শিক্ষাঙ্গন

৩১ ডিসেম্বর জেএসসি-পিইসির ফল প্রকাশ

৩১ ডিসেম্বর জেএসসি-পিইসির ফল প্রকাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক : জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি), জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি), প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার ফল প্রকাশ হতে পারে বছরের শেষ দিন, অর্থাৎ ৩১ ডিসেম্বর। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সুত্রে এমন তথ্যা জানা গেছে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাবের ভিত্তিতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ৩১ ডিসেম্বর ফল প্রকাশের নীতিগত সিদ্ধান্তের কথা জানা গেছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব সো. সোহরাব হোসেন জানান, আমরা ২৯ থেকে ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ফল প্রকাশের জন্য তারিখ চেয়েছিলাম। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ৩১ ডিসেম্বরের বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে মন্ত্রণালয়কে এখনও লিখিতভাবে এ তারিখের ব্যাপারে জানানো হয়নি। চলতি বছরের জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা শুরু হয় ২ নভেম্বর। বিদেশের ৯টিসহ দেশের ২ হাজার ৯০৩টি কেন্দ্রে একযোগে এ পরীক্ষা শুরু হয়। জেএসসিতে ৭টি
ডিগ্রি পরীক্ষা শুরু রোববার

ডিগ্রি পরীক্ষা শুরু রোববার

নিজস্ব প্রতিবেদক : চলতি বছরের ডিগ্রি পাস ও সার্টিফিকেট কোর্স ১ম বর্ষ এবং ২০১৭ সালের ডিগ্রি পাস ও সার্টিফিকেট কোর্স (পুরোনো সিলেবাস) পরীক্ষা আগামী রোববার থেকে শুরু হবে। আজ শুক্রবার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ, তথ্য ও পরামর্শ দপ্তরের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মো. ফয়জুল করিম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এ বছর সারা দেশ থেকে এসব পরীক্ষায় অংশ নিবে ২ লাখ ৬৫ হাজার শিক্ষার্থী। ২৪ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া এই পরীক্ষা চলবে ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত। প্রতিদিন পরীক্ষা শুরু হবে বেলা ১টা থেকে। শুক্রবার ও সরকারি ছুটির দিন পরীক্ষা বন্ধ থাকবে।
সরকার কারিগরি শিক্ষাকে যুগোপযোগী করে গড়ে তুলেছে              

সরকার কারিগরি শিক্ষাকে যুগোপযোগী করে গড়ে তুলেছে             

নিজস্ব প্রতিবেদক : পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি বলেছেন, বর্তমান সরকার কারিগরি শিক্ষাকে যুগোপযোগী করে গড়ে তুলেছে। একজন শিক্ষককে সময়মতো ক্লাসে এসে পাঠদান করাতে হবে। তবেই একজন ছাত্র মানুষ হয়ে প্রতিষ্ঠিত হবে। গতকাল শনিবার দুপুরে রাজশাহীর চারঘাটের মোজাহার হোসেন মহিলা ডিগ্রি কলেজ মাঠে বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতির বাঘা উপজেলা শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শিক্ষকদের ন্যায়সঙ্গত অধিকার ফিরিয়ে দেয়ার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন। সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন কলেজের অধ্যক্ষ নছিম উদ্দিন। উপাধ্যক্ষ ওয়াহেদ সাদীক কবিরের পরিচালনায় প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতির রাজশাহী জেলা শাখার সভাপতি শফিকুর রহমান বাদশা। বিশেষ অতিথি ছিলেন সম্পাদক অধ্যক্ষ রাজকুমার সরকার, বাঘা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা, উপজেলা
প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের ২ হাজার টাকা ভাতা দেবে সরকার

প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের ২ হাজার টাকা ভাতা দেবে সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদক : জাতীয় সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরী এমপি বলেছেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভর্তিতে প্রতিজন শিক্ষার্থীকে ২ হাজার টাকা করে ভাতা দেবে সরকার। বর্তমানে উপবৃত্তি, বিনামূল্যে বইসহ বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার পরও সরকার শিক্ষার্থীদের প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিত করতে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। আগামী বছর থেকে শিক্ষার্থীরা এ সুযোগ পাবে। এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের নিজেদের পোশাক তৈরি ও টিফিনের টাকার জন্য আর চিন্তা করতে হবে না। গত শনিবার চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার জিরি ইউনিয়নের হাজী মীর আহমদ সওদাগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান উপলক্ষে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ আবদুস সালামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পটিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা আ.লীগের সাংগঠ
প্রধান শিক্ষকদের ১১তম, সহকারীদের বেতন ১৩তম গ্রেডে

প্রধান শিক্ষকদের ১১তম, সহকারীদের বেতন ১৩তম গ্রেডে

নিজস্ব প্রতিবেদক : সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সব প্রধান শিক্ষক এখন থেকে ১১তম গ্রেডে ও সহকারী শিক্ষকগণ ১৩তম গ্রেডে বেতন পাবেন। ৭ নভেম্বর অর্থ মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠিয়েছে। শিক্ষকদের বিরাজমান বেতন বৈষম্য নিরসনে এ সিদ্ধান্ত জানিয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগ। নতুন নির্দেশনা অনুযায়ী, এখন থেকে সব প্রধান ‘শিক্ষক জাতীয় বেতন স্কেল, ২০১৫’ এর ১১তম গ্রেডে (১২৫০০-৩০২৩০ টাকা) এবং সব সহকারী শিক্ষক ১৩তম গ্রেডে (১১০০০-২৬৫৯০ টাকা) বেতন পাবেন। নতুন কাঠামোতে সহকারী শিক্ষকেরা বেতন গ্রেডে একধাপ এগিয়ে গেলেন। প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও প্রশিক্ষণবিহীন সহকারী শিক্ষকরা বেতন বৈষম্য নিরসনে আন্দোলন করে আসছিলেন। বেতন বৈষম্য নিরসনে গত ২৮ অক্টোবর অর্থ মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। অর্থ বিভাগের এই চিঠির পর প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও প্রশিক্ষণবিহীন প্র
প্রাইমারি স্কুলের সভাপতি হতে থাকতে হবে স্নাতক ডিগ্রি

প্রাইমারি স্কুলের সভাপতি হতে থাকতে হবে স্নাতক ডিগ্রি

নিজস্ব প্রতিবেদক : সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি হতে হলে ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা লাগবে স্নাতক ডিগ্রী। আর বিদ্যোৎসাহী দুই সদস্যের শিক্ষাগত যোগ্যতা অন্তত মাধ্যমিক পাস। এই শর্ত যুক্ত করে প্রাইমারী স্কুলের ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠনে নতুন নীতিমালা জারি করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের উপসচিব জাহানারা বেগম স্বাক্ষরিত নীতিমালাটি সোমবার প্রকাশ করা হয়েছে। এর আগে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটিতে সভাপতি হওয়ার জন্য শিক্ষাগত যোগ্যতার কোনো শর্ত ছিল না। নতুন নীতিমালা অনুযায়ী ১১ সদস্যের ব্যবস্থাপনা কমিটির মেয়াদ হবে ৩ বছর। কমিটির সদস্য সচিব থাকবেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। এছাড়া শিক্ষক প্রতিনিধি থাকবেন একজন। বিদ্যালয়ের জমিদাতা বা তার উত্তরাধিকারীদের মধ্য থেকে সদস্য থাকবেন একজন। উপজেলা শিক্ষা অফিসারের সিদ্ধান্তে এই সদস্য মনোনীত হবেন। অভিভাবকদের ম
১১ই নভেম্বর শুরু হচ্ছে জবির ১ম বর্ষের ভর্তি কার্যক্রম

১১ই নভেম্বর শুরু হচ্ছে জবির ১ম বর্ষের ভর্তি কার্যক্রম

নিজস্ব প্রতিবেদক : জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের চার বছর মেয়াদী স্নাতক (সম্মান) ও বিবিএ ১ম বর্ষে ইউনিট-১ (বিজ্ঞান শাখা), ইউনিট-২ (মানবিক শাখা), ইউনিট-৩ (বাণিজ্য শাখা), বিশেষায়িত ৪টি বিভাগ (সংগীত, চারুকলা, নাট্যকলা ও ফিল্ম এন্ড টেলিভিশন বিভাগ) এবং ইনস্টিটিউটভুক্ত বিভাগসমূহে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের ভর্তি কার্যক্রম আগামী ১১ই নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে। ১ম দফা মনোয়নপ্রাপ্তদের ১১ই নভেম্বর থেকে ১৭ই নভেম্বরের মধ্যে ভর্তি ফি জমা দান ও ১১ই নভেম্বর থেকে ১৮ই নভেম্বরের মধ্যে প্রয়োজনীয় সনদপত্রাদি জমা প্রদান করতে হবে। আসন শূন্য থাকা সাপেক্ষে ২য় দফা মনোনয়নপ্রাপ্তদের ২১ই নভেম্বর হতে ২৪ শে নভেম্বর পর্যন্ত ভর্তি ফি জমা প্রদান এবং ২১শে নভেম্বর হতে ২৫শে নভেম্বর পর্যন্ত প্রয়োজনীয় সনদপত্রাদি জমা প্রদান করতে হবে। আসন শূন্য থাকা সাপেক্ষে ৩য় দফা মনোনয়নপ্রাপ্তদের ২৮শে নভেম্বর হতে ১লা ডিসে
গফরগাঁওয়ে ৮টি কেন্দ্রে ৮১৭০পরিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রথম দিনে অনুপস্থিত ২৮১, বহিষ্কার-৫

গফরগাঁওয়ে ৮টি কেন্দ্রে ৮১৭০পরিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রথম দিনে অনুপস্থিত ২৮১, বহিষ্কার-৫

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : সারাদেশের ন্যায় গতকাল থেকে শুরু হওয়া অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের সমাপনী পরীক্ষা জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি), জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) ও ভোকেশনাল পরীক্ষায় গফরগাঁওয়ে ৮টি মুল কেন্দ্র ও ৫টি ভেন্যু কেন্দ্রে এবারে ৮১৭০পরিক্ষার্থী অংশ নেয়ার কথা থাকলেও প্রথম দিনে অনুপস্থিত ২৮১জন শিক্ষার্থী ও ৫ জন শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার ছাড়াও খায়রুল্লাহ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে একজন শিক্ষককে পরিক্ষার দায়িত্ব থেকে অব্যহতি দেওয়া হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মাহাবুব উর রহমান বলেন সুষ্ঠুভাবে ও নকলমুক্ত পরিবেশে পরীক্ষা পরিচালনার জন্য সকলের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন, তিনি আরোও বলেন, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে পরীক্ষা সম্পন্ন করার জন্য পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে কোন পরীক্ষার্থীকে নকলরত অবস্থায় পাওয়া গেলে সাথে সাথে সেই পরীক্ষার্থীকে বহিস্কার করা হবে। কোন শিক
১১ বছরে প্রাথমিক শিক্ষায় এসেছে যুগান্তকারী পরিবর্তন

১১ বছরে প্রাথমিক শিক্ষায় এসেছে যুগান্তকারী পরিবর্তন

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতা গ্রহণের পর পুরোপুরি পাল্টে গিয়েছে বাংলাদেশর শিক্ষা খাত। প্রাথমিকে ভর্তির হার প্রায় শতভাগ, পাশাপাশি স্কুল থেকে ঝরে পড়া কমেছে অনেকাংশেই। প্রাথমিকের এক কোটি ৩০ লাখ শিশু উপবৃত্তি পাচ্ছে। প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক স্তরেও অর্জিত হয়েছে জেন্ডার সমতা। কারিগরি শিক্ষায় বর্তমানে শিক্ষার্থীর হার ১৪ শতাংশ। প্রাক-প্রাথমিক, প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ের প্রায় চার কোটি শিশু বছরের প্রথম দিনে বিনা মূল্যে বই পাচ্ছে। সাক্ষরতার হার ১১ বছরে বেড়ে হয়েছে ৭৩ শতাংশ। গত সাড়ে ১১ বছরে সরকারের অন্যতম অর্জন সব শিশুর হাতে বছরের প্রথম দিনেই বিনা মূল্যের বই তুলে দেওয়া। প্রতি বছর চার কোটিরও বেশি শিক্ষার্থী ৩৬ কোটি বই পাচ্ছে বিনা মূল্যে। তবে এখন চ্যালেঞ্জ এসডিজি অর্জন। এ লক্ষ্যে ২০৩০ সালের মধ্যে সব শিশুকে প্রাক-শৈশব উন্নয়ন ও প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষার মাধ্যমে বেড়ে ওঠা
জেএসসি-জেডিসিতে অংশগ্রহণ করছে ২৬ লাখ ৬১ হাজার ৬৮২ শিক্ষার্থী

জেএসসি-জেডিসিতে অংশগ্রহণ করছে ২৬ লাখ ৬১ হাজার ৬৮২ শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামী ২ নবেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) এবং জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা। এবছর পরীক্ষায় বসবে ২৬ লাখ ৬১ হাজার ৬৮২ শিক্ষার্থী। এর মধ্যে জেএসসিতে ২২ লাখ ৬০ হাজার ৭১৬ জন ও জেডিসিতে ৪ লাখ ৯৬৬ জন শিক্ষার্থী অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে। মঙ্গলবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা-২০১৯ সংক্রান্ত এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এসব তথ্য তুলে ধরেন। গত বছরের তুলনায় এবার জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কমেছে। ২০১৮ সালে পরীক্ষার্থী ছিল ২৬ লাখ ৭০ হাজার ৩৩৩ জন। সেই হিসাবে পরীক্ষার্থী কমেছে প্রায় ৯ হাজার। সংবাদ সম্মেলনে দীপু মনি বলেন, এবার সারাদেশে মোট ২৯ হাজার ২৬২টি পরীক্ষা কেন্দ্রে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। গত বছর ২৯ হাজার ৬৭৭টি কেন্দ্রে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এবার সারাদেশে মোট ২৬ লাখ ৬১ হাজার ৬৮২ জন শিক্