শিল্প ও সাহিত্য

রোকেয়া পদক পেলেন বেবী মওদুদ

রোকেয়া পদক পেলেন বেবী মওদুদ

প্রাইম ডেস্ক : নারী উন্নয়নে অবদান রাখার জন্য এ বছর মরণোত্তর রোকেয়া পদক পেয়েছেন লেখক-সাংবাদিক এ এন মাহফুজা খাতুন (বেবী মওদুদ)। আজ শনিবার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে এই বছরের ‘রোকেয়া পদক’ তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এছাড়া চিত্রশিল্পী সুরাইয়া রহমান, লেখক শোভা রানী ত্রিপুরা, সংগঠক মাজেদা শওকত আলী, সমাজকর্মী মাসুদা ফারুক রত্নাও এবছর রোকেয়া পদক পেয়েছেন। বেবী মওদুদ ১৯৪৮ সালের ২৩ জুন কলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবা আবদুল মওদুদ ছিলেন একজন বিচারক। আর মায়ের নাম হেদায়েতুন নেসা। ছয় ভাই ও তিন বোনের মধ্যে তিনি ছিলেন তৃতীয়। ১৯৬৭ সাল থেকে সাংবাদিকতায় জড়িত বেবী মওদুদ দৈনিক সংবাদ, বিবিসি, দৈনিক ইত্তেফাক, বাসস ও সাপ্তাহিক বিচিত্রায় দীর্ঘদিন কাজ করার পর বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমে যোগ দেন। মুক্তিযুদ্ধের আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী থাকার দিনগুলোতেই পূর্ব পাকিস্তান ছাত্র ইউ
অনবদ্য ব্রিটিশ কারি অ্যাওয়ার্ডস ২০১৭

অনবদ্য ব্রিটিশ কারি অ্যাওয়ার্ডস ২০১৭

প্রাইম ডেস্ক : অসাধারণ সব পারফরম্যান্স, মনমাতানো বিনোদন, বিজয়ীদের উচ্ছ্বাস আর কারি শিল্পের সংকট নিরসনে জোরালো দাবি- সব মিলিয়ে ব্রিটিশ কারি অ্যাওয়ার্ডস আরও একবার জানান দিল কারি শিল্পের অন্য সব আয়োজনের চেয়ে এটি কেন আলাদা। প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে সশরীরে আসতে পারেননি। তবে চমক হিসেবে হাজির হয়েছেন ভিডিও বার্তায়। তিনি বলেছেন, ‘ব্রিটেনে কারি রেস্টুরেন্টগুলোর জনপ্রিয়তা এখন আর বিস্মিত হওয়ার মতো কোনো ঘটনা নয়। আজ যারা বিজয়ী, তারা নিঃসন্দেহে ব্রিটেনের সেরা।’ তেরেসা মে বিজয়ী রেস্টুরেন্টের উদ্যোক্তাদের অভিনন্দন জানান। ব্রিটিশ কারি অ্যাওয়ার্ডসের প্রতিষ্ঠাতা এনাম আলী এমবিই তার বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশ উন্নয়নের জন্য একটি অসাধারণ জায়গা। তিনি তার আমন্ত্রণে বাংলাদেশ সফরকালে সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের বাংলাদেশ সম্পর্কে উজ্জ্বল ধারণার কথা আরও একবার মনে করিয়ে দেন। এনাম আলী এমবিই তার বক্তেব্য
সাদাসিধে কথা , স্বপ্ন এবং দুঃস্বপ্ন

সাদাসিধে কথা , স্বপ্ন এবং দুঃস্বপ্ন

মুহম্মদ জাফর ইকবাল : শপিংমলের খোলা একটা জায়গায় একটি সুন্দর বসার জায়গা। সেখানে তেরো চৌদ্দ বছরের একজন কিশোরকে নিয়ে তার মা বসে আছেন। মায়ের বয়স খুব বেশি নয়, চেহারায় মার্জিত রুচিশীলতার ছাপ রয়েছে। কিশোরটিরও বুদ্ধিদীপ্ত চেহারা। মা হাসি হাসি মুখে তার ছেলেটিকে বললেন, ‘বাবা, ঐ যে কাপড়ের দোকানটা দেখছিস?’ ছেলে বলল, ‘হ্যাঁ, মা দেখছি।’ ‘ওখানে একজন মহিলা কেনাকাটা করছে দেখেছিস? ছেলে মাথা নাড়ল বলল, ‘হ্যাঁ মা, দেখছি।’ মা বললেন, ‘মহিলাটা তার ব্যাগ পাশে চেয়ারটার ওপরে রেখেছে’। ছেলে মাথা নাড়ল, ‘মা তখন বললেন, তুই গিয়ে ঐ ব্যাগটা নিয়ে ছুটে চলে আয়’। ছেলেটি একটু অবাক হয়ে বলল, ‘মানে ব্যাগটা চুরি করব?’ ‘হ্যাঁ, হ্যাঁ চুরি করবি।’ ‘তুমি আমার মা, তুমি আমাকে চুরি করতে বলছ?’ মা হাসি হাসি মুখে বলল, ‘তুই এতো অবাক হচ্ছিস কেন? সবাই চুরি করে।’ ‘যদি ধরা পড়ে যাই?’ সি সি ক্যামেরাতে ছবি উঠে যায়?’ ‘ধরা পড়বি কেন? আর সি
আজ হুমায়ূন আহমেদের জন্মদিন

আজ হুমায়ূন আহমেদের জন্মদিন

প্রাইম ডেস্ক : নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের আজ ৬৯তম জন্মদিন। এ উপলক্ষে টিভিতে প্রচারিত হবে বিশেষ অনুষ্ঠানমালা। শাহবাগের কেন্দ্রীয় পাবলিক লাইব্রেরি চত্বরে শুরু হচ্ছে ‘হুমায়ূন আহমেদের একক বইমেলা’। উদ্বোধন করবেন কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন, হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন ও ভাই আহসান হাবীব। গাজীপুরের নূহাশ পল্লীতে লেখকের জন্মদিন উপলক্ষে নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে রাত ১২টা ১ মিনিটে কেক কাটা, পুরো নূহাশ পল্লীকে আলোকসজ্জায় সজ্জিতকরণ ও মরহুমের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ। সকালে হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন তার ছেলে নিষাদ ও নিনিতকে নিয়ে নূহাশ পল্লীতে মরহুমের কবর জিয়ারত, দোয়া মাহফিলসহ বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নেবেন। এদিকে চ্যানেল আই ‘হুমায়ূন মেলা’র আয়োজন করেছে। আজ বিকাল ৩টা ৫ মিনিটে চ্যানেল আই চত্বরে দেশের বিশিষ্টজনেরা এ মেলার উদ্বোধন করবেন। হুমায়ূনের ভক্তদ
নোবেল ও প্রকৃত সাহিত্যের জয়

নোবেল ও প্রকৃত সাহিত্যের জয়

প্রাইম ডেস্ক : ইশিগুরো তার উপন্যাস ‘দ্য রিমেইনস অব দ্য ডে’ রচনা করেন ১৯৮৯ সালে। তিনি এ উপন্যাসের জন্য বিশ্বব্যাপী খ্যাতি লাভ করেন। এটির উপজীব্য খাবার পরিবেশনকারী এক ভৃত্যকে নিয়ে, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে একজন ইংরেজ মনিবের অধীনে ছিলেন। তার পরিচিত একজনের কাছ থেকে চিঠি পাওয়ার পর দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ-পূর্ববর্তী সময়ের স্মৃতিকাতরতায় ভোগেন তার গল্পের কাঠামোয় অনুরণন সৃষ্টি হয় ‘আমি’ শব্দ থেকে। বর্ণনাকারীর অনুধাবন ও বাস্তবতার মধ্যে দূরত্ব তৈরি করে তিনি সৃষ্টি করেন পাঠকের ভাবনার খোরাক। তাই বলা যায়, ইশিগুরোকে এবার নির্বাচন করে নোবেল কমিটি কিছুটা হলেও তাদের সম্মান রক্ষা করতে পেরেছে। বিশেষত কয়েক বছর রাজনৈতিক বিবেচনায় পুরস্কার দেয়ার অভিযোগ থেকে কিছুটা হলেও তারা রক্ষা পেয়েছে কাজু ইশিগুরো ১৯৫৪ সালে জাপানের নাগাসাকিতে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা ছিলেন একজন সমুদ্রবিজ্ঞানী। তার ৫ বছর বয়সে পরিবার ইংল্যান্ডে চলে যায়।
শুধু দেশে নয়, বিদেশেও সাহিত্য শাসনে হুমায়ূন

শুধু দেশে নয়, বিদেশেও সাহিত্য শাসনে হুমায়ূন

প্রাইম ডেস্ক : ফ্রাংকফুর্ট বইমেলায় বাংলাদেশের বেশ কয়েরকটি বইয়ের সত্ত্ব বিক্রি হয়েছে এবার৷ হুমায়ূন আহমেদ, সেলিনা হোসেন এবং সৈয়দ মনজুরুল ইসলামের লেখা বইয়ের সত্ত্ব বিক্রি হয়েছে৷ বিশ্বের সাত হাজারের বেশি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছিল৷ ফ্রাংকফুর্ট বইমেলা বিশ্বের বৃহত্তম বইমেলা, যেটাকে বইয়ের বাণিজ্য মেলা বলা যেতে পারে৷ এবারের মেলা শুরু হয়েছিল ১১ই অক্টোবর, চলেছে ১৫ই অক্টোবর পর্যন্ত৷ এই মেলায় কোনো বই বিক্রি হয় না৷ বিক্রি হয় বই বা প্রকাশনার সত্ত্ব৷ তাই মেলাটি মূলত বিভিন্ন প্রকাশনা সংস্থা, লেখক আর এজেন্টের মধ্যে একটি সেতুবন্ধন হিসেবে কাজ করে৷ এ কারণে প্রথম তিনদিন কোনো দর্শনার্থীকে প্রবেশ করতে দেয়া হয় না৷ তবে পরের দু'দিন সবার জন্য উন্মুক্ত৷ তবে এবারের বইমেলায় দর্শনার্থীর সংখ্যা আগের মেলাগুলোর তুলনায় অনেক বেশি ছিল বলে বিভিন্ন গণমাধ্যম জানিয়েছে৷ ফ্রাংকফুর্ট বইমেলায় এবার বাংল
আমার কবিতায়

আমার কবিতায়

মেহেদী হাসান রনী : একটি নদী আঁকতে চেয়েছিলাম। শব্দগুলো এঁকেবেঁকে, গর্জন করতে করতে হয়ে গেলো মস্ত এক অজগর! আমার কবিতায়- আঁকতে চেয়েছিলাম একটি শান্ত-স্নিগ্ধ গ্রাম। শব্দগুলো বড় বেহায়া, ভেঁপু বাজিয়ে, মেশিনে ঘটরঘটর শব্দ তুলে নিমেষেই হয়ে উঠলো যান্ত্রিক ব্যস্ত শহর! আমার কবিতায়- আঁকতে চেয়েছিলাম ফুটফুটে একদল শিশু, যারা শীতের রাতে নরম বিছানায় ঘুমায়। আমার চোখে ধূলো দিয়ে শব্দগুলো হয়ে গেলো হাড্ডিসার, এদের পেটে রাজ্যের ক্ষুধা, মাথার নিচে শক্ত ইট। আমার কবিতায়- একটি সভ্য পৃথিবী আঁকতে চেয়েছিলাম, আঁকতে চেয়েছিলাম তার সভ্যতা। আঁকতে গেলেই শব্দগুলো- আমায় বুড়ো আঙুল দেখিয়ে জামা-কাপড় ছেড়ে উলঙ্গ হয়ে গেলো! আমার কবিতায়- একটি নদী আঁকতে চেয়েছিলাম। শব্দগুলো বাঁক নিয়ে ঢেউ খেলতে খেলতে হয়ে গেলো নারী! আমার আঁকা হলোনা কিছুই। কবি: বিশ্বভারতী, শান্তিনিকেতন, পশ্চিমবঙ্গ, ভারত।
অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন মার্কিন অর্থনীতিবিদ থ্যালার

অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন মার্কিন অর্থনীতিবিদ থ্যালার

প্রাইম আন্তর্জাতিক : চলতি বছর অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার পেলেন মার্কিন অর্থনীতিবিদ রিচার্ড এইচ থ্যালার। সোমবার সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে নোবেল এ বিজয়ীর নাম ঘোষণা করেছে রয়্যাল সুইডিশ অ্যাকাডেমি অব সাইন্স। রয়্যাল সুইডিশ অ্যাকাডেমি অব সাইন্স বলছে, পৃথক সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে অর্থনীতি এবং মানসিক বিশ্লেষণের মধ্যে সেতু তৈরিতে অর্থনীতিবিদ থ্যালারের গবেষণা ব্যাপক অবদান রেখেছে। বিহ্যাভিয়রাল ইকোনমিকস বা আচরণগত অর্থনীতিতে অনন্য অবদানের জন্য থ্যালারকে এবার অর্থনৈতিক বিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত করা হচ্ছে। ৭২ বছর বয়সী থ্যালার বর্তমানে ইউনিভার্সিটি অব শিকাগো ও বুথ স্কুল অব বিজনেসের আচরণগত বিজ্ঞান ও অর্থনীতির অধ্যাপক। তিনি বিশ্বব্যাপী পরিচিতি লাভ করেন আচরণগত অর্থনীতির তাত্ত্বিক হিসেবেই। ১৯৬৯ সাল থেকে ২০১৭ সাল প্রর্যন্ত ৪৮ বার অর্থনীতিতে এ পুরস্কার দেয়া হয়। ২৪ বার মাত্র একজন করে অর্থনীতির নোবেল প
সাহিত্যে নোবেল পেলেন কাজুরো ইশিগুরো

সাহিত্যে নোবেল পেলেন কাজুরো ইশিগুরো

প্রাইম ডেস্ক : এ বছর সাহিত্য নোবেল পেলেন জাপানী বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ উপন্যাসিক ও ছোটগল্পকার কাজুরো ইশিগুরো। সুইডেনের স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার দুপুর ১ টায় সুইডিশ অ্যাকাডেমি পুরস্কার বিজয়ী হিসেবে তার নাম ঘোষণা করে। সাহিত্যে নোবেল বিজয়ী ১১৪তম লেখক হিসেবে তার নাম ঘোষণা করে রয়্যাল সুইডিশ অ্যাকাডেমি।সুইডিশ অ্যাকাডেমি ইশিগুরোর উপন্যাসগুলোকে অসাধারণ আবেগিক শক্তিসম্পন্ন বলে প্রশংসা করেছে। প্রসঙ্গত, সাহিত্যে নোবেল জয়ী ব্যক্তিত্ব বেছে নেওয়ার দায়িত্ব পালন করে থাকে সুইডিশ অ্যাকাডেমি। এর স্থায়ী সেক্রেটারি সারা ডেনিয়াস ইশিগুরোর লেখাগুলোতে জেন অস্টেন ও ফ্রাঞ্জ কাফকার লেখনীর মিশ্রন বলে আখ্যা দিয়েছেন। ইশিগুরোর লেখা জনপ্রিয় উপন্যাসগুলোর মধ্যে রয়েছে দ্য রিমেইনস অব দ্য ডে এবং নেভার লেট মি গো।সারা ডেনিয়াস জানান, তার কাছে ইশিগুরোর লেখা সবথেকে পছন্দের উপন্যাসটা হলো দ্য বেরিড জায়ান্ট। তবে, রিমেইন্স অব দ্য ডে’কে সত্য
এখনো শুনতে পাই বারুদের গন্ধ

এখনো শুনতে পাই বারুদের গন্ধ

অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান চৌধুরী : এখনো আমি বারুদের গন্ধ অনুভব করি, এখনো আমি লাশের মিছিলে গ্রেনেডের আঘাতে ক্ষত বিক্ষত রক্ত মাংসের উপর জল্লাদের নগ্ন উল্লাস দেখি, স্পিন্টারের যন্ত্রনায় দগ্ধ শব্দহীন মুখগুলি এখনো দেখি দুঃস্বপ্নের মতো; ফেরাউন ইবলিশ রাবণের কথা কি  মনে আছে এখনো নাকি ভুলে গেছো সেই মহাপ্রলয়ের দিন, বীভৎস চিৎকার? হারানোর বেদনা ভারী হয় কম্পিত হয় খোদার আরশ আর থেমে যাওয়া ইতিহাস মরচে ধরা কাগজকে কাছে টেনে বলে বাঙালিরা  যেমন দেশপ্রেমিক হয় তেমনি ক্রীতদাসও  হতে পারে, সব সম্ভবের দেশ যেন আজব চোখে চশমা লাগায় বিশ্বাস ঘাতকরা তাই বার বার জন্মায় বাংলাকে বানাতে চাই মৃত্যুপুরী মৃতদের শহর | ঘাতকের গ্রেনেডের নির্মম  আঘাতে জঙ্গিবাদ মাথা চাড়া দেয়, নিস্তব্ধ করে দিতে চায় মাতৃভূমির অস্তিত্বকে লাশের পরে লাশ আকাশ স্তম্ভিত   হয় রক্তে ভেজা লাশের গন্ধে, রক্ত মাটিতে লুটায়, ছোপ ছোপ লাল