Author: dainikprime

বিশ্বে চা উৎপাদনে নবম বাংলাদেশ

বিশ্বে চা উৎপাদনে নবম বাংলাদেশ

প্রাইম ডেস্ক : বাংলাদেশের জন্য শুধু নয়, চামোদীদের জন্যও সুসংবাদ রয়েছে, চা উৎপাদনে বিশ্বে এখন নবম স্থানে বাংলাদেশ। উৎপাদন ক্ষেত্রে আবারও ঘুরে দাঁড়িয়েছে চা চাষ। একটানা কয়েক বছর ধরেই দশম অবস্থানে ছিল বাংলাদেশ। বিশ শতকের শেষে চা উৎপাদনে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল একাদশ স্থানে। আর ১৯৮৯ সালে ছিল দ্বাদশ স্থানে। বিদায়ী বছরে সারাদেশের ১৬৬টি বাগানের উৎপাদনের হিসাবে দেখা যায় উৎপাদন হয়েছে আট কোটি ২১ লাখ কেজি চা। এ হিসাবে চার হাজার ১০৫ কোটি কাপ চা (প্রতি কাপ ২ গ্রাম) হয়েছে দেশে। ২০১৭ সালে উৎপাদন হয়েছিল সাত কোটি ৮৯ লাখ কেজি। চা উৎপাদনে সর্বোচ্চ রেকর্ড হয় ২০১৬ সালে সাড়ে আট কোটি কেজি। এই সময় চা চাষে পুরোপুরি অনুকূল আবহাওয়া ছিল। এবার প্রতিকূল পরিস্থিতির মধ্যেও উৎপাদন প্রত্যাশার চেয়ে ভাল হয়েছে। চা বোর্ড উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছিল এবার সাত কোটি ২৩ লাখ কেজি। বছর শেষে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে উৎপাদন ৯৭ লা
সম্প্রীতির দেশ হিসেবে বিশ্বে পরিচিতি পেয়েছে বাংলাদেশ

সম্প্রীতির দেশ হিসেবে বিশ্বে পরিচিতি পেয়েছে বাংলাদেশ

প্রাইম ডেস্ক : খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অসাম্প্রদায়িক চেতনা ও বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কারণেই বাংলাদেশ সম্প্রীতির দেশ হিসেবে বিশ্বে পরিচিতি পেয়েছে। শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) নওগাঁ জেলার নিয়ামতপুরে মডেল মসজিদ নির্মাণকাজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, এ দেশে ধর্ম যার যার, উৎসব সবার। প্রতিটি উৎসবেই সব ধর্মের মানুষ অংশ নিয়ে মেতে ওঠে। মসজিদের নির্মাণকাজের উদ্বোধন করেন জেলার পোরশা জামিয়া আরাবিয়া মাদ্রাসার পরিচালক আলহাজ শরিফুদ্দিন শাহ চৌধুরী। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন নিয়ামতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়া মারিয়া পেরেরা। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপজেলা চেয়ারম্যান ফরিদ উদ্দীন, স্থানীয় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এনামুল হক প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
১০ কোটি নাগরিকের এনআইডি ভেরিফায়েড : পলক

১০ কোটি নাগরিকের এনআইডি ভেরিফায়েড : পলক

প্রাইম ডেস্ক : দেশের ১০ কোটি নাগরিকের পরিচয়পত্র (আইডি) যাচাই-বাছাইয়ের পর ভেরিফায়েড বা যাচাইকৃত অবস্থায় আছে। আর সেসব আইডির তালিকা তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের কাছে আছে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। রবিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বিসিসির মিলনায়তনে জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) যাচাইয়ে ‘পরিচয় ডট গভ ডট বিডি’ পোর্টালের সঙ্গে ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেডের (ইবিএল) এক চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমনটাই জানিয়েছেন প্রতিমন্ত্রী। অনুষ্ঠানে আইসিটি বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের পাশাপাশি ইবিএল-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও আলী রেজা ইফতেখারসহ ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এ চুক্তির মাধ্যমে বেসরকারি খাতের ব্যাংক হিসেবে প্রথম পোর্টালটির সঙ্গে যুক্ত হল ইবিএল। চুক্তির ফলে ইবিএল একটি নির্দিষ্ট আইডি ও
রোহিঙ্গা ব্যয় নিয়ে গুজবঃ যে পথে ব্যয় ৭২ হাজার কোটি টাকা

রোহিঙ্গা ব্যয় নিয়ে গুজবঃ যে পথে ব্যয় ৭২ হাজার কোটি টাকা

প্রাইম ডেস্ক : বিশ্বের ছোট একটি দেশ হলো বাংলাদেশ। ছোট্ট এই দেশটিতে বসবাস করছে প্রায় ১৭ কোটি মানুষ। প্রায় দেড় লাখ বর্গ কিলোমিটারের এই দেশটিতে এতো মানুষ থাকার কারণে সবারই নাভিশ্বাস অবস্থা। এরই মধ্যে নতুন করে এই দেশে যোগ হয়েছে মিয়ানমার থেকে জাতিগত নিধনের শিকার পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা। কক্সবাজারে অবস্থান নেওয়া দুই বছরে রোহিঙ্গাদের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় ১১ লাখ। গত দুইবছরে এই রোহিঙ্গাদের পেছনে সরকারের ব্যয় হয়েছে ৭২ হাজার কোটি টাকা। যা একটি নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি। এছাড়াও প্রতিমাসে তাদের পেছনে আরো ব্যয় হচ্ছে আড়াই হাজার কোটি টাকারও বেশি। তবে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে একটি বিশেষ মহল উদ্দেশ্যমূলকভাবে সরকারের ৭২ হাজার কোটি টাকা ব্যয়কে অযৌক্তিক প্রমাণ করার চেষ্টায় লিপ্ত। তবে প্রত্যেকেরেই জানা উচিৎ সকল ক্ষতির হিসাব টাকা দিয়ে করা যায় না। ১১‘ লাখ রোহিঙ্গা এই দেশে আসার পর তারা পাহাড় কেট
এমবিবিএস পরীক্ষাতেও প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে তৎপর আইনশৃঙ্খলা বাহিনী!

এমবিবিএস পরীক্ষাতেও প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে তৎপর আইনশৃঙ্খলা বাহিনী!

প্রাইম ডেস্ক : যেকোন পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস সংক্রান্ত অপতৎপরতা রুখে দিতে কঠোর অবস্থান নিয়ে সরকার। বিগত সময়ের সফলতা নিয়ে এবার ২০১৯-২০২০ সালের এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষাতেও প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে মাঠে নেমেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। যদিও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর নজরদারির কারণে প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের সদস্যরা অনেকেই গ্রেফতার হয়েছেন। অনেকেই আবার নিজেদের প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্র থেকে গুটিয়ে নিয়েছেন। তবুও ষড়যন্ত্রকারীরা মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে যেন নতুন করে মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে না পারে সেজন্য মাঠ পর্যায়ে তৎপরতা অব্যাহত রেখেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা বলছেন, প্রশ্ন ফাঁসের মতো ভয়াবহ সামাজিক ব্যাধি দূর করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। যার ফলে প্রশ্নপত্র ফাঁস নামক অভিশাপ থেকে মুক্তি পাচ্ছে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা ও শিক্ষার্থীরা। এখন প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ে যারা কেবল গুজ
মহাসড়কে টোল ব্যবস্থা

মহাসড়কে টোল ব্যবস্থা

বাংলাদেশের বিভিন্ন সড়ক-মহাসড়কে টোল নেয়ার কোন ধরনের ব্যবস্থাপনা আগে ছিল না। কিছু দিন আগে প্রধানমন্ত্রীর এক সিদ্ধান্তে তেমন প্রস্তাবনা গৃহীত হলে তা কার্যক্রমের আওতায় আসার অপেক্ষায়। সড়ক ও জনপথ অধিদফতর সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে তিনটি মহাসড়কে টোল আদায় করা হচ্ছে। এই তিন মহাসড়কের দৈর্ঘ্য অনুযায়ী টোলের হারেরও রকমফের হয়। টোল আদায়ের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা আসায় তা বিভিন্ন দেশের ব্যবস্থার সঙ্গে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বিভিন্ন দেশের টোল ব্যবস্থাপনায় দেখা যায়, শুধু সড়ক-মহাসড়ক হলেই টোল আদায় করা যাবে না। সেই সঙ্গে কিছু আনুষঙ্গিক বিকল্প ব্যবস্থাপনাও দৃশ্যমান করতে হয়। যেমন, সাধারণ মানুষের জন্য বিকল্প রাস্তা রাখাও জরুরী। যা উন্নত দেশের সড়ক ব্যবস্থাপনায় স্পষ্টভাবে দেখা যায়। টোল আদায় করা মহাসড়কে যান চলাচলেও বিশেষ সুবিধা দেয়া বাঞ্ছনীয়। বিদেশে মূলত বেসরকারী সংস্থার ব্যবস্থাপনায় নির্মিত সড়ক-মহাসড়কে টোল দেয়ার নিয়ম আছে। উন্
কাউকে ছাড় নয়, সবার আমলনামা আমার কাছে :প্রধানমন্ত্রী

কাউকে ছাড় নয়, সবার আমলনামা আমার কাছে :প্রধানমন্ত্রী

প্রাইম ডেস্ক : চাঁদাবাজি, দুর্নীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে হার্ডলাইনে গেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সবার আমলনামা এখন তার কাছে। বিতর্কিত কেন্দ্রীয় নেতা, মন্ত্রী-এমপিদের বিরুদ্ধেও অ্যাকশন শুরু হবে। সূত্র জানায়, গত শনিবার গণভবনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা তিন বছরে মাত্র একটি জেলায় সম্মেলন হওয়ায় কেন্দ্রীয় নেতাদের প্রতি চরম ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেছেন, ‘এই মেয়াদে মাত্র একটি জেলায় সম্মেলন হলো কেন? বাকিগুলো কেন হলো না? আপনারা করেন কী? কে কী করেন সবার আমলনামা কিন্তু আমার কাছে রয়েছে। জেলায় জেলায় গিয়ে খাওয়াদাওয়া করে আসেন, দলের কাজ তো কেউ করেন না। ব্যক্তি অপকর্মের দায় দল ও সরকার নেবে না। কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।’ প্রধানমন্ত্রীর এমন প্রশ্নের কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি কেন্দ্রীয় নেতারা। এ সময় দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় ১২ নেতাকে এসি রুমের মধ্যে
গাজীপুরে বাসচাপায় দুই মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু

গাজীপুরে বাসচাপায় দুই মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু

প্রাইম ডেস্ক : ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে গাজীপুরের শ্রীপুরের মাওনা উড়ল সেতু এলাকায় সোমবার রাতে বাস চাপায় দুই মোটর সাইকেল আরোহী নিহত হয়েছে। নিহতরা হলেন, হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর থানার গোপীনাথপুর গ্রামের ইউনুছ আলী ছেলে লুৎফর রহমান (২৮) ও কুড়িগ্রাম জেলার পাইকপাড়া কৃষ্ণপুর গ্রামের মৃত মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে নাজমুস সাকিব (৩৫)। শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মঞ্জুরুল ইসলাম জানান, ময়মনসিংহ থেকে ঢাকাগামী একটি বাস মাওনা চৌরাস্তা এলাকায় পৌঁছলে বিপরীত দিক থেকে উল্টোপথে লুৎফর রহমান ও নাজমুস সাকিবকে বহনকারী মোটরসাইকেলটি বাসের নিচে চাপা পড়ে। এতে নাজমুস সাকিব ঘটনাস্থলেই মারা যায়। পরে গুরুতর আহত লুৎফর রহমানকে উদ্ধার করে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনায় বাসটি আটক করা হলেও চালককে আটক করা যায়। শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লিয়াকত আলী
মেট্রোরেলের নিরাপত্তায় পুলিশের ইউনিট গঠনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

মেট্রোরেলের নিরাপত্তায় পুলিশের ইউনিট গঠনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক : মেট্রোরেলের নিরাপত্তার জন্য পুলিশের আলাদা ইউনিট গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ সোমবার গণভবনে মেট্রোরেল প্রকল্পের বাস্তবায়ন অগ্রগতি বিষয়ে পর্যালোচনা সভায় একথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। শেখ হাসিনা বলেন, মেট্রোরেলের নিরাপত্তার জন্য বিশেষায়িত আলাদা পুলিশ ইউনিট গঠন করতে হবে। মেট্রোরেলের জন্য আলাদা পুলিশ ইউনিট গঠনের কাজ এখন থেকে শুরু করতেও সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, সময় বেশি নেই, এখনই এ নিয়ে কাজ শুরু করতে হবে। এসময় সভায় উপস্থিত জাতীয় নিরাপত্তা সেলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আছাদুজ্জামান মিয়াকে মেট্রোরেল পুলিশ ইউনিট গঠনের বিষয়টি দেখতে বলেন প্রধানমন্ত্রী। পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনে মেট্রোরেল প্রকল্পের অগ্রগতির চিত্র তুলে ধরেন ঢাকা মাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ এন সিদ্দিক। তিনি বলেন,
কলকাতার ডিজিটাল রূপান্তর

কলকাতার ডিজিটাল রূপান্তর

মোস্তাফা জব্বার : ইনফোকম নামটির সঙ্গে আমার পরিচিতি ছিল অনেক আগে থেকেই। আমাদের সাফকাত হায়দার ভাইয়ের আয়োজনে যুক্ত থাকেন। কলকাতার আনন্দবাজার গোষ্ঠীর আয়োজক। ১৮ সালের শেষ দিকে ডিসেম্বর মাসের প্রথম দিকে সাফকাত ভাই কলকাতার ইনফোকম আয়োজনে অংশ নেবার জন্য অনুরোধ করার প্রেক্ষিতে আমি আমন্ত্রণটি গ্রহণ করি। প্রথমত. আমার দেখার আগ্রহ ছিল যে, বৃহত্তর বঙ্গের অপর পাড়ে ডিজিটাল শব্দটির প্রভাব কেমন। অন্য কারণটি ছিল যে তখন কলকাতায় অবস্থানরত অসুস্থ স্ত্রীকেও দেখে আসতে পারব। বকুল তখন দুটি নষ্ট কিডনি নিয়ে অন্তত একটি কিডনির প্রতিস্থাপনের জন্য কলকাতার হাসপাতালে পরীক্ষা-চিকিৎসাধীন ছিল। বাংলাদেশের বিপুল পরিমাণ মানুষ ভারতে চিকিৎসা নেয়। এর মাঝে একটি বড় অংশ আছে যারা কিডনি প্রতিস্থাপনের জন্য যায়। আমি মন্ত্রিত্বের চাপে বকুলের প্রতি নজরই দিতে পারছিলাম না। বস্তুত ছেলে বিজয় ও আমার পরিবার বকুলের ভয়ঙ্করতম সময়টিকে ব্যাপক সহায়