স্বাস্থ্য

স্বাস্থ্যসেবায় আমরা ভারত থেকে এগিয়ে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্বাস্থ্যসেবায় আমরা ভারত থেকে এগিয়ে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে প্রথমবারের মতো জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইনের জাতীয় কর্মসূচির উদ্বোধন হয়েছে পাবনায়। শনিবার (১৪ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১টায় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট পাবনা জেনারেল হাসাপাতালে কয়েকটি শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর মাধ্যমে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনার কারণে দেশে স্বাস্থ্য বিভাগে অবকাঠামোগত উন্নয়নসহ স্বাস্থ্যসবার ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব সাফল্য অর্জিত হয়েছে। স্বাস্থ্যসবায় বাংলাদেশ ভারত, পাকিস্তান, নেপাল, ভুটান, মালদ্বীপের চেয়ে এগিয়ে আছে। তিনি বলেন, মিয়ানমারের নির্মমতার কারণে বাংলাদেশে ১০ লাখ রোহিঙ্গা প্রবেশ করে। অনেক দেশ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিতে রাজি হয়নি। কিন্তু
সরকারের স্বাস্থ্যসেবা উন্নয়নে কমিউনিটি ক্লিনিক

সরকারের স্বাস্থ্যসেবা উন্নয়নে কমিউনিটি ক্লিনিক

নিজস্ব প্রতিবেদক  : বর্তমান সরকারের অনেক উন্নয়নমূলক কাজ রয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম হলো কমিউনিটি ক্লিনিক। কমিউনিটি ক্লিনিকের ধারণাটি বর্তমান প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার চিন্তা থেকে এসেছে। দেশে কমিউনিটি ক্লিনিক স্বাস্থ্যসেবা গ্রাম পর্যায়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। স্বাস্থ্য সহকারীরা তাদের দক্ষতা ও অভিজ্ঞতার আলোকে কমিউনিটি ক্লিনিকে সেবা প্রদান করছেন। তারা দেশের তৃণমূল পর্যায়ে দরিদ্র মানুষের কাছে স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিচ্ছেন। স্থানীয় জনগণের প্রতিনিধিরা এই স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র পরিচালনায় অংশ নিচ্ছেন। বর্তমানে দেশে ১৩ হাজারের বেশি কমিউনিটি ক্লিনিক রয়েছে। এসব ক্লিনিকের মাধ্যমে মা ও শিশুর স্বাস্থ্যসেবা, প্রজননস্বাস্থ্য, পরিবার পরিকল্পনাসেবা, টিকাদান কর্মসূচি, পুষ্টি, স্বাস্থ্যশিক্ষা, পরামর্শসহ বিভিন্ন সেবা প্রদান করা হয়। স্থানীয় পর্যায়ে কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে শিশুস্বাস্থ্য উন্নয়নে  ক
সমাজ কি তাহলে চূড়ান্ত ধ্বংসের পথে?

সমাজ কি তাহলে চূড়ান্ত ধ্বংসের পথে?

 ডা. তারাকী হাসান মেহেদী  : বাচ্চা পেটে আসার ২৮ সপ্তাহের মধ্যে বাচ্চা নষ্ট করলে সেটাকে এবরশন বা গর্ভপাত বলে। আমাদের দেশে আইন অনুযায়ী, এবরশন বা গর্ভপাত নিষিদ্ধ হলেও এর সংখ্যা দিনে দিনে আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে। শুধুমাত্র ২০১৪ সালেই দেশে প্রায় ১২ লাখ এবরশন করানো হয়। (সূত্র: গুটম্যাকার, ২০১৭)। সবচেয়ে চিন্তার দিক হল, এবরশন পরবর্তী জটিলতায় মাতৃমৃত্যুর হারও বাড়ছে। ২০১০ সালে যেখানে এবরশনের কারণে ১ ভাগ মাতৃমৃত্যু হত, সেখানে ২০১৬ সালে বৃদ্ধি পেয়ে সেটা হয়েছে ৭ ভাগ। (BMMS ২০১৬)। এর কারণ হল, একদিকে যেমন এবরশন বাড়ছে, অপরদিকে এটা গোপন করার হারও বাড়ছে। বিশেষ করে অবিবাহিত মেয়েরা বয়ফ্রেন্ডের সাথে শারীরিক সম্পর্ক করে গর্ভবতী হয়ে গোপনে এবরশন করাচ্ছে। একটা তথ্যে পাওয়া যায়, আমাদের দেশে বিবাহিতদের চেয়ে অবিবাহিত কিশোরীদের এবরশন করানোর হার পঁয়ত্রিশ ভাগ বেশি। (আহমেদ, ২০০৫)। কিন
প্রতিদিন কাঁচা রসুন খেলে কী হয়?

প্রতিদিন কাঁচা রসুন খেলে কী হয়?

প্রাইম ডেস্ক : শুধু খাবার হিসেবে নয়, প্রাচীনকাল আগে থেকেই রসুন ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। বিশ্বের প্রায় সবখানেই রসুনকে বিভিন্ন অসুখ থেকে নিরাময়ের জন্য ব্যবহার করা হয়। তবে সম্প্রতি এক গবেষণায় জানা গেছে প্রতিদিন এক কোয়া রসুন খাওয়ার রয়েছে নানা গুণ। তবে খালি পেটে রসুন খেতে হবে এমন নয়। যেকোনো সময় খেতে পারনে। তবে খেতে হবে কাঁচা। অনেকে মুখের গন্ধের কারণে কাঁচা রসুন খেতে চান না। তবে প্রতিদিন কাঁচা রসুন খাওয়ার উপকারিতাগুলো জানলে এই সংকোচ কেটে যেতে পারে। ভারতীয় গণমাধ্যম এনিডিটিভি জানিয়েছে কাঁচা রসুন খাওয়ার সুফলগুলো। • প্রতিদিন কাঁচা রসুন খেলে রক্তচাপ কমায়। চার কোয়া করে খেলে অনেক ক্ষেত্রে তা রক্তচাপ কমানোর ওষুধের মতো কাজ করে। • টোটাল এবং এলডিএল কোলেস্টেরল প্রায় ১০ থেকে ১৫ শতাংশ কমে যায়। তবে উপকারি কোলেস্টেরল বা এইচডিএল বাড়াতে ও ট্রাইগ্লিসারাইড কমাতে এর কোনো ভূমিকা নেই। • বিপাকীয়
পেটে কৃমি আছে কি না কীভাবে বুঝবেন

পেটে কৃমি আছে কি না কীভাবে বুঝবেন

প্রাইম ডেস্ক : হঠাৎ হঠাৎ পেটে ব্যথা বা মাথার যন্ত্রণা। কিন্তু চিকিৎসকের কাছে যেতেই তিনি বলে দিচ্ছেন তেমন কিছুই হয়নি আপনার। সারাদিন শরীরে অ্স্বস্তি বোধ লেগেই রয়েছে। এটার কারণ একটাই হতে পারে, আর সেটা হল কৃমি। কিন্তু পেট ব্যথা আর মাথা যন্ত্রণাই শুধু নয়, আপনার শরীরে যে কৃমি বাসা বেঁধেছে, তা বোঝার জন্য আরও কয়েকটি উপসর্গ রয়েছে। কী সেই উপসর্গগুলি? • অস্থিরতা, অকারণে অতিরিক্ত চিন্তা, অবসাদে ভোগা, আত্মহত্যাপ্রবণ হওয়া। • মিষ্টি জাতীয় খাবার খাওয়ার অতিরিক্ত ইচ্ছা। • রক্তাল্পতা এবং আয়রন ডেফিশিয়েন্সি। কৃমি থাকলে শরীরে রক্তের পরিমাণ কমতে কমতে অ্যানিমিয়া পর্যন্ত হতে পারে। • ত্বকের রোগে আক্রান্ত হওয়া, র‌্যাশ, অ্যাকনে, চুলকুনি ইত্যাদি হওয়া। • মাড়ি থেকে রক্তপাত হওয়া। • ঘুমনোর সময়ে মুখ থেকে লালা পড়া। • ফুড অ্যালার্জি। • খিদে না পাওয়া। • মেনস্ট্রুয়াল সাইকেলে সমস্যা। • অকারণে ক্লান্ত হয়ে পড়া। •
মিরপুরে মডেল ফার্মেসীর উদ্বোধন

মিরপুরে মডেল ফার্মেসীর উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক  : গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক গৃহীত পাইলট প্রকল্পের আওতায় আজ বুধবার ইসলামী ব্যাংক হাসপাতাল মিরপুরের মডেল ফার্মেসীর উদ্ভোধন করা হয়েছে। উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রনালয়ের অধীন ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. মোস্তাফিজুর রহমান। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী ব্যাংক ফাউন্ডেশনের মাননীয় নির্বাহী পরিচালক গোলাম হাফিজ আহামেদ, এজিএম এন্ড ইনচার্জ হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগ (ঢাকা) মোহাম্মদ আব্দুল হাই, ইসলামী ব্যাংক হাসপাতাল মিরপুরের সুপারিনটেনডেন্ট ডাঃ সিবগাতুর রহমান, সহকারী সুপারিনটেনডেন্ট (প্রশাসন) মোঃ হাসিনুর রহমান, আবাসিক মেডিকেল অফিসার, হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তাবৃন্দ ,মার্কেটিং অফিসারবৃন্দ ও ফার্মেসী ইনচার্জ। ইসলামী ব্যাংক হাসপাতাল মিরপুর মানবতার সেবায় নিয়োজিত একটি সেবা মূলক প্রতিষ্ঠান। বর্তমানে হাসপাতালটি সমৃদ্ধ হাসপাত
নির্বাচনের আগে গ্রামে যাবেন ১০ হাজার চিকিৎসক

নির্বাচনের আগে গ্রামে যাবেন ১০ হাজার চিকিৎসক

প্রাইম ডেস্ক : দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে ১০ হাজার চিকিৎসককে গ্রামে দায়িত্ব পালন করতে পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। তিনি বলেছেন, ‘আগামী দুই মাসে অন্তত পাঁচ হাজার চিকিৎসক আমরা গ্রামে পাঠাব। আর নির্বাচনের আগে আরও পাঁচ হাজার চিকিৎসক পাঠাব গ্রামে।’ বুধবার বিকেলে ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ কথা জানান মন্ত্রী। বাংলাদেশ অ্যাক্রেডিটেশন বোর্ড (ব্যাব) ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের ন্যাশনাল কন্ট্রোল ল্যাবরেটরিকে আইএসও ১৭০২৫ সনদ দিয়েছে। এ উপলক্ষে এই অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। ওষুধ প্রশাসনের উপর অর্পিত দায়িত্ব পালনে তারা সচেষ্ট ও দায়িত্বশীল উল্লেখ করে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‌‘এই ল্যাবরেটরি যাতে করে WHO কর্তৃক প্রিকোয়ালিফাইড ল্যাব স্বীকৃতি অর্জন করতে পারে তার জন্য আরো কাজ করতে হবে।’ মন্ত্রী আরও বলেন, ‘ওষুধ শিল্পের সঙ্গে যাঁরা জড়িত তাঁদের কিন্তু ভয় আছে।
কফি স্বাস্থ্যের জন্য ভালো নাকি খারাপ

কফি স্বাস্থ্যের জন্য ভালো নাকি খারাপ

প্রাইম ডেস্ক : কফি পানের উপকারিতা নিয়ে বিতর্ক কম হয়নি। ক্যাফেইনকে অনেকেই বাতিল করে দিয়েছেন। আবার অনেকেই দাবি করেছেন ক্যাফেইন শরীরের জন্য ভালো উপাদান। এক গবেষণায় বলা হয়েছে, প্রতিদিন কেউ যদি তিন থেকে পাঁচ কাপ কফি পান করেন, তা হলে তাদের ধমনিতে পানি জমা এবং হার্ট অ্যাটাক হওয়ার ঝুঁকি কমে যায়। হার্ট জার্নালের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। আন্তর্জাতিক গবেষকদের একটি দল দক্ষিণ কোরিয়ার কাংবুক স্যামসাং হাসপাতালে এই গবেষণা চালান। গবেষকরা এই গবেষণায় খতিয়ে দেখেন, কফির সঙ্গে করোনারি আর্টারি ক্যালসিয়ামের (সিএসি) যোগসূত্র। করোনারি আর্টারি ক্যালসিয়ামের (সিএসি) কারণে ধমনি শক্ত এবং সরু হয়ে পড়তে পারে, এমনকি উচ্চ রক্তচাপ অনুভূত হয়ে হার্ট অ্যাটাক এবং স্ট্রোকও হতে পারে। ১৩৮ জন নারী-পুরুষকে বিভিন্ন দলে ভাগ করে গবেষণাটি করা হয়। এখানে অংশ নেয়া ব্যক্তিদের মোটামুটি সবার
ডায়বেটিস রোগীদের ডিজিটাল নিবন্ধন শুরু

ডায়বেটিস রোগীদের ডিজিটাল নিবন্ধন শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক  : দেশে প্রথমবারের মতো জাতীয় পর্যায়ে ডিজিটাল পদ্ধতিতে ডায়াবেটিস রোগীর নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এতে ডায়াবেটিস রোগীদের গুণগত সেবা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে।  পাশাপাশি ডায়াবেটিস রোগ সম্পর্কে মানুষের সচেতনতাও বাড়বে।  বহুজাতিক ওষুধ কোম্পানি নভো নরডিস্কের সহযোগিতায় রোগীদের ডিজিটাল নিবন্ধনের কাজটি সম্পন্ন করবে ডায়াবেটিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ। এই প্রক্রিয়া সম্পাদন করতে রোববার ডায়াবেটিক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক একে আজাদ খান ও নভো নরডিস্কে’র সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ফ্রেডরিক কিয়ার এক চুক্তি স্বাক্ষর করেছেন। ঢাকা ক্লাবে এই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হয়। চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অধ্যাপক আজাদ খান বলেন, ‘বাংলাদেশে ডায়াবেটিস রোগীর সঠিক কোনো সংখ্যা বা এ সংক্রান্ত জরিপের উদ্যোগ এখন পর্যন্ত নেয়া হয়নি। দেশজুড়ে এই নিবন্ধন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে রোগীর সংখ্যাই শুধু নয়, একটা সঠিক চিত্র পাওয়া য
নামমাত্র মূল্যে দেশেই হচ্ছে কিডনি প্রতিস্থাপন

নামমাত্র মূল্যে দেশেই হচ্ছে কিডনি প্রতিস্থাপন

প্রাইম ডেস্ক : বিদেশে অত্যধিক ব্যয়, ভিসা জটিলতা ও প্রতিস্থাপন পরবর্তী ফলোআপে লাখ লাখ টাকা খরচ হওয়ায় অনেকেই দেশেই প্রতিস্থাপন করছেন কিডনি। দেশে মাত্র ২ থেকে আড়াই লাখ টাকায় কিডনি প্রতিস্থাপন করা যাচ্ছে। এদিকে কিডনি সংযোজনে সফলতার হার উন্নত বিশ্বের কাছাকাছি হওয়ায় রোগীদের দেশেই চিকিৎসা নেবার আহ্বান বিশেষজ্ঞদের। তবে স্বল্পমূল্যে রাজধানীর বাইরের হাসপাতালগুলোতেও এমন সুযোগ সৃষ্টিতে সরকারের প্রতি অনুরোধ চিকিৎসকদের। স্ত্রীর দেয়া ১ টি কিডনিতে যেন নতুন একটি জীবন ফিরে পেয়েছেন স্বামী। দুটো কিডনি অকেজো হওয়া আল আমিন ছুটি গিয়েছিলেন পার্শ্ববর্তী দেশের একটি হাসপাতালে। চিকিৎসার শুরুতেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ৮ লাখ টাকা অগ্রিম চাওয়ায় দেশে ফিরতে বাধ্য হয়েছিলেন আল আমিন। অবশেষে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বল্পমূল্যে কিডনি প্রতিস্থাপন করতে পেরে ভীষণ আনন্দিত এই যুবক। আল আমিন বলেন, ‘এখানে ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা দ