Day: জুলাই ৪, ২০১৯

রাজ করতে আসছে জয়রাজ, আব্বাস শুভমুক্তি

বিনোদন প্রতিবেদক শুক্রবার সারাদেশের ৩৭ টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে নিরব অভিনীত ‘আব্বাস’সিনেমাটি। ছবি প্রথমবার নিরবের সাথে জুটি বেঁধেছেন সোহানা সাব। সিনেমাটির খল চরিত্রে অভিনয় করেছেন জয়রাজ। এটি পরিচালনা করেছেন সাইফ চন্দন। ইতোমধ্যে সিনেমাটির মুক্তি উপলক্ষে প্রচার-প্রচাণা চালানো হয়েছে। প্রচারণার অংশ হিসেবে পোস্টার, সিনেমার গান ও ট্রেইলার প্রকাশ করা হয়। সিনেমার প্রথম লুকেই নিরবকে লুফে নেয় দর্শকরা। এরপর ট্রেইলার প্রকাশের পর সিনেমাটি আরো দর্শকের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়। অনেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সিনেমাটি নিয়ে প্রশংসা করেন। এছাড়াও এ ছবিতে খলচরিত্রে অভিনয় করা অভিনেতা ভিলেন জয়রাজের উপর বেশ আস্থা রাখছেন নির্মাতা। তারই ধারাবাহিকতায় দর্শকের আগ্রহ তৈরি হয়েছে। এ প্রসঙ্গে ছবির জয়রাজ বলেন, এ ছবির প্রত্যেক চরিত্রের আলাদা আলাদা টুইস্ট আছে। মূলত পুরান ঢাকার বেশকিছু কাহিনী নিয়ে

তিন চরিত্রে আসিফ আকবর

বিনোদন রিপোর্ট সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে বাংলা গানের যুবরাজ আসিফ আকবরের নতুন মিউজিক্যাল ফিল্ম ‘হাহাকার’। গানটির সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন কিশোর। ফেরারী ফরহাদ এর কাহিনী ও চিত্রনাট্যে মিউজিক্যাল ফিল্মটি নির্মাণ করেছেন পরিচালক ওয়াহীদ বিন চৌধূরী। ‘হাহাকার’ মিউজিক্যাল ফিল্মের গানের কথাগুলো লিখেছেন নীহার আহমেদ। এতে অভিনয় করেছেন শিল্পী আসিফ আকবর নিজেই। এ প্রসঙ্গে আসিফ আকবর বলেন, ‘আমি আসলে গানের মানুষ। কিন্তু দিন দিন ভালো গল্পের লোভে পরে যাচ্ছি। আগের গানে শুধু কণ্ঠ দিলেও ইদানিং গানের সাথে সাথে বেশ অভিনয় করে প্রশংসা পাচ্ছি। গানটির শুটিং এর আগে ফেরারী ফরহাদ এর কাহিনী ও চিত্রনাট্যে শুনে আমি মুগ্ধ হয়ে যাই। তাই আর লোভ সামলাতে পারিনি। আমার সকল দর্শকস্রোতা এই গানে আমাকে তিনটি চরিত্রে দেখতে পাবে। বেশ করে ছোট বেলা থেকে বাবার হাত ধরে বেড়ে উঠা থেকে নিজে বাবা হওয়া পর্যন্ত। আশা করি দর্শকস্রোতা নিরাশ হব
শ্রীপুর স্পিনিং মিলে অগ্নিকান্ড:অটোমেটিক ফায়ার হাইড্রেন্ট ছিল না  নানা অসঙ্গতি-অসূর্ম্পূর্ণতাই ছিল দূর্ঘটনার কারণ, আরো একটি তদন্ত কমিটি

শ্রীপুর স্পিনিং মিলে অগ্নিকান্ড:অটোমেটিক ফায়ার হাইড্রেন্ট ছিল না নানা অসঙ্গতি-অসূর্ম্পূর্ণতাই ছিল দূর্ঘটনার কারণ, আরো একটি তদন্ত কমিটি

আ. আজিজ : গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলায় অটো স্পিনিং মিলে অগ্নিকান্ডের ঘটনার আগে থেকেই নানা অসঙ্গতি ও অসম্পূর্ণতার আলামত বিরাজমান ছিল। তাদের ফায়ার লাইন্সেরও মেয়াদ ছিল না। তাদের ছিল না ফায়ার হাইড্রেন্ট(অগ্নি দুর্ঘটনার হাত হতে নিরাপদ ও কার্যকর ব্যবস্থা) মঙ্গলবার গাজীপুরের শ্রীপুরে অটো স্পিনিং মিলে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় জেলা প্রশাসনের ছয় সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠনের পর বুধবার ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে চার সদস্যের আরো একটি তদন্ত কমিটি গঠণ করেছে। গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারি পরিচালক মো. আক্তারুজ্জামান জানান, শ্রীপুরের অগ্নিকান্ডের ঘটনার তদন্তে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের পক্ষ থেকে বুধবার ফায়ার সার্ভিস অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক (অপারেশন) দীলিপ কুমার ঘোষকে প্রধান করে চার সদস্যের একটি কমিটি গঠণ করেছে। ১৫দিনের মধ্যে তাদেও তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। ওই কর্মকর্তা আরো জানান, ওই কারখানার ফায়
জীবনযাত্রার ব্যয় বাড়ছে

জীবনযাত্রার ব্যয় বাড়ছে

২০১৯-২০ সালের বড় অঙ্কের নতুন বাজেট যেন সাধারণ মানুষের প্রতিদিনের জীবনযাত্রায় খরচ বাড়ার আশঙ্কা নিয়েই পাস হয়েছে। এবারের বাজেটে জনগোষ্ঠীর ব্যয়ভারের ওপর যে পরিমাণ নেতিবাচক প্রভাব পড়বে, ইতোমধ্যে সংশ্লিষ্টরা তা নিয়ে বিশেষ ভাবনায় পড়ে গেছে। কারণ ক্রমবর্ধমান ব্যয়ের লাগাম টানতে গেলে সীমাবদ্ধ আয়কেও খতিয়ে দেখা অত্যন্ত জরুরী। এবারের বাজেটে ভ্যাট আইনের নতুন মাত্রায় সংশ্লিষ্ট পণ্যের ওপর যে প্রভাব পড়বে, তা মেটাতে হবে সাধারণ ভোক্তা শ্রেণীকে। বিশেষ করে নিম্ন আর মধ্যবিত্তের জীবনযাত্রায় পণ্যের ওপর ভ্যাটের মূল্য বৃদ্ধি গণমানুষকে যে বিব্রতকর অবস্থার মুখোমুখি করবে তা সত্যিই ভাববার বিষয়। অনেক পণ্যে নতুন করে ভ্যাট সংযোজন, আবার ভ্যাটযুক্ত জিনিসের মূল্য বৃদ্ধি জনগণের স্বাভাবিক জীবনযাত্রাকে দুঃসহ করে তুলতে পারে। এর সঙ্গে সঙ্গে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা-এর মতো যন্ত্রণাদায়ক পরিস্থিতি তৈরি করবে। দেশের
বাংলাদেশ-চীন বৈঠকে ৯ চুক্তি-সমঝোতা সই

বাংলাদেশ-চীন বৈঠকে ৯ চুক্তি-সমঝোতা সই

নিজস্ব প্রতিবেদক : অর্থনৈতিক, কারিগরি, বিদ্যুৎ, সংস্কৃতি ও বিনিয়োগ সহযোগিতা বাড়াতে ৯টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই করেছে বাংলাদেশ ও চীন। বৃহস্পতিবার (০৪ জুলাই) স্থানীয় সময় দুপুরে চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে দেশটির রাষ্ট্রীয় ভবন গ্রেট হল অব দ্য পিপলে সফররত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও চীনের প্রধানমন্ত্রী লি খ্য ছিয়াংয়ের বৈঠকে এসব চুক্তি এবং সমঝোতা স্মারক সই হয়। বাংলাদেশ ও চীনের প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দুই দেশের প্রতিনিধিদের নিয়ে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের পর এসব চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হয়। দুই দেশের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসব দলিলে সই করেন। ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেডের (ডিপিডিসি) আওতাধীন এলাকায় বিদ্যুৎ ব্যবস্থা সম্প্রসারণ ও শক্তিশালীকরণ নিয়ে চীনের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি) মধ্যে একটি ফ্রেমওয়ার্ক চুক্তি হয়।
প্রধানমন্ত্রীর চীন সফর ও প্রাপ্তির সম্ভাবনা

প্রধানমন্ত্রীর চীন সফর ও প্রাপ্তির সম্ভাবনা

প্রাইম ডেস্ক : সাম্প্রতিক সময়ে চীন বাংলাদেশের সম্পর্ক নতুন মাত্রা পেয়েছে। দিন দিন বাংলাদেশে বাড়ছে চীনা বিনিয়োগ। অর্থনৈতিকভাবে বাংলাদেশের অগ্রগতি চীনের কাছে বাংলাদেশকে আরো গুরুত্বপূর্ণ করে তুলেছে। এরই ধারাবাহিকতায় চীনের প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াং’র আমন্ত্রণে পাঁচ দিনের সরকারি সফরে চীনে গেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গত সোমবার রাতে তিনি চীনে পৌঁছান।  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১ থেকে ৫ জুলাই পর্যন্ত চীন সফর করবেন। তাঁর এই তাৎপর্যপূর্ণ সফরে রোহিঙ্গা ইস্যু বিশেষ গুরুত্ব পাবে। এছাড়া বিদ্যুৎ খাতসহ বিভিন্ন খাতে দুই দেশের মধ্যে মোট আটটি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই হওয়ার কথা রয়েছে।  প্রধানমন্ত্রীর আসন্ন সফরে বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে মোট যে আটটি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই হওয়ার কথা রয়েছে সেগুলো হলো,ঢাকা বিদ্যুত্ বিতরণ কোম্পানি এলাকায় বিদ্যুৎ ব্যবস্থা শক্তিশালীকরণ
বঙ্গবন্ধুকে ডি-লিট ডিগ্রি উপাধি দেবে ঢাবি

বঙ্গবন্ধুকে ডি-লিট ডিগ্রি উপাধি দেবে ঢাবি

প্রাইম ডেস্ক : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনে ২০২০ ও ২০২১ সালকে 'মুজিব বর্ষ' হিসেবে ঘোষণার কথা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জাতির পিতা এদেশের স্বাধীনতা দিয়ে গেছেন। তারই দীর্ঘ সংগ্রামের ফসল এই স্বাধীনতা। তিনি আমাদের ঋণী করে গেছেন। এই ঋণ পরিশোধ করতে হবে। তাই জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর দিন ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে ২০২১ সালের ২৬ মার্চ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর দিন পর্যন্ত 'মুজিব বর্ষ' হিসেবে পালন করা হবে। এ উপলক্ষে বছরব্যাপী ব্যাপক কর্মসূচি নেওয়া হবে।  ২০১৮ সালের জুলাইতে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউ-এ আওয়ামী লীগের নবনির্মিত কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের উপদেষ্টা পরিষদ ও কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের যৌথসভার সূচনা বক্তব্যে এমন ঘোষণা দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আরো জানিয়েছিলেন, জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে নারী-পুরুষ,
শীর্ষ বন্দরের তালিকায় চট্টগ্রাম বন্দর ৭০তম

শীর্ষ বন্দরের তালিকায় চট্টগ্রাম বন্দর ৭০তম

প্রাইম ডেস্ক : বিশ্বের শীর্ষ ১০০ সমুদ্রবন্দরের তালিকায় চট্টগ্রাম বন্দরের অবস্থান এখন ৭০তম। ২০০৯ সালে এই বন্দরের অবস্থান ছিল ৯৮তম। ধাপে ধাপে এখন তা ৭০তম স্থানে উন্নীত হয়েছে। অর্থাৎ ১০ বছরে দেশের প্রধান এই সমুদ্রবন্দরটি ২৮ ধাপ এগিয়েছে।  বিশ্বের ১০০টি শীর্ষ বন্দরের তালিকায় প্রথমে রয়েছে চীনের সাংহাই পোর্ট। ২০১১ সাল থেকেই এই বন্দরটি তালিকার শীর্ষে রয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে সিঙ্গাপুর বন্দর। তৃতীয় স্থানে থাকা চীনের শেনজেন পোর্ট। প্রথম ১০টির মধ্যে সাতটিই হচ্ছে চীনের বন্দর। তালিকায় ভারতের মুম্বাইয়ের জওয়াহেরলাল নেহরু বন্দরের অবস্থান ২৮তম; আর ভারতের চেন্নাই বন্দরের অবস্থান ৯৯তম। এ ছাড়া পাকিস্তানের করাচি বন্দরের অবস্থান চট্টগ্রাম বন্দরের অনেক পরে ৮৩তম। চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর যেসব বন্দরের মাধ্যমে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কনটেইনার পৌঁছায় সেই বন্দরগুলোর মধ্যে মালয়েশিয়ার পোর্ট কেল
কারিগরি শিক্ষা বোর্ড পরীক্ষা ২০১৯: প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে অব্যাহত আছে নজরদারি

কারিগরি শিক্ষা বোর্ড পরীক্ষা ২০১৯: প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে অব্যাহত আছে নজরদারি

প্রাইম ডেস্ক : দেশের শিক্ষা ও পরীক্ষা ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে বর্তমান সরকার। এর ফলে প্রশ্নপত্র ফাঁসের মতো ভয়াবহতা থেকে রক্ষা পাচ্ছে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা। ২০১৯ সালের কারিগরি শিক্ষা বোর্ড পরীক্ষায় একই তৎপরতা অব্যাহত থাকায় এ নিয়ে সন্তুষ্ট অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা। অভিভাবকরা বলছেন, মেধানির্ভর জাতি গঠনে এর ভূমিকা অতুলনীয়। শিক্ষা সংশ্লিষ্টরা বলছেন, প্রতিটি বোর্ড পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে সরকার যে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে তা নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবি রাখে। এরই মধ্যে সরকারের গৃহীত ব্যবস্থায় সুফল পাচ্ছে শিক্ষার্থী-অভিভাবকরা। এবার কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নির্বিঘ্ন-নির্ঝঞ্ঝাট করতে সরকারের এমন পদক্ষেপ যুগান্তকারী বলে মনে করছেন শিক্ষা সংশ্লিষ্টরা। সরকারের নির্দেশ মোতাবেক পরীক্ষার শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে শিক্ষা সংশ্লিষ্ট সকলেই সজাগ রয়েছেন। সরকারের সদি
ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধদের দুই প্রস্তাব, মানবেন না তারেক!

ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধদের দুই প্রস্তাব, মানবেন না তারেক!

প্রাইম ডেস্ক : ছাত্রদলের নতুন কমিটিতে বয়সসীমা নির্ধারণসহ বিভিন্ন ইস্যুতে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীদের বিক্ষোভ থামাতে দলের দুইজন সিনিয়র নেতাকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। সৃষ্ট সঙ্কটের যৌক্তিক সমাধানে দায়িত্বপ্রাপ্ত বিএনপির ওই দুই সিনিয়র নেতা কাজ শুরু করেছেন। জানা গেছে, বিএনপির দায়িত্বপ্রাপ্তদের সাথে বৈঠকে ছাত্রদলের কাউন্সিলে প্রার্থী হওয়ার যোগ্যতা হিসেবে ২০০০ সালের এসএসসির পরিবর্তে অনার্সে ভর্তির সেশন ২০০০ সাল করার প্রস্তাব দেয় আন্দোলনকারীরা। তখন সিনিয়র নেতারা প্রস্তাবটি নিয়ে তারেক রহমানের সাথে কথা বলা হলেও তা নাকচ করে দেয়া হয়েছে। এমন প্রেক্ষাপটে বিক্ষোভ আরও ঘনীভূত হতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন দলের একাধিক সিনিয়র নেতা। তারা বলছেন, ছাত্রদলের প্রথম দফা দাবি নাকচ করে দেয়ার পরে যে সংকট তৈরি হয়েছিলো তা দলের স্থিতিশীলতাকে অনেকখানি নষ্ট করেছে। এ প্রসঙ্গে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ম