধুলার সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকবে, ততদিন তাদের শরীর ভাল থাকবে, চিন্তা ভাবনা ভাল হবে। তারা বিপথে পথে যাবে না, মন তত বড় হবে।’

বক্তব্যের এক পর্যায়ে শেখ হাসিনা জানতে চান টুর্নামেন্টে কে বেশি গোল করেছে। এ সময় বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ গোলদাতা তহুরা দাঁড়িয়ে যায়। তখন করতালির মাধ্যমে তাকে অভিনন্দন জানানো হয়।

এ সময় সাফ অনুর্ধ্ব-১৫ নারী ফুটবলে শিরোপাজয়ী মেয়েদের হাতে উপহার তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী। প্রত্যেককে ১ লাখ টাকার চেক প্রদান করেন তিনি।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ফুটবলকে সহায়তা করার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ জানান বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি কাজী সালাহউদ্দিন। তিনি বলেন, ‘আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ জানাচ্ছি, ফুটবলকে সহায়তা করুন। আমি নিশ্চয়তা দিচ্ছি ভবিষ্যতে ছেলে-মেয়েরা আরও সাফল্য বয়ে আনবে।’

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে উচ্ছ্বসিত বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫’র অধিনায়ক মারিয়া মান্দা। তিনি জানান, ‘আমরা আর কী বলবো, প্রধানমন্ত্রীর কাছে যেতে পেরে আমরা দারুণ আনন্দিত। আমরা তাকে ধন্যবাদ জানাই। তার প্রেরণায় আমরা সামনে আরও এগিয়ে যাব।’

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, সালমান এফ রহমান, যুব ও ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয় এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের নির্বাহী কমিটির সদস্যরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।