Day: জানুয়ারি ২, ২০২০

প্রকাশ পেল জি স্বাধীনের ‘রাখেনা খবর’

প্রকাশ পেল জি স্বাধীনের ‘রাখেনা খবর’


Warning: printf(): Too few arguments in /home/dainikpr/public_html/wp-content/themes/viral/inc/template-tags.php on line 113
বিনোদন প্রতিবেদক : সম্প্রতি প্রকাশ হয়েছে নতুন মিউজিক ভিডিও 'রাখেনা খবর'।গানটির গীতিকার প্রসেনজিৎ মন্ডল, সুরকার মাহফুজ ইমরান,সঙ্গীত করেছেন এইচ অার লিটন।কন্ঠ দিয়াছেন কন্ঠশিল্পী মুনিয়া মুন।গানটি ডিপি মিউজিক ষ্টেশনে ব্যানারে প্রকাশ পেয়েছে। এতে মডেল হিসাবে কাজ করেছেন লাবনী ও মহসান স্বপ্ন। মিউজিক ভিডিওটি রোমান্টিক গল্পে উপর নির্মিত হয়েছে। মিউজিক ভিডিওটি পরিচালনা করেছেন জি স্বাধীন। এ প্রসঙ্গে নির্মাতা জি স্বাধীন বলেন, আমরা সুুন্দর ভাবে মিউজিক ভিডিওটি ৩০০ ফিট বিভিন্ন লোকেশনে চিত্রায়ন করা হয়েছে। এই গানটির কথা অনেক সুুন্দর। আশা করি, মিউজিক ভিডিওটি দর্শকদের ভালো লাগবে। এই মিউজিক ভিডিওটিতে মডেল হিসাবে কাজ করেছেন লাবনীও মহসান স্বপ্ন খুব ভালো অভিনয় করেছেন। মডেল লাবনী বলেন, পরিচালক জি স্বাধীন ভাই ও মডেল মহসান স্বপ্ন এর সাথে প্রথম কাজ।গানের গল্পের রসায়ণটা ভালো ছিলো। পরিচালক জি স্বাধীন কাজট
মিয়ানমারের কারণে মাদক ঠেকানো যাচ্ছে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

মিয়ানমারের কারণে মাদক ঠেকানো যাচ্ছে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী


Warning: printf(): Too few arguments in /home/dainikpr/public_html/wp-content/themes/viral/inc/template-tags.php on line 113
নিজস্ব প্রতিবেদক : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, প্রতিবেশী দেশ মিয়ানমারের কারণে ইয়াবা নামক ভয়াবহ মাদক ঠেকানো সম্ভব হচ্ছে না। তিনি বলেন, যতবারই কথা বলেছি, মিয়ানমার ততবারই প্রতিশ্রুতি দিয়েছে যে, তারা ইয়াবা বন্ধের বিষয়টি দেখবে। কিন্তু তাদের প্রতিশ্রুতির পরও পরও কাজ হচ্ছে না। বৃহস্পতিবার ওসমানি স্মৃতি মিলনায়তনে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের ৩০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে তিনি এসব কথা বলেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা তিনভাবে কাজ করছি। ডিমান্ড হ্রাস, সাপ্লাই হ্রাস এবং সর্বোপরি মাদকাসক্তদের পুনরায় কর্মক্ষম করতে নিরাময় কেন্দ্রের মাধ্যমে কাজ করছি। তিনি বলেন, কারাগারের ধারণ ক্ষমতা ৩৫ হাজার থেকে ৪০ হাজারে উন্নীত করা হয়েছে। এর বিপরীতে ৮০ হাজারের ওপর বন্দি রয়েছে কারাগারে। যার বেশিরভাগই মাদকের আসামী। মাদক মামলা নিষ্পত্তির জন্য আদালতের সংখ্যা বৃদ্ধি প্রক্রিয়াধীন। স্বরাষ্ট
ভিন্নধর্মী আয়োজনে থার্টি ফার্স্ট নাইট

ভিন্নধর্মী আয়োজনে থার্টি ফার্স্ট নাইট


Warning: printf(): Too few arguments in /home/dainikpr/public_html/wp-content/themes/viral/inc/template-tags.php on line 113
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের নিয়ে সেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন “এসো মিলি সৌহার্দ্যের বন্ধনে”র পক্ষ থেকে আজ পহেলা জানুয়ারী ঢাকা শহরের অলিগলিতে অসহায় শীতার্ত মানুষদের মধ্যে শীত বস্ত্র বিতরণের মাধ্যমে ইংরেজি ২০২০ নতুন বর্ষকে বরণ করে নিয়েছে। ৩১ শে ডিসেম্বর ২০১৯ ইং রাত ১১ টা ৪০ মিনিটে একটি গাড়ি নিয়ে ঘড়ির কাঁটা ঠিক ১২ টায় পৌঁছানো তথা নতুন বছর ২০২০ শুরু হওয়ার সাথে সাথেই এই কার্যক্রম শুরু করা হয়। মাঝরাত পর্যন্ত রাস্তায় থাকা দারিদ্র সীমার নিচে বসবাস করা মানুষদের তীব্র শীতের মাঝে তাদের কষ্ট লাঘবের জন্য কম্বল বিতরণ কর্মসূচি সম্পূর্ণ করেন। এতে উপস্থিত ছিলেন “এসো মিলি সৌহার্দ্যের বন্ধনে” সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও বর্তমান সভাপতি নাঈমুর রহমান দুর্জয়, সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন তামিম, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রকাশ সাহা নিরব, আইন বিষয়ক সম্পাদক আবু বকর সিদ্দিক, ক্রিড়া ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক
একিউআইয়ের সূচকে বায়ু দূষণে ১১তম ঢাকা

একিউআইয়ের সূচকে বায়ু দূষণে ১১তম ঢাকা


Warning: printf(): Too few arguments in /home/dainikpr/public_html/wp-content/themes/viral/inc/template-tags.php on line 113
প্রাইম ডেস্ক : বাতাসের গুণগত মানের সূচকে (একিউআই) ঢাকার অবস্থান ১১তম। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৮.১৮ মিনিটে একিউআইয়ে এই অবস্থানে ছিল ঢাকা। এ সময়ে ঢাকায় একিউআই সূচকে স্কোর ছিল ১৬৯। বাতাসের এই গুণগত মানকে অস্বাস্থ্যকর হিসেবে শ্রেণিবিন্যাস করা হয়েছে। বার্তা সংস্থা ইউএনবি এ খবর দিয়েছে। এক্ষেত্রে সূচকের শীর্ষ তিনটি স্থানে রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার ক্যানবেরা, মঙ্গোলিয়ার উলানবাটোর ও ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লি। এসব স্থানে একিউআই সূচকে স্কোর যথাক্রমে ৪৯৫, ৪০৫ ও ৩৯৭। একিউআই স্কোর যখন ১৫১ থেকে ২০০ এর মধ্যে থাকে, তখন বাতাসের গুণগত মানকে অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচনা করা হয়। যখন স্কোর ২০১ থেকে ৩০০ এর মধ্যে থাকে, তখন সব শহরবাসী স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে আক্রান্ত হতে পারেন বলে বিবেচনা করা হয়। আবার স্কোর যখন ৩০১ থেকে ৫০০ বা তারও বেশি হয় তখন বাতাসের গুণগত মানকে বিপজ্জনক বলে বিবেচনা করা হয়। এই অবস্থায় শহরবাসী জরুরি অবস্থার মতো
গাঁজার সম্রাজ্য ধ্বংস করলো সেনাবাহিনী

গাঁজার সম্রাজ্য ধ্বংস করলো সেনাবাহিনী


Warning: printf(): Too few arguments in /home/dainikpr/public_html/wp-content/themes/viral/inc/template-tags.php on line 113
নিজস্ব প্রতিবেদক : বস্তা বস্তা গাঁজা আটকের খবর সচরাচর পাওয়া গেলেও এবার মিললো গেলো অন্য রকম খবর। দুর্গম পাহাড়ে প্রায় দুইশ বিঘা জমিতে চাষ করা হচ্ছিল গাঁজা। ঘটনাটি খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙা উপজেলার কালাপাহাড় দুইল্ল্যাতলী এলাকার। গোপনে খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার মহালছড়ি সেনা জোনের সেনাবাহিনীর একটি বিশেষ দল গাঁজার ক্ষেতটি ধ্বংস করে। তবে সংশ্লিষ্ট কাউকে আটক করা যায়নি। নিরাপত্তা বাহিনীর একটি সূত্র বলছে, কৌশলে এই দুর্গম এলাকা বেছে নেওয়া হয়েছিল। মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উপ-পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ জানান, এখন গাঁজা চাষের মৌসুম। দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় আঞ্চলিক সন্ত্রাসী দলগুলো গাঁজার আবাদ করে থাকে। একশ্রেণির গ্রামবাসীও এর সঙ্গে সম্পৃক্। মাটিরাঙা থানার পুলিশ কর্মকর্তা মো. মহিউদ্দিন আহম্মদ জানান, এতো দুর্গম এলাকায় পুলিশের নজরদারি রাখা কঠিন। কৌশলে পাহাড়ি গ্রামের উপজাতীয় লোকজন গাঁজার আবাদ করেছে। এ
রংপুরকে হারিয়ে সিলেট পর্ব শুরু করল রাজশাহী

রংপুরকে হারিয়ে সিলেট পর্ব শুরু করল রাজশাহী


Warning: printf(): Too few arguments in /home/dainikpr/public_html/wp-content/themes/viral/inc/template-tags.php on line 113
প্রাইম খেলাধুলা  : বঙ্গবন্ধু বিপিএলে রংপুর রেঞ্জার্সকে হারিয়ে ছন্দে ফিরল রাজশাহী রয়্যালস। বৃহস্পতিবার সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে রংপুরকে ৩০ রানে হারিয়ে প্লে-অফের পথে এগিয়ে গেল রাজশাহী। ১৮০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ১৪৯ রানেই থেমে যায় ওয়াটসনের রংপুর রেঞ্জার্স। ১৮০ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় রংপুর। মোহাম্মদ নওয়াজের বলে মাত্র ২ রান করে সাজঘরে ফেরেন দলের নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান শেন ওয়াটসন। নাঈম শেখকে সাথে নিয়ে দলকে কিছুটা সামনের দিকে এগিয়ে নেন ক্যামেরন ডেলপোর্ট। তবে তিনিও বেশিক্ষণ সঙ্গ দিতে পারেননি। মাত্র ১৪ রানেই আউট হন তিনি। টম এবেল (২৯) ও ফজলে মাহমুদ (৩৪) দলকে জয়ের স্বপ্ন দেখালেও তা আর পূরণ করতে পারেননি। ফলে ৩০ রানেই থামতে হয় রংপুরকে। শোয়েব মালিক, কামরুল ইসলাম রাব্বি ও মোহাম্মদ নেওয়াজ নেন ২টি করে উইকেট। শুরুতে টস জিতে রাজশাহীকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায় রংপ
১৪ বছরের ছোট প্রেমিকের সঙ্গে অন্তরঙ্গ!

১৪ বছরের ছোট প্রেমিকের সঙ্গে অন্তরঙ্গ!


Warning: printf(): Too few arguments in /home/dainikpr/public_html/wp-content/themes/viral/inc/template-tags.php on line 113
প্রাইম বিনোদন : বছর শেষে পার্টিতে মেতে উঠেছিলেন তারকারা। আর সেই ছবি বিভিন্ন সোস্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে দেখা গিয়েছে তাদের। নীল-লাল আলোর ঝলকানি। এরই মধ্যে একটু অন্য ধরনের ছবি শেয়ার করলেন সাবেক বিশ্বসুন্দরী ও বলিউড অভিনেত্রী সুস্মিতা সেন। বছর শেষে প্রেমিক রহমানকে আদর আর ভালোবাসায় ভরিয়ে তুললেন! সেই অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি শেয়ার করার পর ভাইরাল হয়ে যায় তা। পোষ্টটিতে ১৪ বছরের ছোট প্রেমিক রহমানকে বাবুস বলে সম্মোধন করতে দেখা গেছে তাকে। শুধু সুস্মিতা নন, রহমান নিজেও তার সোশ্যাল মিডিয়াতে একের পর এক সুস্মিতার সঙ্গে ভালবাসার বিশেষ ছবি শেয়ার করেন। এবারের থার্টি ফাস্ট নাইটেও তারা ঘনিষ্ঠ সময় কাটিয়েছেন একসঙ্গে। শোনা যাচ্ছে এই বছর অর্থাৎ ২০২০ সালেই নাকি গাটছড়া বাঁধতে চলেছেন সুষ্মিতা। নায়িকার ঘনিষ্ঠ মহলের খবর অনুযায়ী, রহমান নাকি অভিনেত্রীকে বিয়ের জন্য প্রস্তাব করেছেন মাসখানেক আগেই। খুব শীঘ্রই জনসমক্ষ
শিশুর লাশ পাওয়া গেলো মাদ্রাসা শিক্ষকের ওয়ারড্রবে

শিশুর লাশ পাওয়া গেলো মাদ্রাসা শিক্ষকের ওয়ারড্রবে


Warning: printf(): Too few arguments in /home/dainikpr/public_html/wp-content/themes/viral/inc/template-tags.php on line 113
নিজস্ব প্রতিবেদক : মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষকের ছেলের লাশ আরেক শিক্ষকের ঘরের ওয়ারড্রব থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলায়। কালীগঞ্জ-কাপাসিয়া সার্কেলের এডিশনাল এসপি পঙ্কজ দত্ত এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, উপজেলার জঙ্গালিয়া ইউনিয়নের ‘মরাশ জামিয়াতুল মাদ্রাসা ও এতিমখানা’ থেকে বুধবার রাতে চার বছর বয়সী শিশু মো. আদিলের লাশ উদ্ধার করা হয়। আদিল ওই মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক মুফতি জোবায়ের আহমেদের ছেলে। তাদের বাড়ি ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার ধলাসিয়া এলাকায়। এ ঘটনায় দু’জনকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কালীগঞ্জ থানার ওসি এ কেএম মিজানুল হক। আটককৃতরা হলেন- মাদ্রাসার শিক্ষক মো. জোনায়েদ আহমেদ (৩০) ও মাদ্রাসার মসজিদের মোয়াজ্জিন খায়রল ইসলাম (২৫) । আদিলের বাবা জোবায়ের বলেন, কয়েকদিন আগে মোয়াজ্জিন খায়রুল ইসলামের মোবাইল ফোন হারিয়ে যায়। এ নিয়ে আরেক শিক্ষক জোনায়েদ আহমেদকে সন্দেহ করছিলেন খায়