বৃহস্পতিবার, মে ২৮
Shadow

Day: এপ্রিল ১, ২০২০

প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ৫ হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা প্যাকেজের গাইডলাইন প্রকাশ

প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ৫ হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা প্যাকেজের গাইডলাইন প্রকাশ

জাতীয়
নিজস্ব প্রতিবেদক : অর্থ মন্ত্রণালয় বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশের রফতানি খাতের শ্রমিকদের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ৫ হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা প্যাকেজের গাইডলাইন প্রকাশ করেছে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, ‘ক্ষতিগ্রস্ত মালিকরা শ্রমিকদের তিনমাসের বেতন-ভাতা পরিশোধের জন্য ২ শতাংশ সুদে এই প্যাকেজ থেকে অর্থ সংগ্রহ করতে পারেন।’ তিন মাস পর্যন্ত বেতন অবশ্যই কোনো ব্যাংকে বা মোবাইল আর্থিক সেবা অ্যাকাউন্টে দিতে হবে। গাইড লাইনে বলা হয়েছে, উৎপাদিত পণ্যের অন্তত ৮০ শতাংশ রফতানি হয় এসব প্রতিষ্ঠান এ তহবিল থেকে অর্থ নেয়ার যোগ্য হবে। পাশাপাশি সংকট চলাকালীন (এপ্রিল, মে ও জুন) তিন মাসের শ্রমিকদের বেতন-ভাতা এ তহবিল থেকে ঋণ নিয়ে পরিশোধ করতে হবে। এই ব্যাপারে বাংলাদেশ ব্যাংককে ইতিমধ্যে একটি বিশদ নীতিমালা তৈরি করতে বলা হয়েছে, অর্থ মন্ত্রণালয় বাংলাদেশ ব্যাংকের ...
শ্রীপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান: সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ আইনে ইজারাদারকে জরিমানা

শ্রীপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান: সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ আইনে ইজারাদারকে জরিমানা

সারাদেশ
নিজস্ব প্রতিবেদক : গাজীপুরের শ্রীপুরে সরকারি আদেশ অমান্য করে গরুর হাট বসানোর অপরাধে এক ইজারাদারকে জরিমানা করা হয়েছে। এসময় আরো পৃথক স্থানে ভ্রম্যমাণ আদালতের অভিযানে জরিমানা করা হয় চালকদের। (১ এপ্রিল বুধবার) সকালে শ্রীপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো.সোহেল রানার সহযোগিতায় উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফারজানা নাসরিন এ অভিযান পরিচালনা করেন। এসময় তিনি জানান, উপজেলার বরমী বাজারের ইজারাদার মো.চান মিয়া সরকারি আদেশ অমান্য করে গরুর হাট বসানোয় তাকে সংক্রমন নিয়ন্ত্রণ আইনে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়াও গণপরিবহন বন্ধ থাকা পরও কিছু ট্রাক ও পিক-আপ ভ্যান ঝুঁকিপূর্ণ যাত্রী পরিবহন করায় তাদের জরিমানার আওতায় আনা হয়েছে। তার সাথে তাদের এ ধরণের কাজ পূণরায় না করার জন্য সতর্ক করে দেয়া হয়েছে। অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান।...
সুবিধাবঞ্চিতদের পাশে চিত্রনায়ক রাশেদ প্রহর

সুবিধাবঞ্চিতদের পাশে চিত্রনায়ক রাশেদ প্রহর

বিনোদন
বিনোদন প্রতিবেদকঃ করোনা পরিস্থিতিতে অসহায় মানুষের দিকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে ঘরে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছেন নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী। দেশজুড়ে করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় ইতোমধ্যে দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ অফিস-আদালত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তখন করোনার প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশের শোবিজ অঙ্গনেও। শোবিজের অনেক তারকারাই নিজেদের জায়গা থেকে সাধারণ জনগণকে সচেতন করছেন। আবার অনেকেই রাস্তায় নেমে পাশে দাঁড়িয়েছেন সাধারণ মানুষের। পাশাপাশি তারকারাও করোনা নিয়ে নানান ধরনের সচেতনা মূলক পোষ্ট দিচ্ছেন তাদের ফেসবুকে। পরামর্শ দিচ্ছেন বাসায় থাকতে ও নিয়ম মেনে চলতে। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে জরুরি প্রয়োজনে ঘর থেকে বের হওয়া নিষেধ। এ অবস্থায় দিনমজুর হিসেবে যাঁরা কাজ করেন, তাঁরা পড়েছেন বিপাকে। কারণ, তাঁরা প্রতিদিন যে টাকা পান, তা দিয়ে চলেনা সংসার। না খেয়ে থাকার মতো অবস্থা হয়েছে তাঁদের। আর এই অসহায় মানু...
করোনা ভাইরাস : রেল-বাস পর্যায়ক্রমে চালু করবে সরকার

করোনা ভাইরাস : রেল-বাস পর্যায়ক্রমে চালু করবে সরকার

জাতীয়
নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে ছুটি বাড়লেও মানুষের জীবন জীবিকার স্বার্থে রিকশা-ভ্যানসহ রেল, বাস পর্যায়ক্রমে চালু করা হবে বলে জানিয়েছে সরকার। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে আজ বুধবার (১ এপ্রিল) সাধারণ ছুটি আগামী ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়িয়ে জারি করা প্রজ্ঞাপনে একথা জানায়। গত ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পরে দ্বিতীয় দফায় ১০ ও ১১ এপ্রিলের সাপ্তাহিক ছুটি যুক্ত করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। ছুটি বাড়ানোর প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, জরুরি পরিষেবার (বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস, ফায়ার সার্ভিস, পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট ইত্যাদি) ক্ষেত্রে এ ব্যবস্থা (ছুটি) প্রযোজ্য হবে না। ‘কৃষিপণ্য, সার, কীটনাশক, খাদ্য, শিল্প পণ্য, চিকিৎসা সরঞ্জমাদি, জরুরি নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য পরিবহন এবং কাঁচা বাজার, খাবার, ওষুধের দোকান ও হাসপাতাল এ ছুটির আওতাবর্হিভূত থাকবে। জরুরি প্রয়োজনে অফিস খোলা রাখা যাবে। প্রয়োজনে ওষুধশিল...
বৃহস্পতিবার থেকে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে সেনাবাহিনী

বৃহস্পতিবার থেকে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে সেনাবাহিনী

জাতীয়
নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) থেকে দেশের সব স্থানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং হোম কোয়ারেন্টিনের বিষয়টি কঠোরভাবে নিশ্চিত করবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। বুধবার আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়, বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) থেকে দেশের সব স্থানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং হোম কোয়ারেন্টিনের বিষয়টি কঠোরভাবে নিশ্চিত করবে সেনাবাহিনী। সরকার প্রদত্ত নির্দেশাবলী অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।...
সতর্ক থেকে নিজে বাঁচুন, অন্যকে বাঁচতে দিন’

সতর্ক থেকে নিজে বাঁচুন, অন্যকে বাঁচতে দিন’

স্বাস্থ্য
নিজস্ব প্রতিবেদক : এক সর্বগ্রাসী আতঙ্কে এখন সারাবিশ্ব জবুথবু হয়ে পড়েছে। করোনাভাইরাস নামের এক বিধ্বংসী জীবাণু আজ মানবসভ্যতাকে চরম হুমকির মধ্যে ফেলেছে। পৃথিবীতে অনেক যুদ্ধ-বিগ্রহ, হানাহানি হয়েছে। দুই-দুইটি বিশ্বযুদ্ধ ছাড়াও অসংখ্য দ্বিপক্ষীয় এবং আঞ্চলিক যুদ্ধ সংঘটিত হয়েছে। ব্যাপক প্রাণহানি এবং সম্পদ বিনাশ হয়েছে এসব যুদ্ধে। কিন্তু কোনো যুদ্ধই দুনিয়াজুড়ে ঘরে ঘরে এমন দুশ্চিন্তার জন্ম দেয়নি। ওইসব যুদ্ধে সৈনিকরা রণাঙ্গনে মুখোমুখি শত্রুর বিরুদ্ধে লড়েছে, কেউ কেউ মরেছে। চলমান করোনা-যুদ্ধের ধরন এবং প্রকৃতি ভিন্ন। এই শত্রুকে চোখে দেখা যায় না। কখন, কীভাবে, কাকে সংক্রমিত করছে, তা আগে থেকে টের পাওয়া যায় না। ধারণা করা হচ্ছে চীনে বাদুড় জাতীয় কোনো প্রাণী থেকে মানুষের দেহে ছড়িয়েছে এই ভাইরাস কোভিড-১৯। এর বিরুদ্ধে প্রতি-আক্রমণ চালানোর অস্ত্র এখনও আবিষ্কৃত হয়নি। তবে বিজ্ঞানীরা বসে নেই। করোনার প্রতিষেধক আবিষ্কা...
বৈশ্বিক মহামারী ও আমাদের করণীয়

বৈশ্বিক মহামারী ও আমাদের করণীয়

উপসম্পাদকীয়, স্বাস্থ্য
নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনাভাইরাসের কারণে পৃথিবী আজ এক কঠিন সময় পার করছে। মাত্র তিন মাসেরও কম সময়ে সমস্ত পৃথিবীর চেহারা পাল্টে গেলো ! সমগ্র জগতের নগর থেকে নগরে আজ লকডাউন ! বন্ধ হয়ে গেছে জাগতিক সব ঘূর্ণন গতি; কলকারখানা, ইঞ্জিত, স্থল-আকাশ কিংবা জলের সব যানের গতি, থেমে গেছে মানুষের আনাগোনা, অর্থনীতির চঞ্চলতা। মানুষ ফিরে গেছে সেই আদিম জীবনে ! মনে হচ্ছে এক রূপকথার সময় অতিক্রম করছে আজ বিশ্ব, মনে হচ্ছে মানুষ দেখছে সায়েন্স ফিকশনের কোন সিনেমা। বাংলাদেশ পৃথিবীর বাইরের কোন দেশ নয়। তাই আমাদেরও আছে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা। আমাদের দেশের বেশিরভাগ মানুষের দৃষ্টি হলো রাজনৈতিক। আমরা পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি রাজনীতি সচেতন জাতি। করোনাও আমাদেরকে রাজনীতি বিমুখ করতে পারেনি। আমাদের সরকারগুলো যেমন রাজনৈতিকভাবে প্রতিটি ঘটনাকে দেখে, আমাদের বিরোধীদলগুলোও তেমনি দেখে। রাজনীতির কারণেই আমাদের সরকার ঘোষিত করোনা রোগীর হিসাব অনেকে বিশ্বাস...
করোনার কালকেটা কেমন হবে?

করোনার কালকেটা কেমন হবে?

উপসম্পাদকীয়
নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনা স্থবির করে দিয়েছে গোটা বিশ্বকে। বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে সব ধরনের সামাজিক যোগাযোগ। কোভিড-১৯ আতঙ্কে কাঁপছে বাংলাদেশও। যদিও বাংলাদেশে সংক্রমণ এখনো কম, তবু বিপুল ঘনবসতির এই দেশে পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে আশঙ্কা করছেন কেউ কেউ। পাঁচজন এরই মধ্যে মারা গেছেন। এর শেষ কোথায় এটা এখন বোধহয় কেউ বলতে পারবেন না। আমিও পারবো না। তবে এটুকু বলতে পারি শেষটা অবশ্যই হবে। এটা এমন কোনো জিনিস না যে এটা দিয়ে মানবসভ্যতা ধ্বংস হয়ে যাবে। কতগুলো বৈজ্ঞানিক ভিত্তির ওপর দাঁড়িয়ে এ কথা বলা যায়। ভ্যাকসিন তৈরির কাজ চলছে। ছয় মাসে না হোক ভ্যাকসিন চলে আসবেই। দ্বিতীয় বিষয় হলো এই ভাইরাসে মানুষ কেন অসুস্থ হচ্ছে বা মারা যাচ্ছে? কারণ এটি আমাদের জন্য নতুন একটি ভাইরাস। এর বিরুদ্ধে আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ছিল না। যখন আস্তে আস্তে অনেক মানুষ আক্রান্ত হয়ে যাবে তখন আশেপাশের আরও অনেক মানুষের মধ্যে রোগ প্রত...
কোয়ারেন্টাইনে থাকাকালীন যে খাবারগুলো বেশি খাবেন

কোয়ারেন্টাইনে থাকাকালীন যে খাবারগুলো বেশি খাবেন

স্বাস্থ্য
নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে সবাই বর্তমানে ঘরমুখী। অনেকেই মেনে চলছেন হোম কোয়ারেন্টাইন। এসময় বাড়িতে থেকে খাওয়া, ঘুম ও ঘরের ছাড়া আর তেমন কোনো কাজও থাকে না কারো। তাই বন্দি থেকে অনেকেই বিরক্ত হয়ে যান। আবার এতে পরিবর্তন আসে দৈনন্দিন রুটিনেও। যা শরীরের পাশাপাশি মনের উপরও বেশ প্রভাব ফেলছে। জেনে নিন এসময় আপনার অবসাদ দূর করতে পারে কোন খাবারগুলো। এছাড়াও এ খাবারগুলো আপনার ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতেও সহায়তা করবে। ভেষজ চা ভেষজ চা আমাদের শরীর ও মনকে চাঙ্গা করতে সহায়তা করে। এছাড়াও এটি ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে খুবই কার্যকরী। হোম কোয়ারেন্টাইনে থেকে প্রতিদিন অন্তত এক কাপ ভেষজ চা পান করুন। এক্ষেত্রে গ্রিন টি, ল্যাভেন্ডার বা যে কোনো ভেষজ চা পান করতে পারেন। ডার্ক চকোলেট ডার্ক চকোলেটে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আমাদের চাপ এবং উদ্বেগ কমাতে সহায়তা করে। এছাড়াও এটি মানসিক বেশ প্রভাব ফেলে। শিশু থেকে ব...
৭১ এ পাক বাহিনীর চেয়েও হিংস্র ছিল জামায়াত

৭১ এ পাক বাহিনীর চেয়েও হিংস্র ছিল জামায়াত

রাজনীতি
নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর চেয়েও তাদের এ দেশীয় দোসর জামায়াতে ইসলামী বেশি হিংস্র ছিল। সে সময় জামায়াতের সৃষ্ট আল-বদর ও আল-শামস বাহিনী বুদ্ধিজীবী ও মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের লোকদের গণহত্যায় আগ্রাসী ভূমিকা পালন করেছে। পাকিস্তানের ইংরেজি জাতীয় দৈনিক ডেইলি টাইমস গত বুধবার তাদের সম্পাদকীয়তে এ মন্তব্য করেছে। ?ক্লোজিং ওল্ড উন্ডস? (পুরোনো ক্ষতের অবসান) শিরোনামে প্রকাশিত ওই সম্পাদকীয়তে বলা হয়েছে, অবশেষে বাংলাদেশ এক ঐতিহাসিক পদক্ষেপের মাধ্যমে ১৯৭১ সালে পূর্ব পাকিস্তানে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় সংঘটিত হত্যাযজ্ঞের বিচার প্রক্রিয়া শুরু করেছে। ৩০ লাখ মানুষ হত্যার তদন্ত ও যুদ্ধাপরাধের মূল হোতাদের বিচারের আওতায় আনতে সরকার সাংবিধানিক উপায়ে যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনাল গঠন করেছে। এই ট্রাইব্যুনাল প্রথম অভিযুক্ত ব্যক্তি হিসেবে জামায়াতে ইসলামীর জ্যেষ্ঠ নেতা দেলা...