Day: সেপ্টেম্বর ৪, ২০১৯

ডেঙ্গু নিয়ে চিকিৎসা শেষে বাড়ি ফিরলেন ৬৯ হাজার ৭৮৫ জন রোগী

ডেঙ্গু নিয়ে চিকিৎসা শেষে বাড়ি ফিরলেন ৬৯ হাজার ৭৮৫ জন রোগী

নিজস্ব প্রতিবেদক : ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৬৯ হাজার ৭৮৫ জন রোগী। চলতি বছরের শুরু থেকে আজ বুধবার পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন ৭৩ হাজার ৫৬৫ জন। আর চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৬৯ হাজার ৭৮৫ জন। এ পর্যন্ত ৯৫ শতাংশ মানুষ চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছে। সারাদেশে বর্তমানে মোট ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৩ হাজার ৫৮৮ জন। এর মধ্যে ঢাকায় ১ হাজার ৯৮৯ জন এবং ঢাকার বাহিরে ১ হাজার ৫৯৯ জন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ইমার্জেন্সি অপারেশনস সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম থেকে প্রাপ্ত প্রতিবেদনে এ তথ্য পাওয়া গেছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টা (৩ সেপ্টম্বর সকাল ৮ টা থেকে ৪ সেপ্টম্বর সকাল ৮টা) পর্যন্ত নতুন করে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাপসাতালে ভর্তি হয়েছেন ৮২০ জন। এর মধ্যে ঢাকায় ৩৪৫ জন এবং ঢাকার বাইরে ৪৭৫ জন। এ পর্যন্ত ডেঙ্গু রোগে ৫৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রতিবেদ
আমরা কৃষিকেও গুরুত্ব দেই, আবার শিল্পকেও গুরুত্ব দেই :শেখ হাসিনা

আমরা কৃষিকেও গুরুত্ব দেই, আবার শিল্পকেও গুরুত্ব দেই :শেখ হাসিনা

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিজিএমইএ পরিচালনা পর্ষদের নবনির্বাচিত সদস্যদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের কিছু লোক আছে অনবরত আমাদের বিরুদ্ধে প্রপাগান্ডা চালায়। এটা আপনাদের অ্যাড্রেস করতে হবে। যার জন্য ক্ষতিগ্রস্ত আপনারা হন। আজ বুধবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বিজিএমইএ পরিচালনা পর্ষদের নবনির্বাচিত সদস্যরা দেখা করতে এলে একথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। শেখ হাসিনা বলেন, আমাকে পলিটিক্যালি ক্ষতি করতে চায়। কিন্তু ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে যান আপনারা ব্যবসায়ীরা। প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশটাকে আমরা গড়ে তুলতে চাই, সব দিক থেকে। আর আমাদের অর্থনীতি যদিও কৃষিপ্রধান, কিন্তু এটাও ঠিক শিল্পায়ন ছাড়া কোনো দেশের উন্নতিটা ত্বরান্বিত হয় না। এটাও বাস্তবতা। সেজন্য একদিকে আমরা কৃষিকেও গুরুত্ব দেই, আবার শিল্পকেও গুরুত্ব দেই।
সবার জন্য পেনশন

সবার জন্য পেনশন

দেশের জনগণের সামাজিক নিরাপত্তার কর্মসূচী হিসেবে বর্তমান সরকার নানামুখী উদ্যোগ নিয়েছে। এবার সরকার চালু করতে যাচ্ছে সবার জন্য পেনশন। এটি বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের অন্যতম নির্বাচনী অঙ্গীকারও ছিল বৈকি। প্রস্তাবিত সর্বজনীন পেনশন নীতিমালার খসড়াও প্রণীত হয়েছে ইতোমধ্যে। দেশের প্রায় প্রত্যেক বয়োবৃদ্ধ নাগরিককে কিভাবে ও কী পদ্ধতিতে এই পেনশন স্কিমের আওতায় আনা যায় সেই উপায়ও থাকছে নীতিমালায়। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে এটি তোলা হবে মন্ত্রিসভায় অনুমোদনের জন্য। উল্লেখ্য, বর্তমানে সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীরা পেনশন পান। তবে বেসরকারী কর্মজীবীরা এর আওতায় পড়েন না। বৃহত্তর জনগোষ্ঠী তো নয়ই। অথচ ইতোমধ্যে মানুষের গড় আয়ু বেড়েছে, প্রায় ৭২ বছর। ফলে দেশে প্রবীণ তথা নির্ভরশীল জনসংখ্যা বাড়ছে। অনেক বৃদ্ধ-বৃদ্ধা তথা বাবা-মাই সন্তানের ওপর নির্ভরশীল, যাদের আয়-উপার্জন কম। সে অবস্থায় সর্বজনীন পেনশন স্কিম চা
লঘুচাপ : সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্কতা

লঘুচাপ : সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্কতা

নিজস্ব প্রতিবেদক : বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের কারণে উপকূলীয় এলাকায় ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এর ফলে দেশের সমুদ্র বন্দরগুলোকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। মঙ্গলবার রাতে আবহাওয়ার সামুদ্রিক সতর্কবার্তায় এই তথ্য জানানো হয়েছে। সেখানে বলা হয়, পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় একটি লঘুচাপের সৃষ্টি হয়েছে। উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর এবং তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত লঘুচাপটি বর্তমানে উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ এলাকায় অবস্থান করছে। এর প্রভাবে বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা, উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং সমুদ্র বন্দরসমূহের উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারসমূহকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন
রাশিয়ায় পুতিন ও মোদির বৈঠক

রাশিয়ায় পুতিন ও মোদির বৈঠক

প্রাইম আন্তর্জাতিক : রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বৈঠক করতে যাচ্ছেন। বৈঠকে উভয়ে দু'দেশের মধ্যে বিনিয়োগ ও বাণিজ্য জোরদার এবং বিশেষ করে জ্বালানি ও অস্ত্র চুক্তি নিয়ে কথা বলবেন বলে বিভিন্ন সূত্রের খবরে বলা হয়েছে। ইস্টার্ন ইকোনমিক ফোরামের সম্মেলনের ফাঁকে বুধবার এ দুই নেতার বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ক্রিমিয়া দখলকে কেন্দ্র করে পশ্চিমা অবরোধের প্রেক্ষিতে এশীয় দেশগুলোর সাথে অংশীদারিত্ব জোরদারের লক্ষ্যে ২০১৫ সাল থেকে রাশিয়া ভ্লাদিভস্তকে ইস্টার্ন ইকোনমিক ফোরামের সম্মেলনের আয়োজন করে আসছে। ইনস্টিটিউট অব ওয়ার্ল্ড ইকোনমি এন্ড ইন্টারন্যাশনাল রিলেশান্স এর বিশ্লেষক আলেক্সাই কুপ্রিয়ানভ বলেন, রাশিয়া ও ভারতের মধ্যে রাজনৈতিক কোন মতানৈক্য নেই। সুতরাং কৌশলগত অংশীদার এ দুদেশের আলোচনায় অর্থনীতিই গুরুত্ব পাবে। এ দুনেতা ২০০১ সাল থেকে একে অপরের পরিচিত। শীর্ষ সম্মেলনে
ঘুমধুম সীমান্তে পতাকা বৈঠক, বিজিপির আটক চার সদস্যকে হস্তান্তর

ঘুমধুম সীমান্তে পতাকা বৈঠক, বিজিপির আটক চার সদস্যকে হস্তান্তর

প্রাইম ডেস্ক : নিয়মবহির্ভূতভাবে নাফনদী পার হয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করা মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) চার সদস্যকে হস্তান্তর করা হয়েছে। বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) বেলা আড়াইটার দিকে নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুমের বাংলাদেশ-মিয়ানমার মৈত্রী সেতু এলাকায় পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে তাদের হস্তান্তর করে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। হস্তান্তরকৃতরা নিয়মবহির্ভূত ভাবে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করেছে স্বীকার করে তাদের ফিরিয়ে নেয় মিয়ানমার। হস্তান্তরকৃতরা হলেন, মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের মংডুর নাগকুড়া ব্যাটালিয়নের মেগচিং ক্যাম্পের ক্যাপ্টেন লি উইন কো মং (৩০), সার্জেন্ট ইয়ানাং তুন (৩১), সার্জেন্ট প্যায়াং গি (২৫) ও সিপাহী ক্য ক্য (২৮)। কক্সবাজারের টেকনাফের নাজিরপাড়া নাফনদীর পয়েন্ট দিয়ে ২৫ আগস্ট তারা অনুপ্রবেশের দায়ে আটক হয়েছিল। আটকদের হস্তান্তরে বুধবার বেলা ১২টা থেকে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে ১২
রানুকে নিয়ে মুখ খুললেন লতা

রানুকে নিয়ে মুখ খুললেন লতা

প্রাইম বিনোদন : এবার রানুকে নিয়ে মুখ খুললেন স্বয়ং লতা মঙ্গেশকর। নকল না করে রানুকে আসল হওয়ার পরামর্শ দিলেন তিনি। ভারতের এক সংবাদ সংস্থাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে লতা বলেন, ‘আমার, কিশোরদার অথবা মুকেশ ভাইয়ের গান গেয়ে উঠতি গায়কেরা সাময়িক খ্যাতি পেতে পারে। কিন্তু তার স্থায়িত্ব বড় কম। অনেক বাচ্চা রয়েছে যারা আমার গান খুব সুন্দর গায়। কিন্তু কত জন তাদের মনে রাখে বলুন তো? প্রথম সাফল্য পাওয়া সহজ। কিন্তু তা ধরে রাখাই আসল। আমার চেনা শুধু মাত্র সুনিধি এবং শ্রেয়া ছাড়া আর কাউকেই কি সেভাবে মনে রেখেছে কেউ?’ তিনি বলেন, ‌‘আমি মনে করি কাউকে নকল করা কখনো স্থায়ী এবং নির্ভরযোগ্য সমাধান হতে পারে না। লতা রানুকে পরামর্শ দিয়ে বলেন, ‘আসল হও। কাউকে নকল করো না। যদি আশা নিজের স্টাইলে গান না গেয়ে আমাকে নকল করত তবে সে আজ আশা হত না।’ গান গেয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরিচিত হয়ে উঠেছেন রানু মণ্ডল। তার গলাকে অনেকে আবার তুলনা
বিদেশে বাংলাদেশ-বিরোধী প্রচার মোকাবেলায় সোচ্চার হোন: প্রধানমন্ত্রী

বিদেশে বাংলাদেশ-বিরোধী প্রচার মোকাবেলায় সোচ্চার হোন: প্রধানমন্ত্রী

প্রাইম ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব ধরনের অপপ্রচারের বিরুদ্ধে ব্যবসায়ী সম্প্রদায়কে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, এখন সরকারের বিরুদ্ধে যে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে তা মূলত দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যেরই ক্ষতি সাধন করছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের কিছু লোক আছে অনবরত আমাদের বিরুদ্ধে বাইরে অপপ্রচার চালাচ্ছে, যারা আমাকে রাজনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করতে চায়। এটা আপনাদের (ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দকে) চিহ্নিত করতে হবে। আজ বুধবার সকালে তাঁর তেঁজগাওস্থ কার্যালয়ে (পিএমও) বাংলাদেশ তৈরি পোশাক রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) নেতারা সাক্ষাৎ করতে এলে তিনি একথা বলেন। দেশের উন্নয়নে তৈরি পোশাক শিল্পের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘পণ্য রপ্তানির জন্য এর আকর্ষণ বাড়াতে হলে আপনাদের পণ্যের বহুমুখীকরণের ওপর গুরুত্ব দিতে হবে’। ব্রেক্সিট ইস্যু বাংলাদেশের রপ্তানি বাণিজ্যে প্রভাব ফেলবে না
কী কারণে লাঞ্ছিত হলেন বিএনপি নেতা আঞ্জু?

কী কারণে লাঞ্ছিত হলেন বিএনপি নেতা আঞ্জু?

প্রাইম ডেস্ক : বিশৃঙ্খল বিএনপি দিনে দিনে আরও বিশৃঙ্খল হয়ে উঠছে। সঙ্গে বাড়ছে দলের ভেতরে পক্ষ-বিপক্ষ। এতে অনেক সময় সিনিয়র নেতারা লাঞ্ছিত হচ্ছেন জুনিয়রদের দ্বারা। সম্প্রতি ছাত্রদলের কমিটি নিয়ে বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীসহ বিএনপি নেতাদের লাঞ্ছনার রেষ কাটতে না কাটতেই লাঞ্ছিত হলেন ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বজলুল বাসিদ আঞ্জু। বিএনপির ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দলের প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সমাধিতে ফুল দিতে গিয়ে হাতাহাতিতে জড়িয়ে বজলুল বাসিদ আঞ্জুর পাঞ্জাবি ছিঁড়ে ফেলেন প্রতিপক্ষ নেতাকর্মীরা। জানা গেছে, ১ সেপ্টেম্বর সকালে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের চন্দ্রিমা উদ্যানে জিয়ার মাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরপরই বজলুলকে লাঞ্ছিত করার ভিডিওটি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে রাজনীতিতে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দলীয়
যৌন হয়রানিতে জড়িত শিক্ষকদের জন্য সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত

যৌন হয়রানিতে জড়িত শিক্ষকদের জন্য সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত

প্রাইম ডেস্ক : যৌন হয়রানিতে জড়িত শিক্ষকদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী। তিনি বলেন, শিক্ষকের মাধ্যমে যৌন হয়রানি খুবই জঘন্য কাজ। সরকার এসব শিক্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করবে। সোমবার (২ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর স্পেকট্রা কনভেনশন সেন্টারে আয়োজিত ‘শিশুর চোখে মানসম্মত শিক্ষা ও করণীয়’ শীর্ষক শিশু সংলাপে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী। তিনি বলেন, সরকার শিক্ষকদের সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করেছে। তাদের সমস্যা সমাধানে সচেষ্ট রয়েছে। কিন্ত সে তুলনায় শিক্ষকদের থেকে সেবা পাওয়া যাচ্ছে না। বরং সম্প্রতি শিক্ষক দ্বারা বিভিন্নভাবে শিক্ষার্থী হয়রানির অভিযোগ আসছে। উপমন্ত্রী বলেন, শিক্ষাঙ্গনে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন বন্ধে সরকার আন্তরিক। এ বিষয়ে আমাদের মানসিকতা পরিবর্তন জরুরি। শিশুদের শারীরিক ও মানসিক প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হ