অর্থনীতি

ব্যাংক পরিচালকদের ঋণ পৌনে ২ লাখ কোটি টাকা

ব্যাংক পরিচালকদের ঋণ পৌনে ২ লাখ কোটি টাকা

প্রাইম ডেস্ক : দেশের ৫৫টি ব্যাংক থেকে বেসরকারি ব্যাংকগুলোর পরিচালকরা এক লাখ ৭১ হাজার ৬১৬ কোটি ১২ লাখ ৪৭ হাজার টাকা ঋণ নিয়েছেন। যা ব্যাংকগুলোর বিতরণ করা মোট ঋণের ১১ দশমিক ২১ শতাংশ। বুধবার জাতীয় সংসদে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ব্যাংক থেকে পরিচালকদের নেয়া ঋণের তথ্য প্রকাশ করেছেন। একই সঙ্গে তিনি ঋণখেলাপিদের তালিকাও প্রকাশ করেন জাতীয় সংদদে। বাংলাদেশ ব্যাংকের ঋণ তথ্যভাণ্ডারের গত সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তথ্যের ভিত্তিতে সংসদে ওই তালিকা প্রকাশ করা হয়। তালিকা অনুযায়ী ঋণখেলাপি প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ৮২২৩টি। উল্লেখ্য, ব্যাংকগুলোর পরিচালকদের ঋণের তথ্য এই প্রথমবারের মতো সংসদে প্রকাশ করা হয়েছে। এর আগে শুধু ঋণখেলাপিদের তালিকা প্রকাশ করা হতো। কিন্তু ব্যাংকের পরিচালকদের নামে নেয়া ঋণের কোনো তথ্য প্রকাশ করা হয়নি। তবে এবার সংসদে ব্যাংক পরিচালকদের ঋণের তথ্য প্রকাশ করা হলেও কোন পরিচালক কোন ব্যাংক থেকে কী
চাঙ্গা পুঁজিবাজার, সূচকে সর্বোচ্চ উত্থান

চাঙ্গা পুঁজিবাজার, সূচকে সর্বোচ্চ উত্থান

প্রাইম ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নানা নির্দেশনার পর সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসে সূচকে বড় ধরনের উত্থান হয়েছে পুঁজিবাজারে। রোববার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৫ দশমিক ৫৯ শতাংশ বা ২৩২ পয়েন্ট বেড়ে হয়েছে ৪ হাজার ৩৮২ পয়েন্ট। সাত বছর আগে ২০১৩ সালের ২৭ জানুয়ারি দেশের প্রধান পুঁজিবাজারে নতুন এই সূচক চালু হওয়ার পর এত বড় উত্থান দেখা যায়নি। এর আগে ডিএসইর পুরনো সূচক ডিজিইন থাকার সময় ২০১২ সালে ৭ই ফেব্রুয়ারি সূচক বেড়েছিল ৯ দশমিক ১০ শতাংশ; সেদিন ৩২৯ পয়েন্ট বেড়ে ডিজিইএন হয়েছিল ৩ হাজার ৯৪৫। রোববার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক সিএএসপিআই ৫ দশমিক ৬৬ শতাংশ বা ৭১৩ দশমিক ৪১ পয়েন্ট বেড়ে হয়েছে ১৩ হাজার ৩১৪ পয়েন্ট। লেনদেনও বেড়েছে দুই পুঁজিবাজারে। ডিএসইতে এদিন লেনদেন ৫৪ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ৪১১ কোটি টাকা। সিএসইতে লেনদেন ৪০৫ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ৪৩ কোটি টাকা। পুঁজি
‘অভূতপূর্ব’ ও ‘বিস্ময়কর’ গতিতে এগিয়েছে বাংলাদেশ: মোদি

‘অভূতপূর্ব’ ও ‘বিস্ময়কর’ গতিতে এগিয়েছে বাংলাদেশ: মোদি

প্রাইম ডেস্ক : ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ভারত সফররত তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। ঢাকায় প্রাপ্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আজ এ কথা জানানো হয়। এতে বলা হয়, নয়াদিল্লি¬তে রাইসিনা সংলাপে অংশগ্রহণকারী বিশ্বের অন্যান্য দেশের মন্ত্রীদের সাথে হাছান মাহমুদ বুধবার সন্ধ্যায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে তাঁর কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করেন। এসময় নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, ২০১৪ সাল থেকে ‘অভূতপূর্ব’ ও ‘বিস্ময়কর’ গতিতে এগিয়েছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের যে অভূতপূর্ব অগ্রগতি আমি লক্ষ্য করেছি, তা আক্ষরিক অর্থেই বিস্ময়কর। ভারত সফররত বাংলাদেশের তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদও এসময় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে সাক্ষাতের আমন্ত্রণ পান। ড. হাছানের সাথে আলাপকালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে তাঁর উষ্ণ শুভেচ্ছা পৌঁছে দেওয়ার অনুরোধ জানান। তথ্যমন্ত্রী এদিন দ
সরকারের মেগা প্রকল্পগুলোর অগ্রগতি কতটা

সরকারের মেগা প্রকল্পগুলোর অগ্রগতি কতটা

প্রাইম ডেস্ক : আওয়ামী লীগ সরকার ২০০৯ সালে ক্ষমতায় আসার পর কয়েকটি বড় প্রকল্পের কাজ শুরু করে এবং শেষ পর্যন্ত সরকারের অগ্রাধিকারমূলক প্রকল্প হিসেবে এগুলো বাস্তবায়নে বিশেষ উদ্যোগও নেয়া সরকার। সরকারের এই মেগা প্রকল্পগুলো হচ্ছে- পদ্মা বহুমূখী সেতু প্রকল্প, ঢাকায় মেট্রোরেল প্রকল্প, পদ্মা সেতুতে রেল সংযোগ প্রকল্প, দোহাজারী হতে রামু হয়ে কক্সবাজার এবং রামু হয়ে ঘুমধুম পর্যন্ত রেল লাইন নির্মাণ প্রকল্প, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প, মাতারবাড়ি কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প, এলএনজি টার্মিনাল নির্মাণ প্রকল্প, কয়লা ভিত্তিক রামপাল থার্মাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প, পায়রা বন্দর নির্মাণ প্রকল্প এবং সোনাদিয়া গভীর সমুদ্র বন্দর নির্মাণ প্রকল্প। এসব প্রকল্পের বাস্তবায়ন কাজ কতদূর এগিয়েছে? পদ্মা সেতু : সরকারের সবচেয়ে বেশি অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত পদ্মা সেতু
পেঁয়াজ নিয়ে শুধু ভারতের ওপর নির্ভরশীল থাকব না: কৃষিমন্ত্রী

পেঁয়াজ নিয়ে শুধু ভারতের ওপর নির্ভরশীল থাকব না: কৃষিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আবদুর রাজ্জাক বলেছেন, আমাদের কাছে পেঁয়াজ উৎপাদনের যে প্রযুক্তি আছে, তাতে আমরা পেঁয়াজ উৎপাদনে উদ্বৃত্ত থাকব। শুক্রবার বিকালে খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইন্সটিটিউট প্রাঙ্গণে ‘জাতীয় সবজি মেলা ২০২০’ উদ্বোধন শেষে তিনি একথা বলেন। কৃষিমন্ত্রী বলেন, পেঁয়াজের জন্য আমরা ভারতের ওপর নির্ভরশীল ছিলাম। তারা হঠাৎ করে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দিলে আমরা বিপদে পড়ে যাই। এরপর থেকে শুধু ভারতের ওপর নির্ভরশীল থাকলেই হবে না। আমাদের কাছে পেঁয়াজ উৎপাদনের যে প্রযুক্তি আছে, তাতে আমরা পেঁয়াজ উৎপাদনে উদ্বৃত্ত থাকবো। সমস্যা হচ্ছে, কৃষক পেঁয়াজ উৎপাদন করতে চায় না। সেকারণে আমরা বাণিজ্যমন্ত্রীকে বলেছি, এ বছর মৌসুমে যেন পেঁয়াজ আমদানি করা না হয়। কৃষক যেন পেঁয়াজ উৎপাদন করে লাভ করতে পারে। মন্ত্রী বলেন, বর্তমানে আমরা ধান-চালে উদ্বৃত্ত দেশ। আমাদের ৩০ থেকে ৪০ লাখ টন আলু উদ্বৃত্
আরও কমল বেসরকারি খাতে ঋণ বিতরণ

আরও কমল বেসরকারি খাতে ঋণ বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক : গত ৬ মাস ধরে বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধির হার ধারাবাহিক ভাবে কমেছে। চলতি অর্থবছরের নবেম্বরে ঋণ প্রবৃদ্ধি ৯ দশমিক ৮৭ শতাংশ হয়েছে। যা আগের মাস অক্টোবরে ছিল ১০ দশমিক ০৪ শতাংশ। সংশ্লিষ্ঠরা বলছেন, খেলাপি ঋণ লাগামহীনভাবে বাড়ার কারণে ব্যাংকগুলোকে বাড়তি নিরাপত্তা সঞ্চিতি রাখতে হচ্ছে। অন্যদিকে আশানুরূপ আমানত পাচ্ছে না ব্যাংকগুলো। ফলে ব্যাংকে পর্যাপ্ত নগদ অর্থ নেই। বেসরকারি বিনিয়োগ কমে যাওয়া এর অন্যতম কারণ। এছাড়া আর্থিক খাতের নানা কেলেঙ্কারি ও সঞ্চয়পত্রে সুদ বেশি হওয়ায় ব্যাংকে আমানত প্রবৃদ্ধি কমে গেছে। ফলে একদিকে চাহিদা থাকা সত্ত্বেও ঋণ দিতে পারছে না ব্যাংকগুলো। অন্যদিকে উচ্চ সুদহারের কারণে ঋণ নিতেও আগ্রহী নয় উদ্যোক্তা ব্যবসায়ীরা। সব মিলিয়ে বেসরকারি ঋণ কাঙ্খিত হারে বাড়ছে না। চলতি (২০১৯-২০) অর্থবছরের ঘোষিত মুদ্রানীতিতে বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধির প্রাক্কলন কমিয়েছে কেন্দ
‘যুবগোষ্ঠীকে উৎপাদনমুখী শক্তিতে রূপান্তরে কাজ করছে সরকার’

‘যুবগোষ্ঠীকে উৎপাদনমুখী শক্তিতে রূপান্তরে কাজ করছে সরকার’

প্রাইম ডেস্ক : আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার প্রায় এক-তৃতীয়াংশ যুবসমাজ। ডিজিটাল বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার প্রধান শক্তি হচ্ছে যুবসমাজ। তাই যুবগোষ্ঠীকে সুসংগঠিত, সুশৃঙ্খল এবং উৎপাদনমুখী শক্তিতে রূপান্তরের লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করছে সরকার। গতকাল শনিবার রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামে ডাচ-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড কর্তৃক তিন সহস্রাধিক দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, তোমরা অত্যন্ত ভাগ্যবান। কেননা পরীক্ষার ফলাফল, মেধা ও প্রজ্ঞাসহ অনেক বিষয়াদি যাচাই-বাছাইয়ের পর বিপুলসংখ্যক ছাত্রছাত্রীর মধ্যে থেকে ডাচ-বাংলা ব্যাংক এই বৃত্তি প্রদানের জন্য তোমাদের মনোনীত করেছে। ভালোভাবে লেখাপড়া করে তোমরা যদি ভবিষ্যতে নিজেদের যোগ্য করে গড়ে তুলতে পার তবেই এ উদ্যোগ সার্থক হবে। আই
৭৬৭ কোটি টাকায় নিরাপদ চ্যানেল হবে মোংলা বন্দরে

৭৬৭ কোটি টাকায় নিরাপদ চ্যানেল হবে মোংলা বন্দরে

নিজস্ব প্রতিবেদক : সমুদ্রগামী জাহাজ সুষ্ঠুভাবে হ্যান্ডলিংয়ের সক্ষমতা অর্জনের লক্ষ্যে এবার ৭৬৭ কোটি ২৫ লাখ টাকা ব্যয়ে মোংলা বন্দরে নিরাপদ চ্যানেল তৈরির উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। এ উদ্যোগ বাস্তবায়িত হলে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়াতে জরুরি উদ্ধার কাজও পরিচালন করা সম্ভব হবে। পরিকল্পনা কমিশন সূত্রে জানা গেছে, ‘মোংলা বন্দরের জন্য সহায়ক জলযান সংগ্রহ’ নামের প্রকল্পটি হাতে নিচ্ছে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়। প্রকল্পটি ইতোমধ্যে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় উপস্থাপনের উপযোগীও করা হয়েছে। একনেকে অনুমোদন পেলে ২০২২ সালের ৩০ জুনের মধ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ। পরিকল্পনা কমিশনের কর্মকর্তারা বলেন, প্রকল্পটির প্রস্তাব পাওয়ার পর চলতি বছরের জুলাইয়ে প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় প্রকল্পের জন্য বেশ কিছু সুপারিশ দেয়া হয়। সেসব সুপারিশ বাস্তবায়ন করে উন্ন
জানুয়ারিতে রংপুরে শুরু হচ্ছে গ্যাস পাইপলাইন নির্মাণ কাজ 

জানুয়ারিতে রংপুরে শুরু হচ্ছে গ্যাস পাইপলাইন নির্মাণ কাজ 

নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামী জানুয়ারি মাস থেকে রংপুরে গ্যাস পাইপলাইন নির্মাণ কাজ শুরু হচ্ছে। ২০২২ সালের জুনে এই পাইপলাইন নির্মাণ কাজ শেষ হবে। অত্র অঞ্চলের শিল্প বিকাশের লক্ষ্যে গ্যাস সরবরাহ ও বিতরণ লাইন নির্মাণে সরকার প্রায় ১৮০০ কোটি টাকার এ প্রকল্প হাতে নিয়েছে। পশ্চিমাঞ্চল গ্যাস কোম্পানি লিমিটেডের উপ-মহাব্যবস্থাপক (প্লানিং) প্রকৌশলী শৈলজা নন্দ বসাক বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, শিল্প বিকাশের লক্ষ্যে উত্তরাঞ্চলের রাজশাহী, বগুড়ার পর এবার রংপুর বিভাগে গ্যাস সরবরাহের জন্য সঞ্চালন ও বিতরণ নেটওয়ার্ক নির্মাণে প্রায় ১ হাজার ৮০০ কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকার। এ প্রকল্পের কাজ ২০২০ সালের জানুয়ারি মাসে শুরু হয়ে ২০২২ সালের জুনে শেষ হবে। এর আগে ২০১১ সালে রংপুর জেলা সফরকালে এ অঞ্চলে পাইপলাইনের মাধ্যমে গ্যাস সরবরাহের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরই প্রেক্ষিতে ইতোমধ্যে বগুড়া থেকে
সুন্দরবন রক্ষায় সরকারের ৪০০ কোটির প্রকল্প

সুন্দরবন রক্ষায় সরকারের ৪০০ কোটির প্রকল্প

নিজস্ব প্রতিবেদক :  দেশের দ্বিতীয় সমুদ্রবন্দর মোংলায় চলাচলকারী জাহাজের বর্জ্য থেকে সুন্দরবনকে রক্ষা করতে ৪০০ কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকার। নৌপরিবহণ মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাবিত প্রকল্পটি জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) ইতোমধ্যে অনুমোদন করেছে। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, পশুর চ্যানেল ও মোংলা বন্দরের আশপাশের নদ-নদীগুলোকে জাহাজের তেল থেকে দূষণমুক্ত রাখতে তৈলাক্ত পদার্থ অপসারণ করার জন্য ১টি অয়েল রিকোভারি ফ্লিট গঠনের উদ্দেশ্যে 'মোংলা বন্দরের আধুনিক বর্জ্য ও নিঃসৃত তেল অপসারণ ব্যবস্থাপনা' শীর্ষক প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকার। প্রকল্পটি ২০১৯-২০ অর্থবছরের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে (এডিপি) বরাদ্দবিহীন অনুমোদনবিহীন নতুন প্রকল্প তালিকায় অন্তর্ভুক্ত আছে। ৪০১ কোটি ২৪ লাখ টাকা ব্যয়ে প্রকল্পটির বাস্তবায়ন ২০২০ সালের জানুয়ারিতে শুরু হয়ে ২০২২ সালের ৩০ জুনের মধ্যে শেষ করার লক্ষ