মঙ্গলবার, জানুয়ারি ১৯
Shadow

মধ্যপ্রাচ্যে ডলার পাচার করেছে খালেদা জিয়ার পরিবার :মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক  :

বাংলাদেশ থেকে হাজার হাজার কোটি মার্কিন ডলার খালেদা জিয়ার পরিবার সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যে পাচার করেছে বলে অভিযোগ করেছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক।
আজ বুধবার দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার লক্ষ্যারচর ইউনিয়নে মরহুম মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেন বাঙ্গালী স্কুল অ্যান্ড কলেজের উদ্ধোধন উপলক্ষ্যে আয়োজিত সমাবেশে এ অভিযোগ করেন মন্ত্রী।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোজ্জামেল হক বলেন,  ‘বাংলাদেশ থেকে হাজার হাজার কোটি ডলার খালেদা জিয়ার পরিবার সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যে পাচার করেছেন। আজকে সৌদি আরবে খালেদা জিয়ার পরিবারের নামে মার্কেটসহ নানা স্থাপনা রয়েছে। এটা আমাদের কথা নয়, বিদেশি পত্র-পত্রিকার কথা। পাচার করা এই টাকা ফিরিয়ে এনে দেশের উন্নয়নে ব্যয় করা হবে। বছরের প্রথম দিন ছাত্রদের হাতে বই তুলে দিয়েছেন একমাত্র শেখ হাসিনা। পৃথিবীর ইতিহাসে তা নজিরবিহীন ঘটনা।’
মন্ত্রী আরও বলেন, ১৯৯৬ সালে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এসে স্বাস্থ্য সেবা  গ্রামীণ জনপদের মানুষদের দোরগোড়ায় পৌছে দেয়ার জন্য কমিউনিটি ক্লিনিক চালু করেন। কিন্তু ২০০১ সালে খালেদা জিয়া ক্ষমতায় এসে কমিউনিটি ক্লিনিক বন্ধ করে দেন। বর্তমান সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বরাদ্দ বাড়িয়েছে। আগামীতে মুক্তিযোদ্ধাদের  পাঁচটি ভাতা দেওয়া হবে।
আজকের সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মরহুম মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেন এবং  ‘বাঙ্গালী ট্রাস্টি বোর্ডে’-এর চেয়ারম্যান ও লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রেজাউল করিম সেলিম।
সাবেক ছাত্রনেতা হায়দার আলীর সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য দেন- মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) আশেক উল্লাহ রফিক, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তাফা, কক্সবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খান বাহাদুর মোস্তাক আহমদ চৌধুরী, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাফর আলম, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, পেকুয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম, ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক শওকত বাঙালি, ‘আমরা মুক্তিযোদ্ধা সংগ্রাম পরিষদ’ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক সুরজিত দত্ত সৈকত, কাকারা ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শওকত ওসমানসহ প্রমুখ।
সমাবেশ শেষে  মোজাম্মেল হক মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেন বাঙ্গালী স্কুল অ্যান্ড কলেজ উদ্ধোধন করেন।