বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২১
Shadow

বিশ্বের মানচিত্রে শান্তির পতাকা হাতে রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা

প্রাইম ডেস্ক :

রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে মানবতার যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তা বিশ্ববাসীর কাছে অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। রোহিঙ্গা ইস্যু প্রমাণ করেছে বিশ্বশান্তির একমাত্র নেতা রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাতে নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের পালকি পার্টি সেন্টারে মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক সমাবেশে বক্তারা এসব কথা বলেন।

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যুক্তরাষ্ট্র সফর উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচির সমর্থনে এই সমাবেশের আয়োজন করা হয়।
নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকারিয়া চৌধুরীর সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান। সমাবেশে তিনি বলেন, রাষ্ট্রনায়ক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শান্তিবাদী দর্শন, চেতনা আর মানবতাবাদী পদক্ষেপ সারা বিশ্বে নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। বিশ্বব্যাপী শরণার্থী সমস্যা সমাধানের আলোকবর্তিকা হিসেবে উদ্ভাসিত হয়েছেন তিনি। শান্তিতে নোবেল জয়ীদের ভূমিকা যখন প্রশ্নবিদ্ধ তখন বিশ্বের মানচিত্রে শান্তির পতাকা হাতে রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা।
সমাবেশে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক ও এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের চেয়ারম্যান নিজাম চৌধুরী বলেন, মানুষের জীবনমানের উন্নয়ন এবং আর্ত-পীড়িতদের মধ্যে স্বস্তি সঞ্চারে যে দক্ষতাপূর্ণ নেতৃত্ব প্রদর্শন করে চলেছেন শেখ হাসিনা, তার যথাযথ মূল্যায়ন করা হলে শান্তিতে শেখ হাসিনারই নোবেল পুরস্কার প্রাপ্য।
সভাপতির বক্তব্যে নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) জাকারিয়া চৌধুরী বলেন, জাতিসংঘের এবারের অধিবেশনে মধ্যমণি থাকবেন শেখ হাসিনা। সবাই তার বিচক্ষণতাপূর্ণ নেতৃত্বের বিবরণ জানতে আগ্রহী। এসব বিবেচনায় আমাদেরকে সোচ্চার থাকতে হবে শেখ হাসিনার প্রতিটি কর্মসূচিকে ব্যাপক সাফল্যমণ্ডিত করার জন্য।
সমাবেশে অন্যান্য নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সংসদ সদস্য নাসিমা ফেরদৌস, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মাহবুবুর রহমান, সৈয়দ বসারত আলী, লুৎফুল করিম, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন দেওয়ান, প্রচার সম্পাদক হাজী এনাম, মুক্তিযোদ্ধাবিষয়ক সম্পাদক মোজাহিদুল ইসলাম, সমাজকল্যাণ সম্পাদক ফরিদ আলম, উপদেষ্টা মাসুদুল হাসান, দপ্তর সম্পাদক মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় নেতা সাখাওয়াত বিশ্বাস, যুক্তরাষ্ট মহিলা আওয়ামী লীহের সভানেত্রী মমতাজ শাহনাজ প্রমুখ। সমাবেশের সঞ্চালক ছিলেন নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক নূরে আলম বাবু।
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ঘোষণা অনুযায়ী ১৭ সেপ্টেম্বর বিকেলে শেখ হাসিনাকে জন এফ. কেনেডি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ‘অভ্যর্থনা’ জানাবে সংগঠনটি। ১৯ সেপ্টেম্বর টাইমস স্কয়ারে দেওয়া হবে ‘নাগরিক সংবর্ধনা’। এছাড়া ২১ সেপ্টেম্বর বিকেলে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে শেখ হাসিনার ভাষণ দেওয়ার সময় জাতিসংঘের সামনে ‘শান্তি সমাবেশ কর্মসূচি’ ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.