শিক্ষাঙ্গন

প্রাথমিকেও বিষয়ভিত্তিক শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে

প্রাথমিকেও বিষয়ভিত্তিক শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকদের নিয়ে নতুন একটি কার্যক্রম বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে। নতুন এ কার্যক্রমের আওতায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিষয়ভিত্তিক শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে। এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম আল হোসেন। তিনি বলেন, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিষয়ভিত্তিক শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে। প্রশিক্ষণ দেয়া হবে বাংলা, ইংরেজি ও গণিতে। বর্তমানে যেসব শিক্ষক কর্মরত রয়েছেন, তাদের বাড়তি প্রশিক্ষণ দিয়ে বিশেষ একটি বিষয়ে পারদর্শী করা হবে। এরপর তারা সম্পূরক বিষয়ে ক্লাস নেবেন। বিষয়টি আগামী জুলাই মাস থেকে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কাজ চলছে। সচিব বলেন, বিজ্ঞানের জন্য আলাদা শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে। এ কারণে শিক্ষক নিয়োগ নীতিমালায় আলাদাভাবে বিজ্ঞান বিষয়ের শিক্ষক নিয়োগের বিষয়টি যুক্ত করা হয়েছে।
একাদশে ভর্তির জন্য মনোনীত ১৩ লাখ ১৮ হাজার ৮৬৬ জন

একাদশে ভর্তির জন্য মনোনীত ১৩ লাখ ১৮ হাজার ৮৬৬ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক : একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য মনোনীতদের তালিকা প্রকাশ করেছে সরকার। কলেজে ভর্তির ওয়েবসাইটে সোমবার এই তালিকা প্রকাশ করা হয়। প্রথম পর্যায়ে ভর্তির জন্য ১৩ লাখ ১৮ হাজার ৮৬৬ জনকে মনোনীত করা হয়েছে। প্রথম পর্যায়ে আবেদন করেছিলো ১৪ লাখ ১৫ হাজার ৮৭৬ জন শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে ৯৭ হাজার ১০ জন ভর্তির জন্য কলেজ পায়নি। ঢাকা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক মো. হারুন-আর-রশিদ জানিয়েছেন মনোনীতদের ১৮ জুনের মধ্যে এসএমএসের মাধ্যমে জানাতে হবে তারা কোন কলেজে ভর্তি হতে চায়। এরপর প্রথম পর্যায়ে মনোনীত শিক্ষার্থীদের ২৭ থেকে ৩০ জুনের মধ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হতে হবে। ভর্তির জন্য মনোনীত শিক্ষার্থীরা রোল এবং রেজিস্ট্রেশন নম্বর দিয়ে ওয়েবসাইট থেকে ফল জানতে পারবে। এছাড়া তাদের মোবাইলে এসএমএস করেও ফল জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। প্রথম দফায় যারা কলেজ পায়নি, তারা দ্বিতীয় দফায় আবেদনের সুযোগ পাবে জানিয়ে অধ্যাপক হার
এ বছর ঝরে পড়ার আশঙ্কায় প্রায় ২ লাখ শিক্ষার্থী

এ বছর ঝরে পড়ার আশঙ্কায় প্রায় ২ লাখ শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক : মাধ্যমিকে উত্তীর্ণ হলেও এবার একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হতে এখনও আবেদন করেননি ২ লাখ ৪২ হাজার ৪২ জন শিক্ষার্থী। ভর্তি আবেদন না করা এই শিক্ষার্থীদের বেশিরভাগই ঝরে পড়বে বলে মনে করছেন বোর্ড কর্মকর্তারা। ঢাকা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক মো. হারুন-আর-রশিদ জানান, '১২ থেকে ২৩ মে রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত মোট অনলাইন ও এসএমএসের মাধ্যমে ১৪ লাখ ১৫ হাজার ৮২৫ জন শিক্ষার্থী কলেজে ভর্তি হতে আবেদন করেছেন। আর ভর্তির জন্য এখনো আবেদন করেননি ২ লাখ ৪২ হাজার ৪২ শিক্ষার্থী।' জানা যায়, ২০১৯ সালে মাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষায় ১৭ লাখ ৪৯ হাজার ১৬৫ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হন। এর মধ্যে কারিগরি বোর্ড থেকে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৯১ হাজার ২৯৮ জন। অন্যান্য বোর্ড থেকে উত্তীর্ণ হয়েছেন ১৬ লাখ ৫৭ হাজার ৮৬৭ জন। তবে এদের মধ্যে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হতে আবেদন করেছেন ১৪ লাখ ১৫ হাজার ৮২৫ জন। যাদের মধ্যে ১০ লাখ ৫২ হাজার ১
একাদশে শ্রেণিতে ভর্তি শুরু কার্যক্রম রোববার

একাদশে শ্রেণিতে ভর্তি শুরু কার্যক্রম রোববার

প্রাইম ডেস্ক : এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি প্রক্রিয়ার কার্যক্রম শুরু হচ্ছে রোববার (১২ মে)। ওইদিন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বেলা ১২টায় ঢাকা শিক্ষা বোর্ড মিলনায়তনে অনলাইনে একাদশ শ্রেণির ভর্তি কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন। আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটির সভাপতি ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মু. জিয়াউল হক এ তথ্য জানিয়ে বলেন, এরপর থেকে শিক্ষার্থীরা অনলাইন এবং এসএমএসে আবেদন করতে পারবেন। ভর্তি নীতিমালা অনুযায়ী, ১২ মে থেকে অনলাইন ও এসএমএসে আবেদন গ্রহণ শুরু হয়ে চলবে ২৩ মে পর্যন্ত। আর জুন মাসের মধ্যে ভর্তির কাজ শেষ করে আগামী ১ জুলাই থেকে ক্লাস শুরু হবে। নীতিমালা অনুযায়ী, আটটি সাধারণ বোর্ড, মাদ্রাসা ও কারিগরি বোর্ড থেকে ২০১৭, ২০১৮ ও ২০১৯ সালে উত্তীর্ণরা একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হতে পারবেন। আর উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভর্তি
প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা, কোন জেলায় কবে

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা, কোন জেলায় কবে

প্রাইম ডেস্ক : সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা আগামী ২৪ মে থেকে শুরু হতে যাচ্ছে। চার ধাপে অনুষ্ঠিত হবে এবারের পরীক্ষা। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে। আগামী ২৪ ও ৩১ মে এবং ১৪ ও ২১ জুন সকাল ১০টায় পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। দেশের বিভিন্ন জেলায় যে তারিখে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে তার সিডিউল দেয়া হলো- ২৪ মে অনুষ্ঠিত হবে যেসব জেলায় পরীক্ষা: ভোলা, পবনা, জয়পুরহাট ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও মানিকগঞ্জ জেলার সব উপজেলায় একযোগে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া গোপালগঞ্জের কোটালিপাড়া ও সদর উপজেলা; শরীয়তপুরের গোসাইরহাট, নড়িয়া ও ভেদরগঞ্জ উপজেলা; মাদারীপুরের সদর ও রাজৈর উপজেলা; ফরিদপুরের চরভদ্রাসন, আলফাডাঙ্গা, সদরপুর, সালথা ও সদর উপজেলা; নরংসিংদীর মনোহরদী, রায়পুরা ও বেলাবো উপজেলা; কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর, অষ্টগ্রাম, করিমগঞ্জ, কাটিয়াদি, পাকুন্দিয়া ও তারাইল উ
এসএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশ ৬ মে

এসএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশ ৬ মে

প্রাইম ডেস্ক : মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষার ফল আগামী ৬ মে সোমবার প্রকাশ করা হবে। আজ শুক্রবার (৩ মে) সংবাদ মাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব মো. সোহরাব হোসাইন। ৬ মে সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি এই ফল প্রকাশ করবেন। সেখানেই শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যানেরা শিক্ষামন্ত্রীর হাতে ফলাফলের অনুলিপি তুলে দেবেন। আগে প্রথমে প্রধানমন্ত্রীর হাতে ফলাফলের অনুলিপি তুলে দেয়া হতো। এরপর শিক্ষামন্ত্রী সংবাদ সম্মেলন করে ফলাফলের বিস্তারিত জানাতেন। কিন্তু এবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লন্ডন সফরে থাকায় তা হচ্ছে না।  এবার এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় মোট ২১ লাখ ৩৫ হাজার ৩৩৩ শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে ১০ লাখ ৬৪ হাজার ৮৯২ জন ছাত্রী এবং ১০ লাখ ৭০ হাজা
এমপিওভুক্ত হচ্ছে ২৫০০ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

এমপিওভুক্ত হচ্ছে ২৫০০ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

প্রাইম ডেস্ক : চলতি মাসের মধ্যে আড়াই হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্তি (মাসিক বেতন-ভাতার সরকারি অংশ) কার্যক্রম চূড়ান্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এর আগে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে এমপিওভুক্তির দাবিতে আন্দোলন করে আসছিলেন শিক্ষকরা। এই দাবির পরিপ্রেক্ষিতে সরকার সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এমপিওভুক্তির আশ্বাস দেয়। আর আশ্বাসের পরিপ্রেক্ষিতেই নতুন করে এমপিওভুক্ত করা হচ্ছে ২৫০০ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে। সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এক প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এমপিওভুক্তির ব্যাপারে গতবছর চারটি ক্রাইটেরিয়া ঠিক করে অনলাইনে আবেদন নেওয়া হয়েছিল। প্রতিষ্ঠানগুলো যে তথ্য দিয়েছে, সেই তথ্যের ভিত্তিতে সম্পূর্ণভাবে স্বয়ংক্রিয় কম্পিউটারাইজড পদ্ধতিতে আমরা ওই যোগ্যতাগুলোর নিরিখে যোগ্য প্রতিষ্ঠান নিরূপণ করেছি। সেটির সংখ্যা আড়াই হাজারের কিছু বেশি বা কাছাকাছ
শিক্ষা ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা ফেরাতে সারাদেশে স্বতন্ত্র পরীক্ষা ভবন নির্মাণ করছে সরকার

শিক্ষা ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা ফেরাতে সারাদেশে স্বতন্ত্র পরীক্ষা ভবন নির্মাণ করছে সরকার

প্রাইম ডেস্ক : বর্তমান সরকারের দৃঢ় প্রচেষ্টায় শিক্ষা ব্যবস্থায় আসছে আমূল পরিবর্তন। প্রশ্নপত্র ফাঁস, নকল থেকে মুক্তি, পরীক্ষা কেন্দ্র শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনাসহ সুষ্ঠু শিক্ষা ব্যবস্থা প্রণয়নে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছে সরকার। সারাদেশে উপজেলা পর্যায়ে আলাদা পরীক্ষা কেন্দ্র নির্মাণ করা হচ্ছে। এরই মধ্যে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি) এবং শিক্ষা প্রকৌশল অধিদফতরকে (ইইডি) এ কাজ বাস্তবায়নের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তথ্যসূত্র বলছে, যেকোনো বোর্ড পরীক্ষা সম্পন্ন করতে দেশের অন্তত ৫ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কেন্দ্র ও ভেন্যু করতে হয়। যেসব স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসায় পরীক্ষা নেয়া হয় সেখানে সর্বনিম্ন ১ মাস থেকে সর্বোচ্চ পৌনে ৩ মাস ক্লাস বন্ধ থাকে। শুধু তাই নয়, ডিগ্রি, অনার্স-মাস্টার্স এবং প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) ও জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষা গ্রহণের জন্য কোনো কোনো শিক্ষা
প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ : যোগ্যতা বাড়ল নারী শিক্ষকদের

প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ : যোগ্যতা বাড়ল নারী শিক্ষকদের

নিজস্ব প্রতিবেদক : সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক হতে পুরুষদের পাশাপাশি এখন থেকে নারী প্রার্থীদেরও শিক্ষাগত যোগ্যতা স্নাতক হতে হবে। এমন বিধান রেখে আগের বিধিমালা সংশোধন করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা, ২০১৯ জারি করেছে। এতদিন এইচএসসি পাসের সনদ থাকা নারীরা প্রাথমিকের শিক্ষক হতে পারতেন। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব আকরাম-আল-হোসেন মঙ্গলবার বলেন, “শিক্ষক নিয়োগে এখন নারী-পুরুষ সবার যোগ্যতাই স্নাতক করা হয়েছে।” প্রাথমিকের শিক্ষকদের নিয়োগ যোগ্যতা উন্নীত হওয়ায় তাদের বেতন গ্রেড উন্নীতকরণে কাজ চলছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। বাংলাদেশে বর্তমানে ৬৫ হাজার ৫৯৩টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানে আগের মতোই সরাসরি এবং পদোন্নতির মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে। নতুন বিধিমালায় সহকারী শিক্ষক ও প্রধান শিক্ষকদের নিয়োগ যোগ্যতা নির্ধারণ করা হয়েছ
এইচএসসির ৫ দিনের পরীক্ষার সূচি বদল

এইচএসসির ৫ দিনের পরীক্ষার সূচি বদল

নিজস্ব প্রতিবেদক : এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার পাঁচ দিনের সূচির বদল হয়েছে। আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটি এ তথ্য জানায়। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে জানানো হয়েছে, ২০১৯ সালের এইচএসসি পরীক্ষার প্রকাশিত সময়সূচির আংশিক পরিবর্তন করা হয়েছে। সেখানে উল্লেখ করা হয়েছে, ১৭ এপ্রিলের পরীক্ষাগুলো ৯ মে বিকালে, ১৮ এপ্রিলের পরীক্ষা ১১ মে বিকালে এবং ২২ এপ্রিলের পরীক্ষা ১২ মে বিকালে নেওয়া হবে। এছাড়া ৪ মে এবং ৬ মের পরীক্ষা একই দিন সকালের পরিবর্তে বিকালে নেওয়া হবে। শবে বরাতের কারণে এক দিনের এবং পরীক্ষাগুলো পাশাপাশি পড়ে যাওয়ায় শিক্ষার্থীদের সুবিধার দিক হিসেব করে অন্য চারদিনের পরীক্ষা সূচি বদলে দেওয়া হয়েছে। গত ১ এপ্রিল থেকে শুরু এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় এবার ১৩ লাখ ৫১ হাজার ৫০৫ জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে।