বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২৮
Shadow

দুবাই থেকে রোমের উদ্দেশে প্রধানম

প্রাইম ডেস্ক :

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ইতালীর রাজধানী রোমের উদ্দেশে যাত্রা করেছেন। এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে (ইকে-৫৮৩) প্রধানমন্ত্রী তার সফর সঙ্গীদের নিয়ে রবিবার সকাল ১০টা ১০ মিনিটে ঢাকা থেকে রওনা হয়ে স্থানীয় সময় দুপুর ১টা ২৩ মিনিটে দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান। বিমান বন্দরে তাকে অভ্যর্থনা জানান সংযুক্ত আরব আমিরাতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ ইমরান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিমানবন্দরে দুই ঘণ্টা ৭ মিনিট যাত্রা বিরতি করেন। পরে স্থানীয় সময় বিকাল সাড়ে ৩টায় (বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৫টা) প্রধানমন্ত্রী একই এয়ারলাইন্সের অন্য একটি ফ্লাইটে রোমের উদ্দেশে রওনা হন।

প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী ফ্লাইটটি স্থানীয় সময় সন্ধ্যা পৌণে ৭টায় (বাংলাদেশ সময় রাত ১২টা) রোমের লিয়োনার্দো দ্যা ভিঞ্চি-ফিউমিচিনো আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে অবতরণ করবে বলে আশা করা হচ্ছে। সেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আনুষ্ঠানিক অভ্যর্থনা জানাবেন ইতালিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আব্দুস সোবহান শিকদার ও ইন্টারন্যাশনাল ফান্ড ফর এগ্রিকালচারাল ডেভেলপমেন্ট (ইফাদ)’র সহ-সভাপতি ক্লডিয়া রিচার্ড। এছাড়া ইতলি প্রবাসী বাংলাদেশি এবং ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে ইতিমধ্যে রোমে আসা আওয়ামী লীগের বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মীও বিমান বন্দরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানাতে উপস্থিত থাকবেন।

ইন্টারন্যাশনাল ফান্ড ফর এগ্রিকালচারাল ডেভেলপমেন্ট (ইফাদ)’র প্রেসিডেন্ট গিলবার্ট এফ হুনগবো’র আমন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পরিচালনা পর্ষদের ৪১তম বার্ষিক অধিবেশনে যোগদান করবেন। ১৩ ফেব্রুয়ারি সকালে প্রধানমন্ত্রী এ অধিবেশনে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন। একই দিন স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় শেখ হাসিনা রোমের পারকো দেই প্রিনসিপি গ্র্যান্ড হোটেল অ্যান্ড এসপিএ প্রবাসী বাংলাদেশিদের এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন।

এছাড়া পোপ ফ্রান্সিসের আমন্ত্রণে শেখ হাসিনা হলি সি (ভ্যাটিক্যান সিটি) সফর করবেন। সেখানে তিনি পোপ ফ্রান্সিসের সঙ্গে বৈঠক করবেন। তিনি সেখানে সেক্রেটারি স্টেট অব ভ্যাটিক্যান সিটি কার্ডিনাল পেইটরো পারোলাইনের সঙ্গে বৈঠক করবেন। ১৫ ফেব্রুয়ারি সকালে প্রধানমন্ত্রীর দেশে ফেরার কথা রয়েছে। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা এই সফরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে রয়েছেন।