শনিবার, এপ্রিল ১৭
Shadow

লাইফস্টাইল

বিশ্বের সবচেয়ে সুখী দেশ ফিনল্যান্ড, বাংলাদেশ ৬৮তম

বিশ্বের সবচেয়ে সুখী দেশ ফিনল্যান্ড, বাংলাদেশ ৬৮তম

আন্তর্জাতিক, লাইফস্টাইল
প্রাইম ডেস্ক : বিশ্বব্যাপী মানুষের জন্য গত বছরটি একটি কঠিন বছর ছিল। শুধু মহামারি করোনায় বিশ্বব্যাপী ২৭ লাখের বেশি মানুষের মৃত্যুর কারণেই নয়, এ বছরটি মানুষের জীবনকে অতিষ্ট করে তুলেছিল ঘরবন্দী জীবনের জন্য। তার মধ্যে সবচেয়ে সুখী দেশের তালিকা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন সমাধান নেটওয়ার্ক (এসডিএসএন)। ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্টে এবারো তালিকার শীর্ষে রয়েছে ইউরোপের দেশ ফিনল্যান্ড। আর বাংলাদেশের অবস্থান ৬৮তম। জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন সমাধান নেটওয়ার্ক (এসডিএসএন) ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্ট প্রকাশ করে। এটি টেকসই উন্নয়ন নেটওয়ার্কের সুখবিষয়ক নবম বার্ষিক প্রতিবেদন। আজ ২০ মার্চ বিশ্ব সুখ দিবসে পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হবে। তবে তার আগে প্রতিবেদনটির আংশিক প্রকাশ করা হয়েছে। আংশিক এই প্রতিবেদনে ৯৫টি দেশের নাম রয়েছে। প্রতিবেদন অনুসারে বিশ্বের সবচেয়ে সুখী দেশ হিসেবে শীর্ষ পাঁচ দেশের মধ...
টবে চাষ করুন বেল পেপার বা ক্যাপসিকাম

টবে চাষ করুন বেল পেপার বা ক্যাপসিকাম

লাইফস্টাইল
প্রাইম ডেস্ক : আমাদের দেশে ধীরে ধীরে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে বেল পেপার। এ নামে অবশ্য খুব বেশি মানুষ এটিকে চিনবে না। কিন্তু যদি ক্যাপসিকাম বা সিমলা মরিচ বলা হয় তাহলে সবাই চিনবেন। মরিচ নাম হলেও একটি আসলে একটি সবজি। মাছ, মাংস, সবজি, সালাদ—সবকিছুতেই এর ব্যবহার রয়েছে। সবুজ, লাল ও হলুদ রঙ সহ বিভিন্ন রঙের ক্যাপসিকাম এখন কিনতে পাওয়া যায় কাঁচাবাজার ও সুপারশপগুলোয়। তবে একটু চেষ্টা করলে বারান্দা কিংবা ছাদের টবে খুব সহজেই বেল পেপার বা ক্যাপসিকাম চাষ করা যায়। ক্যাপসিকামের কয়েকটি উন্নত মানের জাত হলো ক্যালিফোর্নিয়া ওয়ান্ডার, ইয়েলো ওয়ান্ডার এবং হাইব্রিডের মধ্যে মধ্যে রয়েছে ম্যানহাটন, অনুপম ভারত, রতন, মহাভারত, মানহেম-৩০১৯, মানহেম–৩০২০ প্রভৃতি। চাষপদ্ধতি ঝুরঝুরে বেলে দোআঁশ মাটি ক্যাপসিকাম চাষের জন্য উপযুক্ত। যদিও সব মৌসুমেই ক্যাপসিকাম চাষ সম্ভব, তবে ভাদ্র ও মাঘ মাসে বীজ বপন করলে ভালো ফলনের সম্ভাবনা...
সূর্যমুখী ফুলের চাষ দেখতে জনতার ঢল

সূর্যমুখী ফুলের চাষ দেখতে জনতার ঢল

লাইফস্টাইল
নিজস্ব প্রতিবেদক : ইঁটকাঠের পাথরের শহরে মানুষ আজ কর্মব্যস্ততায় হাফিয়ে উঠেছে। তাই যখনই কোন বিনোদনের জায়গা খোঁজে পায় তখনই সেখানে পঙ্গপালের মতো ছুটে যায়। পাইকারচর ইউনিয়নের কামারচর এর আবদুল বাশার পেশায় একজন কৃষক। তিনি সাংবাদিকদের জানান, নরসিংদী কৃষি বিভাগের  সহযোগিতা নিয়ে ৬০ শতাংশ জমিতে সূর্যমুখী ফুলের চাষ করেন। কার্তিক মাসে বীজ বপন করেন এবং আগামী চৈত্র মাসে ফলন পাবেন বলে আশাবাদী। তবে ফুল পরিপূর্ণ ভাবে প্রস্ফুটিত হওয়ার পর মানুষ বাগানের সৌন্দর্য দেখে ছবি তুলে ফেসবুকে পোস্ট করে। এতে নরসিংদী জেলা সহ আশেপাশের জেলা থেকেও মানুষ দলে দলে আসছে সূর্যমুখী বাগান দেখার জন্য। অনেকে ফুল ছিড়ে ফেলে, ভিতরে এসে ছবি তুলে। ফলে তিন মাস হলো আমি এই জমিতেই দিন-রাত থাকতেছি। সরকারি অর্থ সহায়তা পেলে আগামীতে আরো ব্যাপক পরিসরে চাষাবাদ করার আশা ব্যক্ত করেন। এই ফুল থেকে ভোজ্য তেল উৎপাদন করে বাজারে চাহিদা মেটানো...
বিরল পাখি: ‘অর্ধেক পুরুষ আর অর্ধেক নারী’

বিরল পাখি: ‘অর্ধেক পুরুষ আর অর্ধেক নারী’

লাইফস্টাইল
প্রাইম ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যে একটি বিরল পাখি দেখা গেছে, যার শরীরের অর্ধেকটা নারী এবং অর্ধেকটা-পুরুষের মতো মনে হচ্ছে। পাখিটি নর্দার্ন কার্ডিনাল প্রজাতির। পাখি বিশেষজ্ঞ জেমি হিল যখন তার বন্ধুর কাছ থেকে এই পাখির বিষয়ে জানতে পারেন, তৎক্ষণাৎ তার ক্যামেরা নিয়ে ছুটে যান। আর বিরল এই পাখির ছবি ধারণ করেন। যদিও এটিই প্রথম নয়, তবে এটা নিশ্চিত যে মিশ্র লিঙ্গের পাখি অনেক বিরল। পুরুষ কার্ডিনালগুলো সাধারণত উজ্জ্বল লাল রঙের হয়ে থাকে এবং নারী কার্ডিনালগুলো হয়ে থাকে ফ্যাকাসে বাদামি রঙের। তাই এ পাখিটি দুটি লিঙ্গের মিশ্রণ হতে পারে। ৬৯ বছর বয়সী অবসরপ্রাপ্ত পাখিবিদ জেমি হিল বিবিসিকে বলেছেন, এমন মুহূর্ত সারাজীবনে শুধু একবার পাওয়া যায়, লাখে একটা ঘটনা। হিলের এক বন্ধু তাকে জানান যে, তিনি পেনসিলভানিয়া রাজ্যের ওয়ারেন কাউন্টিতে তার পাখিকে খাওয়ানোর জন্য রাখা ব...
মার- এ- লাগোর ভবিষ্যৎ অন্ধকারে

মার- এ- লাগোর ভবিষ্যৎ অন্ধকারে

লাইফস্টাইল
প্রাইম ডেস্ক : মার-এ-লাগো। এই নামটির সঙ্গে আমেরিকানরা অতি সহজেই পরিচিত। ডনাল্ড ট্রাম্প আমেরিকার প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সরে যাওয়ায় অনেকেই হয়তো খুশি। তবে খুশি নয় এই মার -এ- লাগোর বাসিন্দারা। এখানে অনেকগুলো রিসোর্ট রয়েছে। যেখানে আরামে থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। সিএনএন সূত্রে খবর, এই গোটা বিষয়টি নিয়ে ট্রাম্প একটি বই লিখতে চলেছিলেন। কিন্তু কেন ঐতিহাসিক লরেন্স লিমারের মতে, এই স্থানে প্রেসিডেন্টের একটি বাসস্থান ছিল। ট্রাম্প ধীর পদক্ষেপে যখন নিজের দায়িত্ব থেকে সরে গেলেন তখন কোথাও গিয়ে এখানকার বাসিন্দাদের মনেও যেন একটি দাগ পড়লো। এই স্থানে নতুন প্রেসিডেন্ট আসুক বা না আসুক করোনাকালে এই স্থানটির যে ক্ষতি হয়েছে তার থেকে বের করে আনার জন্যই বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছিলেন ডনাল্ড ট্রাম্প। তবে সবই এখন অতল জলের গভীরে। ট্রাম্প যদি এখানে থাকতেন তবে এই স্থানটির জন্য পর্যটকরা ২ লক্ষ পাউন্ড দিতেন। যা এখানকার ব্য...
পৌষেও মিলবে সুমিষ্ট আম

পৌষেও মিলবে সুমিষ্ট আম

লাইফস্টাইল
প্রাইম ডেস্ক : জৈষ্ঠ্য মাসের মধুফল আম যদি পৌষের শিশিরে ভিজে থাকে তাহলে একটু আশ্চর্য হতেই হবে। চোখ কপালে উঠলেও সত্যটা এমনি যে, বগুড়ায় এখন বারোমাসি আম চাষ শুরু হয়েছে। জেলার শেরপুর উপজেলায় ৩ বন্ধু মিলে প্রায় ১৮ বিঘা জমিতে প্রায় ৯ হাজার বারোমাস আম চাষ করে ফলন পেতে যাচ্ছে। শীতকালেও আম চাষে সফলতা পাওয়ায় এলাকায় আম দেখতে ভিড় করছে সাধারণ মানুষ। বারোমাসি আম বাগানটি গড়ে উঠেছে বগুড়ার শেরপুর উপজেলার খামারকান্দি ইউনিয়নের মাগুড়াতাইর গ্রামে। প্রায় চল্লিশ বিঘা জমির ওপর গড়ে তোলা হয়েছে এই মিশ্র ফলের বাগান। এরমধ্যে আঠার বিঘাতে জমিতে বারোমাসি আম চাষ করা হয়েছে। সেখানে নয় হাজার আমের গাছ রয়েছে। সেসব গাছে মুকুল ধরেছে। আবার কোন কোন গাছে আম ঝুলছে। কোন গাছে কাঁচা আবার কোন গাছে পাকা আম। বারোমাসি এই বাগানচি গড়ে তুলেছে তিন বন্ধু মামুন রশিদ, সোহেল রেজা ও শহিদুল। এরমধ্যে মামুন ও সোহেল মাস্টার্স পাস করেছেন। আর এইচএসস...
বিদ্যালয় জুড়েই সবুজের ছায়া

বিদ্যালয় জুড়েই সবুজের ছায়া

লাইফস্টাইল, সারাদেশ
শ্রীপুর প্রতিনিধি : “নির্মল বায়ু, দীর্ঘ আয়ু” এ বিশ্বাসকে লালন করে গাজীপুরের শ্রীপুরে হাজী আব্দুল কাদের প্রধান উচ্চ বিদ্যালয়কে গ্রীণ ক্যাম্পাসে পরিনত করেছেন শিক্ষক কর্মচারীরা। করোনাকালে বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় তেমন কোন কাজ ছিল না শিক্ষকদের,এ সুযোগ ও মুজিব বর্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বৃক্ষরোপনের আহবানে এ সবুজ ক্যাম্পাস গড়ে তুলেন তারা। বিদ্যালয় জুড়েই এখন সবুজের সমারোহ। দেশী বিদেশী ফুল, ফল ও ঔষধি উদ্ভিদে পরিপূর্ণ এ বিদ্যালয়ের ছাদ বাগানের নজর এখন সবার দৃষ্টি জুড়েই। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের ভাষ্য মতে, জেলার শ্রীপুর উপজেলার হায়াতখার চালা গ্রামে এই বিদ্যালয়টি ১৯৭৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।  বর্তমানে ৬৭৩ জন শিক্ষার্থী অধ্যয়ণরত রয়েছে এ বিদ্যালয়ে। অবকাঠামোগত তেমন উন্নয়ন না হলেও শিক্ষক, কর্মচারীদের প্রচেষ্ঠায় গত ২ বৎসর পূর্বেই বিদ্যালয়টি শতভাগ তথ্যপ্রযুক্তির আওতায় চলে আসে। শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের বায়োমেট্রিক হাজি...
ওজন কমাতে সাহায্য করে আমলকী!

ওজন কমাতে সাহায্য করে আমলকী!

লাইফস্টাইল
প্রাইম ডেস্ক : ওজন কমানো নিয়ে অনেকেই চিন্তিত। হাজার হাজার টাকা খরচ করে অনেকেই মেদ ঝরাতে পারছেন না। চিন্তা নাই হাতের নাগালে আছে এমন ফল যা খেলে মেদ ঝরবেই। আপনার সেই কাঙ্ক্ষিত ফল হলো আমলকী। পুষ্টি বিজ্ঞানীদের মতে, আমলকীতে পেয়ারা ও কাগজি লেবুর চেয়ে ৩ গুণ ও ১০ গুণ বেশি ভিটামিন 'সি' রয়েছে। কমলালেবুর চেয়ে ২০ গুণ, আমের চেয়ে ২৪ গুণ এবং কলার চেয়ে ৬০ গুণ বেশি ভিটামিন 'সি' রয়েছে। আমলকীর পাতাও ওষুধ হিসেবে ব্যবহার করা হয়। প্রতিদিন সকালে আমলকী খেলে ওজন কমবে ঝটপট। পাশাপাশি শরীর ঠাণ্ডা রাখে, পেশী মজবুত করে, হৃদযন্ত্র ও ফুসফুস ভাল রাখে, মস্তিষ্কের শক্তিবর্ধক করে। চুল ভাল রাখতে আমলকীর বেশ উপকারী। চুলের গোড়া মজবুত করে, খুসকির সমস্যা দূর করে, পাকা চুলও প্রতিরোধ করে। চুলের বৃদ্ধিতেও সাহায্য করে আমলকী। আমলকী হজমশক্তি বাড়ায়। বদহজম, কোষ্ঠকাঠিন্য ও পাইলসের সমস্যাও দূর করে। এজন্য এক গ্লাস...
গ্যাসের ব্যথা নাকি হার্টের, বুঝে নিন এই উপায়ে

গ্যাসের ব্যথা নাকি হার্টের, বুঝে নিন এই উপায়ে

লাইফস্টাইল
প্রাইম ডেস্ক : বুকে হওয়া হঠাৎ ব্যথাকে অনেকেই গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা ভেবে ভুল করেন। কেউ ভাবতেই চায় না যে এই ব্যথা হার্টেরও হতে পারে। এমন হলে প্রথমে ব্যথার ধরন বুঝতে এবং সতর্কতার সঙ্গে চিকিৎসা নিতে হবে- হার্টের ব্যথার লক্ষণসমূহ জেনে নিন- কিছু উপসর্গ আছে, যা হলে মনে করতে হবে হার্টের কোনো সমস্যার কারণে তা হচ্ছে এবং রোগী হার্ট অ্যাটাকের দিকে যাচ্ছে।  যেমন- > হার্টের সমস্যার কারণে ব্যথা হলে তা বুকের একেবারে মাঝখানে চাপ ধরা ব্যথা বা বুকের মধ্যে কিছু চেপে আছে এমনটি মনে হবে। > হাঁটলে বা সিঁড়ি ভাঙলে বুকের এই চাপ ধরা ভাব বেড়ে যাবে। > ব্যথা ধীরে ধীরে চোয়াল, ঘাড় বা পিঠের দিকে চলে যেতে পারে। একে বলে অ্যানজাইনাল পেইন। > শরীর প্রচণ্ড ঘেমে যাবে। > কোনো ক্ষেত্রে শ্বাসকষ্ট হতে পারে। > মুখের রং ফ্যাকাসে বা কালচে হয়ে যেতে পারে। > ক্রমান্বয়ে হাত-পা ঠাণ্ডা হয়ে ...
মনপুরা হচ্ছে সূর্যদ্বীপ

মনপুরা হচ্ছে সূর্যদ্বীপ

বিনোদন, লাইফস্টাইল
প্রাইম ডেস্ক : প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাক্ষেত্র মেঘনার মোহনায় জেগে ওঠা মনপুরা হচ্ছে দেশের প্রথম সূর্য দ্বীপ। এখানে রাতের সব বাতিই জ্বলবে দিনের সূর্যের আলোতে। শতভাগ নবায়নযোগ্য জ্বালানিতে মনপুরায় বিদ্যুত সরবরাহের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এজন্য মনপুরায় তিনটি মিনি গ্রিডের সঙ্গে নির্মাণ করা হচ্ছে একটি তিন মেগাওয়াটের সৌর বিদ্যুত কেন্দ্র। দিনের বিদ্যুতের চাহিদা মেটানোর সঙ্গে সঙ্গে রাতের চাহিদা মেটানোর জন্য ব্যাটারি চার্জ করে রাখা হবে। বিদ্যুতের আলো জ্বলে ওঠাতে উপকূলের জীবনে বছর কয়েক আগেই লেগেছিল উন্নয়নের ছোঁয়া। শিক্ষা, স্বাস্থ্য এবং কর্মসংস্থানে বিদ্যুতের স্পর্শ জাদুর কাঠির মতোই কাজ করেছে। উপকূলের এই উন্নয়নের ছোঁয়া পর্যটন শিল্পেরও ব্যাপক প্রসারের সম্ভাবনা সৃষ্টি করেছে। এবার মনপুরাতে যা আরও বিস্তৃত হওয়ার আশা জাগাচ্ছে। মনপুরাতে দুই হাজার ৫০০ গ্রাহককে সোলার মিনি গ্রিডের মাধ্যমে বিদ্যুত বিতরণ করা হচ্...