বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২২
Shadow

Day: সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২০

শতভাগ আসনে যাত্রী নিয়ে স্বাভাবিক ট্রেন চলাচল

শতভাগ আসনে যাত্রী নিয়ে স্বাভাবিক ট্রেন চলাচল

জাতীয়
প্রাইম ডেস্ক : প্রায় ছয় মাস পর স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরেছে ট্রেন চলাচল। গতকাল বুধবার থেকে আগের মতো প্রতি আসনে যাত্রী নেওয়া হচ্ছে। ফলে দীর্ঘদিন পর শতভাগ আসনে যাত্রী নিয়ে গন্তব্যে ছুটছে ট্রেন। তবে বুধবার থেকে অর্ধেক আসনে যাত্রী নেওয়ার নিয়ম বদল করে শতভাগ আসনে ট্রেনের টিকিট বিক্রি হলেও বন্ধ রয়েছে স্ট্যান্ডিং টিকিট। ফলে আপাতত যাত্রীদের দাঁড়িয়ে যাওয়ার সুযোগ বন্ধ রয়েছে। কমলাপুর ও বিমানবন্দর স্টেশনে টিকিট ছাড়া পস্ন্যাটফর্মে প্রবেশের সুযোগও বন্ধ করা হয়েছে। এতে ট্রেনে অতিরিক্ত যাত্রী দাঁড়িয়ে নেওয়ার সুযোগ কমেছে অসাধু রেল কর্মকর্তাদের। গতকাল বুধবার সকালে কমলাপুর রেলস্টেশনে গিয়ে দেখা যায়, স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাউন্টারে ট্রেনের ৫০ শতাংশ টিকিট বিক্রি করা হয়। টিকিট কেনার সময় দূরত্ব বজায় রাখতে আনসার বাহিনী কাজ করে। পস্ন্যাটফর্মের প্রবেশপথে ছিল হ্যান্ড স্যানিটাইজার। বাকি ৫০ শতাংশ টিকিট অনলাইন থেকে কিনেন যাত্রীর...
বদলে যাবে দেশ : সড়ক যোগাযোগেও হবে মডেল

বদলে যাবে দেশ : সড়ক যোগাযোগেও হবে মডেল

অর্থনীতি, জাতীয়
প্রাইম ডেস্ক : আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে দেশের সব মহাসড়ক দুই-চার থেকে ছয় লেনে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে সেসব মহাসড়ক আট লেনে উন্নীত করার পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। ইতোমধ্যে দেশের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক মহাসড়কগুলোতে চার থেকে আট লেন পর্যন্ত নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। বেশ কিছু প্রকল্প বাস্তবায়নের অপেক্ষায়। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বিশ^মানের সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়ে তুলতে সরকারের এই উদ্যোগ। এরই ধারাবাহিকতায় সড়ক বিভাগের ১৯৮টি প্রকল্পের কাজ এগিয়ে নিতে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। এরমধ্যে ১৭টি মেগা প্রকল্প রয়েছে। নতুন মহাসড়ক উন্নয়ন পরিকল্পনায় সড়ক দুর্ঘটনা রোধে রয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা। ছোট ছোট যানবাহন চলাচলে নতুন সড়কগুলোতে থাকবে পৃথক লেন। যোগাযোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রকল্প নিলেই হবে না। বাস্তবায়নে গুরুত্ব দেয়ার পাশাপাশি অর্থ সংস্থান নিশ্চিত করার বিকল্প নেই। সব মিলিয়ে এসব প্রকল্প বাস্তবায়ন করা গেলে বদলে যাবে দেশ। সড়ক যোগাযো...
সুনীল অর্থনীতির সুফল ঘরে তুলতে ১০ কৌশল

সুনীল অর্থনীতির সুফল ঘরে তুলতে ১০ কৌশল

অর্থনীতি
প্রাইম ডেস্ক : দেশের সম্ভাবনাময় সুনীল অর্থনীতির (ব্লু-ইকোনমি) সুফল ঘরে তুলতে ১০ ধরনের কৌশল নেয়া হচ্ছে। কৌশলগুলো নির্ধারণ করেছে সাধারণ অর্থনীতি বিভাগ (জিইডি)। একইসঙ্গে পাঁচ ধরনের চ্যালেঞ্জও চিহ্নিত করা হয়েছে। সংস্থাটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে- সমুদ্রে বাংলাদেশের বিশাল সুযোগ রয়েছে, যা আন্তর্জাতিক ব্যবসা-বাণিজ্যের বিস্তারে সহায়ক। মিয়ানমারের সঙ্গে সমুদ্রসীমা ঘিরে বিরোধ নিষ্পত্তিতে প্রাপ্ত এলাকা এখন দেশের ‘উন্নয়নের নতুন ক্ষেত্র’ হিসেবে গণ্য হচ্ছে। বাংলাদেশ প্রেক্ষিত পরিকল্পনায় (২০২১-৪১) এসব কৌশল ও চ্যালেঞ্জ তুলে ধরা হয়। দীর্ঘমেয়াদি এ পরিকল্পনা সম্প্রতি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে বিশ্বব্যাংক ঢাকা কার্যালয়ের সাবেক লিড ইকোনমিস্ট ড. জাহিদ হোসেন যুগান্তরকে বলেন, ইতোমধ্যে ছয় বছর পেরিয়ে গেছে; কিন্তু এখনও কিছুই হয়নি। সমুদ্র অর্থনীতিতে বিনিয়োগের দ্বার দ্রুত খুলে দেয়া উচিত। তা না-হলে সমুদ...
জুনে খুলছে নতুন এক্সপ্রেসওয়ে

জুনে খুলছে নতুন এক্সপ্রেসওয়ে

জাতীয়
প্রাইম ডেস্ক : আগামী বছরের জুনেই যানবাহন চলার জন্য খুলে দেওয়া হচ্ছে ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ের দ্বিতীয় অংশ তেঘরিয়া থেকে বাবুবাজার। এ অংশের দৈর্ঘ্য ৩ কিলোমিটার। এর মধ্যে আড়াই কিলোমিটারই এলিভেটেড (উড়াল)। ইতোমধ্যে এলিভেটেড অংশের কাজ প্রায় শতভাগ সম্পন্ন। বাকি অংশ সমতলভূমিতে। এ অংশের কাজও প্রায় শেষ পর্যায়ে। আগামী বছরের জুনের মধ্যে যানবাহন চলার জন্য খুলে দেওয়া হলে রাজধানীর দক্ষিণ ও পশ্চিম অঞ্চলের যোগাযোগব্যবস্থা হবে আরও সহজ। এর আগে মার্চে খুলে দেওয়া হয়েছে ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ের মূল অংশ ৫৫  কিলোমিটার। দ্বিতীয় ফেজের এলিভেটেড অংশের সড়কের পাশে রেলিং বসানো ও লেন বিভাজন রঙের কাজ চলছে। বসানো হচ্ছে বৈদ্যুতিক খুঁটি। টানা হচ্ছে বৈদ্যুতিক তার। এক্সপ্রেসওয়ের এ অংশ চালু হলে ঢাকার দক্ষিণ ও পশ্চিম অঞ্চলের সঙ্গে দেশের দক্ষিণাঞ্চলের যোগাযোগব্যবস্থা সহজ হবে। বাবুবাজার থেকে মাওয়া যেতে লাগবে ৩০-৩৫ মি...
ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ

আন্তর্জাতিক
প্রাইম আন্তর্জাতিক  : আগামী ৩ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। এ উপলক্ষে বর্তমানে পুরোদমে চলছে প্রচারণা। এরই মধ্যেই ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ করলেন সাবেক মডেল অ্যামি ডরিস। যুক্তরাজ্যের সংবাদপত্র দ্য গার্ডিয়ানকে সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, “১৯৯৭ সালে ট্রাম্প আমাকে জোর করে চুম্বন করেন। ঘটনাটা ঘটেছিল নিউ ইয়র্কে ইউএস ওপেন টেনিস চ্যাম্পিয়ানশিপ চলার সময় ভিআইপি বক্সে।” ডরিস বলেছেন, “ট্রাম্প আমায় চেপে ধরেন। তারপর জোর করে তার জিহ্বা আমার মুখের ভিতরে ঢুকিয়ে দেন। ট্রাম্প এত জোরে চেপে ধরেছিলেন যে আমি ছাড়াতে পারছিলাম না। তার হাত আমার স্তন, পশ্চাৎদেশ সহ শরীরের সব জায়গা স্পর্শ করছিল। আমি বারবার তাকে থামতে বলেছিলাম, কিন্তু তিনি থামেননি।” ডরিসের দাবি, “আমি সে সময় অনেককেই এই ঘটনার কথা বলেছিলাম। তাদেরকে জিজ্ঞাসা করে দেখতে পারেন।” যখন এই ঘটনা ঘটেছিল, ত...
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারী পার্কে মৃত প্রাণীতে ট্যাক্সিডার্মি

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারী পার্কে মৃত প্রাণীতে ট্যাক্সিডার্মি

বিনোদন
আ.আজিজ : দর্শনার্থীদের বিনোদনের জন্য গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারী পার্কে রয়েছে হাজারো দেশী বিদেশী প্রাণীর মহামিলন। জীবিত প্রাণী দর্শনার্থীদের বিনোদনের অন্যতম কেন্দ্রবিন্দুতে থাকলেও মৃত প্রাণীও দর্শনার্থীদের সামনে তুলে ধরতে কাজ শুরু করেছে সাফারী পার্ক কর্তৃপক্ষ। পার্কে বিভিন্ন ভাবে মারা প্রাণীকে ট্যাক্সিডার্মি পূর্বক সংরক্ষন করে তাকে স্থান দেয়া হচ্ছে ন্যাচারাল হিস্ট্রি মিউজিয়ামে। যেখান থেকে দর্শনার্থীরা এসব প্রাণীর বিষয়ে  শিক্ষালাভ করতে পারবে। সাফারী পার্ক কর্তৃপক্ষের দেয়া তথ্য মতে, বর্তমান সময়ে ট্যাক্সিডার্মি হলো শিল্প ও বিজ্ঞানের অনন্য সংমিশ্রণ যা বিলুপ্ত ও বিপন্ন প্রায় প্রাণীকুলের পরিচিতি ও তথ্য জানতে দর্শনার্থীদের সাহায্য করবে। সাধারণত গবেষণা ও পাঠদানের উদ্দেশ্যে মৃত প্রাণীকে ট্যাক্সিডার্মি করা হয়। মৃতপ্রাণীর শরীরকে(প্রধানত চামড়াকে) রাসায়নিক ও ট্যানিংয়ের মাধ্যমে সংরক্ষনের প্...
একনজরে আল্লামা শাহ আহমদ শফী

একনজরে আল্লামা শাহ আহমদ শফী

জাতীয়
নিজস্ব প্রতিবেদক : আল্লামা শাহ আহমদ শফী একজন ইসলামি ব্যক্তিত্ব, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা ও দায়িত্বপ্রাপ্ত আমির। তিনি একইসঙ্গে বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের চেয়ারম্যান। তিনি দারুল উলুম মুঈনুল ইসলামের হাটহাজারীর মহাপরিচালক ছিলেন। শাহ আহমদ শফী চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া থানার পাখিয়ারটিলা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি আল-জামিয়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম ও ভারতের দারুল উলুম দেওবন্দ মাদরাসায় শিক্ষালাভ করেন। শফী আল-জামিয়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মুঈনুল ইসলামে শিক্ষকতার মাধ্যমে কর্মজীবন শুরু করেন। ২০১০ সালে হেফাজতে ইসলাম নামে একটি ধর্মীয় সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেন। ছাত্র বিক্ষোভের মুখে অবরুদ্ধ অবস্থায় অসুস্থ হয়ে পড়েন আল্লামা শাহ আহমদ শফী। মাদ্রাসার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নেয়ার পর বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে চট্টগ্রাম হ...
আল্লামা শফীর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক

আল্লামা শফীর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক

জাতীয়
নিজস্ব প্রতিবেদক : আল্লামা শাহ আহমেদ শফীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) পৃথক শোক বার্তায় তারা সমবেদনা জানান। শোক বার্তায়, রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোক-সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। এর আগে, শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান জামেয়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মইনুল ইসলাম মাদ্রাসার সাবেক মহাপরিচালক আল্লামা আহমেদ শফী। তার বয়স হয়েছিল ১০৫ বছর। দেশের শীর্ষ কওমি আলেম আল্লামা আহমদ শফী ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপসহ বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। এর আগেও কয়েকবার তাকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছে। গত কয়েক মাসে শরীরে নানা জটিলতা দেখা দিয়েছিল তার।...
আল্লামা আহমদ শফী আর নেই

আল্লামা আহমদ শফী আর নেই

জাতীয়
নিজস্ব প্রতিবেদক : হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না ... রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল প্রায় ১০৫ বছর। গতকাল শুক্রবার  সন্ধ্যায় রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন থাকা আল্লামা আহমদ শফীর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে বিকেলে তাকে ঢাকায় এনে আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৪টায় হেফাজত ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীর শারীরিক অবস্থা অবনতি হওয়ায় তাকে ঢাকায় আনা হয়েছিল। চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের আইসিইউতে থাকা আল্লামা শফীকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে শুক্রবার সন্ধ্যার আগে ঢাকায় এনে আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপরই তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। শতবর্ষী আল্লামা আহমদ শফী দীর্ঘদিন যাবৎ বার্ধক্যজনিত দুর্বলতার পাশাপাশি ডায়াবেটিস,...