রাজনীতি

সিসিক নির্বাচন: বেকায়দা ও চ্যালেঞ্জের মুখে বিএনপি

সিসিক নির্বাচন: বেকায়দা ও চ্যালেঞ্জের মুখে বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক : দলীয় প্রতীকে সিলেট সিটি করপোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ৩০ জুলাই। এই নির্বাচন আওয়ামী লীগ-বিএনপির জন্য সম্মান বাঁচানোর লড়াই বলে মনে করছেন সুশীল সমাজ। অনেকে বলছেন আরিফ-কামরানের জনপ্রিয়তা পরীক্ষার নির্বাচন হচ্ছে সিসিক নির্বাচন।চলমান রাজনৈতিক অবস্থায় বিএনপির মনোনীত মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে রয়েছেন। কারণ মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম ও ২০ দলীয় জোটের প্রধান শরিক জামায়াত সমর্থিত মহানগর জামায়াতের আমির এহসানুল মাহবুব জুবায়ের বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী হয়েছেন। এক নির্বাচনে দলীয় বিদ্রোহীসহ শরিক দলের প্রার্থী থাকায় দিনের বেলায় অন্ধকার দেখছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী। এই সু্যোগ কাজে লাগিয়ে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক মেয়র বদরউদ্দিন আহমদ কামরান আছেন সুবিধাজনক অবস্থানে। কামরান অন্তত দলীয় ভোটারদের ব
ভারতের সাথে বাংলাদেশের ‘বিভেদ সৃষ্টি’করতে দিল্লি সফর করতে চেয়েছিলেন কার্লাইল

ভারতের সাথে বাংলাদেশের ‘বিভেদ সৃষ্টি’করতে দিল্লি সফর করতে চেয়েছিলেন কার্লাইল

নিজস্ব প্রতিবেদক  : যুক্তরাজ্যে লর্ড সভার সদস্য এবং বাংলাদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার আইনী পরামর্শক আলেক্স কর্লাইল ভারত ও বাংলাদেশের রাজনৈতিক নেতাদের মধ্যে ‘বিভেদ সৃষ্টির’উদ্দেশ্যে ভারতে আসতে চেয়েছিলেন বলে জানা গেছে। দীর্ঘদিন ধরে একসঙ্গে কাজ করা তার ব্যক্তিগত সহকারী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। বিট্রিশ একটি গণমাধ্যমকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে তিনি জানিয়েছেন, দিল্লির ভিসা না পাওয়ায় সে সুযোগ হাতছাড়া হয়ে গেছে। সূত্র বলছে, টুরিস্ট ভিসার সুপারিশ করে তিনি মূলত ভারতে এসে বিএনপির এজেন্ট হিসেবে কাজ করতে চেয়েছিলেন। তিনি বিএনপি ক্ষমতায় গেলে ভারতকে যে সুবিধাগুলো দেয়া হবে সে সম্পর্কে ভারতের রাজনৈতিক দলগুলোকে বুঝাতে আসতে চেয়েছিলেন। ভারতের রাজনৈতিক দলগুলোকে উস্কে দেয়ার জন্যই কার্লাইল আসতে চেয়েছিলেন বলেও একটি বিশেষ সূত্র নিশ্চিত করেছে। সূত্র জানায়, দিল্লিতে কার্লাইলের আগমনকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন গণতন্
সিসিক নির্বাচন: জামায়াতকে কোনো দলই মনে করছেন না মওদুদ আহমদ

সিসিক নির্বাচন: জামায়াতকে কোনো দলই মনে করছেন না মওদুদ আহমদ

  নিজস্ব প্রতিবেদক  : আসন্ন সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়রপদে পৃথক পৃথক প্রার্থী দিয়েছে জামায়াত ও বিএনপি। এরপর থেকেই বিএনপি জামায়াতের মধ্যে চলছে নীরব যুদ্ধ। একে অপরকে নিয়ে কটুক্তি করার কোনো প্রয়াসই বাকি রাখছেন না জামায়াত ও বিএনপি। এমতাবস্থায় জামায়াতকে তাচ্ছিল্য করে কথা বলে বসলেন বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। মওদুদ আহমদ বলেন, দেশের মানুষ হয় ধানের শীষে ভোট দিবে নতুবা নৌকায়। এখানে জামায়াতে ইসলামীর ঘড়ি মার্কায় কেউ ভোট দিবে না। মওদুদ আহমদের এমন কথায় ক্ষোভে ফেটে পড়ে জামায়াতের কর্মী আনিছুর রহমান। তিনি বলেন, মওদুদ আহমদের কথা শুনে মনে হচ্ছে ২০০১ সালের ক্ষমতায় তারা নিজের যোগ্যতায় এসেছে। যদি এমনই হতো তাহলে ১৯৯৬ সালে তারা ক্ষমতায় কেনো আসলো না? বিএনপি আমাদের তাদের প্রয়োজনে ব্যবহার করেছে।  এ ব্যাপারটি মোটামুটি নিশ্চিত। আমরা চেয়েছিলাম, ২০ দলের পক্ষ থেকে এবারের
জনস্বার্থে জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশিত আরিফুল হকের দৌরাত্ম্যের খবর প্রচার করছে সিলেটবাসী

জনস্বার্থে জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশিত আরিফুল হকের দৌরাত্ম্যের খবর প্রচার করছে সিলেটবাসী

নিজস্ব প্রতিবেদক  : গত মেয়াদে ক্ষমতায় থাকা সিলেট সিটি করপোরেশনের বিএনপি সমর্থিত মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর বিরুদ্ধে নানা সময়ে জাতীয় প্রত্রিকায় প্রকাশিত বিভিন্ন দৌরাত্ম্যের খবর জনস্বার্থে প্রচার করছে সিলেটবাসী। তারা বলছেন, আগামী ৩০ জুলাই সিলেট সিটি নির্বাচনে যেন সিলেটবাসী আর কোনো ভুল না করে সে লক্ষ্যে এই প্রচারণা চালানো হচ্ছে। আর এই জনস্বার্থমূলক প্রচারণার সঙ্গে আছে সচেতন একদল যুবক। সিলেটের বিভিন্ন দেয়ালসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘুরে বেড়াচ্ছে বিভিন্ন সময়ে প্রকাশিত মেয়র আরিফের ওই অপকর্মের খবরগুলো। যেখানে দেখা যায়, মেয়র আরিফ ক্ষমতায় এসে নিজেকে শুধু মেয়র নন, অঘোষিত মন্ত্রী ভাবতে শুরু করেন। নগরীর এমন কোনো প্রতিষ্ঠান নেই যেখানে আরিফুল হকের নামে চাঁদ ওঠেনি। তিনি মাদক-চোরাকারবারীদের সহায়তা করে বিনিময়ে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিতেন। আর সেসব অবৈধ পথ অবলম্বন করে খুব অল্প সময়ের মধ্যে পাহাড়সম সম্পত্তির
বরিশালে দলীয় ঐক্যে এগিয়ে সাদিক

বরিশালে দলীয় ঐক্যে এগিয়ে সাদিক

প্রাইম ডেস্ক : আসন্ন বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে পুরো দমে শুরু হয়েছে নির্বাচনী প্রচারণা। দলীয় ঐক্যে এখন পর্যন্ত এগিয়ে রয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী সাদিক আব্দুল্লাহ। কর্মী সমর্থকদের সাথে নিয়ে রাত-দিন নিজের প্রচারণা চালাচ্ছেন সাদিক আব্দুল্লাহ। এদিকে দলীয় অন্তঃকোন্দলের কারণে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ার নির্বাচনী প্রচারণা নিয়ে কিছুটা বিপাকে রয়েছেন।সাদিক আব্দুল্লাহর এখন সকাল-সন্ধ্যা কাটে সাধারণ মানুষকে নিয়ে। সকালে ঘুম থেকে উঠার পর বাসার নিচতলার ড্রইং রুমে দেখতে পান অপেক্ষমাণ মানুষের জটলা। সকলের কথাই মনোযোগ দিয়ে শোনেন তিনি। চেষ্টা করেন সমস্যা সমাধানের। এর পরেই তিনি ছুটে যান সাধারণ মানুষের দ্বারে। সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মকান্ড শেষে মধ্য রাতে যখন সাদিক ফেরেন তখনো মানুষের আনা গোনা থাকে তার কালীবাড়িস্থ বাসায়।সাদিক আব্দুল্লাহকে বিজয়ী করতে এখন ঐক্যবদ্ধ হয়েছে বরিশালের পুরো আওয়া
লিটনের ভাবনায় নগরবাসী, বুলবুলের ভাবনায় খালেদার মুক্তি

লিটনের ভাবনায় নগরবাসী, বুলবুলের ভাবনায় খালেদার মুক্তি

প্রাইম ডেস্ক : যতই দিন যাচ্ছে ততই জমে উঠছে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের প্রচার প্রচারণা। আগামী ৩০ জুলাই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে উক্ত সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজশাহীতে ইতোমধ্যে বইতে শুরু করেছে নির্বাচনী হাওয়া। প্রার্থীরা ভোটারদের মন জয় করার লক্ষ্যে দিয়ে যাচ্ছেন বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি। এবারের নির্বাচনে মেয়র পদে প্রধান দুই প্রতিদ্বন্দ্বী হচ্ছেন আওয়ামী লীগ থেকে মনোনীত প্রার্থী রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র এ এইচ  এম খায়রুজ্জামান লিটন এবং বিএনপি থেকে মনোনীত মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। অনুষ্ঠেয় রাসিক নির্বাচনে দুই রকম কৌশল নিয়ে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন প্রধান দুই প্রার্থী।খায়রুজ্জামান লিটন তার নির্বাচনী প্রচারণায় রাজশাহী নগরবাসীকে উন্নয়নের বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দিয়ে তাদের মন জয় করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। ইতোমধ্যে নগরী এবং নগরবাসীর উন্নয়ন পরিকল্পনা নিয়ে নির্বা
কে এই মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল? জানুন বিস্তারিত

কে এই মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল? জানুন বিস্তারিত

নিজস্ব প্রতিবেদক  : রাজশাহী মহানগর বিএনপির সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। বিএনপি প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের পেশা ব্যবসা। ২০১৩ সালে নির্বাচনের সময় তার ছিল নগদ ৬ লাখ ৬৫ হাজার টাকা। তবে গেল পাঁচ বছরে তা বেড়ে হয়েছে ৪২ লাখ ৩০ হাজার। স্ত্রীর নামে আছে ৬ লাখ ৭৯ হাজার ৮০০ টাকা। যদিও মাছ চাষ করে বছরে তার আয় মাত্র ৬ লাখ টাকা। বুলবুলের নিজের আছে ২৫ ভরি স্বর্ণ; যা স্ত্রীর চেয়েও বেশি। স্ত্রীর আছে ২০ ভরি। তবে নিজের কোনো বাড়ি নেই। তার নামে হত্যাসহ ১২টি মামলাও আছে। রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে রাজাকারের সন্তান আখ্যা দিয়েছে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ। বিএনপির মনোনীত মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের বিরুদ্ধে নাশকতার অভিযোগ ২০১১ সাল থেকে ২০১৬ পর্যন্ত ১২টি মামলা হয়েছে। মামলার মধ্যে পুলিশ কনস্টেবল সিদ্ধার্থ সরকার হত্যা, বিস্ফোরকদ্রব্য ও নাশকতা। পুলিশ কনস্টেবল সিদ্ধার্থ
তরুণ ভোটারদের সমর্থনে এগিয়ে লিটন

তরুণ ভোটারদের সমর্থনে এগিয়ে লিটন

  প্রাইম ডেস্ক : আসন্ন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন (রাসিক) নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের অন্যতম প্রধান সংগঠক ও জাতীয় নেতা এ এইচ এম কামারুজ্জামান হেনার পুত্র, এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন। তিনি রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সিটি কর্পোরেশনের সাবেক সফল মেয়র।ইতোমধ্যে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে ঘিরে প্রচার প্রচারণা শুরু হয়ে গেছে। প্রতিশ্রুতির ফুলঝুরি নিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন প্রার্থীরা। ভোটারদের মুখে মুখে আলোচনায় প্রধান দুই দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মনোনীত প্রার্থী লিটন ও মোসাদ্দেক।সরোজমিনে ঘুরে দেখা গেছে বিভিন্ন কারণে প্রচার প্রচারণা ও জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে বুলবুল থেকে কিছুটা এগিয়ে রয়েছে সরকারদলীয় প্রার্থী খায়রুজ্জামান লিটন। এবার বেশিরভাগ তরুণ ভোটারদের সমর্থন পাচ্ছেন লিটন। তারা জানান, লিটনের বাবা জাতীয় চার নেতার একজন এবং মহান মু
ইশতেহার ঘোষণা করলেন লিটন

ইশতেহার ঘোষণা করলেন লিটন

নিজস্ব প্রতিবেদক  : রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের নির্বাচনী ইশতেহারঃ ১। কর্মসংস্থান: গ্যাস সংযোগের মাধ্যমে গার্মেন্টস শিল্প, বিশেষ অর্থনৈতিক জোন প্রতিষ্ঠা ও বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্ক দ্রুত বাস্তবায়ন করে লক্ষাধিক মানুষের নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা। ঐতিহ্যবাহী রেশম কারখানা ও রাজশাহী টেক্সটাইল মিলস পূর্ণাঙ্গ রূপে চালু করা। রাজশাহী জুটমিল সংস্কার ও সম্প্রসারণ করা। কৃষি ভিত্তিক শিল্প স্থাপন করা- আম, টমেটো, আলু প্রক্রিয়াজাতকরণ ও পাটশিল্প আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষে কুটির শিল্প (এসএমই ফাউন্ডেশনের সহায়তায়) উদ্যোক্তাদের উৎসাহিত ও সহায়তা করা। ২। শিক্ষা: রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় দ্রুত বাস্তবায়ন করা। রাজশাহীতে পূর্ণাঙ্গ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা। শিক্ষানগরী রাজশাহীতে মান সম্পন্ন নতুন একাধিক বালক ও বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজ স্থাপন করা। রা
দল থেকে বহিস্কার করায় বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী সেলিমের হুঁশিয়ারি

দল থেকে বহিস্কার করায় বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী সেলিমের হুঁশিয়ারি

নিজস্ব প্রতিবেদক  : সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরীকে তথা স্বয়ং বিএনপিকে বিদ্রোহী প্রার্থী বদরুজ্জামান সেলিম কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। জানা গেছে, বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনের সিদ্ধান্তে অটুট থাকায় তাকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। এর প্রেক্ষিতে সেলিম বলেছেন, বিএনপির নেতা-কর্মীরা দলের মনোনীত মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরীকে জবাব দেয়ার জন্য মুখিয়ে আছে। জবাব দেয়া হবে ব্যালটে। একই সাথে তিনি বিএনপিকেও উৎকৃষ্ট জবাব দেয়ার হুঁশিয়ারি দেন বলে জানা গেছে। প্রসঙ্গত, ৯ জুলাই সিলেটে দলের প্রবীণ নেতা বদরুজ্জামান সেলিম প্রার্থিতা প্রত্যাহার না করায় পরদিন তাকে বহিষ্কার করে বিএনপি। একই দিন তিনি নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দ পান। বিএনপি এখনও আশা করছে, সেলিম শেষ পর্যন্ত ভোটে থাকবেন না। যদিও তিনি বলছেন, শেষ পর্যন্ত ভোটে থাকবেন আর বিএনপিকে দেখিয়ে দেবেন। এ প্রসঙ্গে সেলিম বলেন