শনিবার, জানুয়ারি ২৩
Shadow

পানিতে দূষণ: চার হাজার পানির জার ধ্বংস

নিজস্ব প্রতিবেদক  :

অনুমোদন না নিয়ে বা সঠিকভাবে মান নিয়ন্ত্রণ না করে জারের পানি বিক্রি বন্ধে রাজধানীর পল্টন ও মতিঝিল এলাকায় অভিযান চালায় সরকারের মান নিয়ন্ত্রক সংস্থা-বিএসটিআই।
সোমবার (২২ জানুয়ারি) মানহীন ও অনুমোদনহীন সাড়ে চার হাজার পানির জার ধ্বংস করেছে বিএসটিআই।

রাজধানীর পল্টন, মতিঝিলসহ কয়েকটি এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১২টি প্রতিষ্ঠানের খাবার পানির জার ধ্বংস করা হয়। এ সময় স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর পানি উৎপাদন ও বিক্রির অপরাধে পানি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে ১ লাখ ৩৩ হাজার টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমাণ আদালত। বিএসটিআইয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এ সময় একটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা করা ছাড়াও দুই এলাকায় ১৫টি পানিবাহী ভ্যান আটক করেন বিএসটিআইর কর্মকর্তারা। পরে কোনো অভিযোগ না পাওয়ায় তিনটি প্রতিষ্ঠানের গাড়ি ছেড়ে দেয়া হয়। বিএসটিআইয়ের অনুমোদন থাকা এ তিনটি প্রতিষ্ঠানের পানিতে কোনো সমস্যা পায়নি ভ্রাম্যমাণ আদালত।

  বিএসটিআইর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজমা সিদ্দিকা বেগমের নেতৃত্বে অভিযানে অংশ নেন নিয়ন্ত্রক সংস্থার পরিচালক মো. ইসহাক আলী, সহকারী পরিচালক আবু সাঈদ, তালাত মাহমুদ, আরাফাত সরকার, মো. রিয়াজ উদ্দিনসহ কর্মকর্তারা। তাদের সঙ্গে ছিলেন আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের সদস্যরা।

যে ১২টি প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালানো হয় তার মধ্যে ১০টিরই বৈধ অনুমতি নেই বলে সাংবাদিকদের জানান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজমা সিদ্দিকা বেগম। আর অন্য দুটি প্রতিষ্ঠান নিয়ম মেনে পানি বাজারজাত করেনি।

মৌ ড্রিংকিং ওয়াটার, মীম ফ্রেশ ড্রিংকিং ওয়াটার, এভারেস্ট ড্রিংকস অ্যান্ড ডেইরি প্রোডাক্টস লিমিটেড, উইনার ফ্রেশ ড্রিংকিং ওয়াটার, সেনসিবল বেভারেজ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, ফিনকোয়া ওয়াটার কোম্পানি, আরিফা এগ্রো প্রাইভেট লিমিটেড, ওয়ান ওএকে ফুড অ্যান্ড বেভারেজ, দিঘি পিওর ড্রিংকিং ওয়াটার, আল-হেরা এন্টারপ্রাইজ, নোয়াখালী ফুড অ্যান্ড বেভারেজকে জরিমানা করা হয়। অপরাধীরা তাৎক্ষণিকভাবে জরিমানার সব অর্থ পরিশোধ করেন।